"সংবাদপত্র" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

(বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।)
(→‎বাংলায় সংবাদপত্র: সম্প্রসারণ)
রাজা রামমোহন রায় বাংলা সংবাদ কৌমুদী, ইংরেজি ব্রাহ্মিনিক্যাল ম্যাগাজিন ও ফার্সিতে মিরাত-উল-আকবর প্রকাশ করেন এবং তার নেতৃত্বে ভারতীয় ও ইউরোপীয় সম্পাদকদের ঐক্যবদ্ধ চাপে লর্ড উইলিয়ম বেন্টিঙ্ক বিদ্যমান সংবাদপত্র আইন শিথিল করতে বাধ্য হন।
১৮৫৮ সালে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর বাংলা সাপ্তাহিক সোমপ্রকাশ প্রকাশ করেন। ১৮৫৯ সালে ঢাকায় বাংলাযন্ত্র নামে প্রথম বাংলা মুদ্রণালয় প্রতিষ্ঠিত হয়, যেখান থেকে ১৮৬১ সালে ঢাকা প্রকাশ প্রকাশিত হয়। এ বছরেই দি জন বুল ইন দি ইস্ট (পরবর্তী নামকরণ দি ইংলিশম্যান) ইউরোপীয়দের ও ভারতে নীলকরদের শক্তিশালী মুখপত্র হয়ে ওঠে। ১৮৬৫ সালে এলাহাবাদ থেকে প্রকাশিত পাইওনিয়র পূর্ণাঙ্গ সংবাদ পরিবেশনের জন্য খ্যাতি অর্জন করে। ১৮৬৮ সালে ঘোষ ভ্রাতৃগণ ([[শিশির কুমার ঘোষ]] ও মতিলাল ঘোষ) যশোরের ক্ষুদ্র গ্রাম ফুলুয়া-মাগুরা থেকে বাংলা সাপ্তাহিক অমৃত বাজার পত্রিকা প্রকাশ করেন (পরবর্তীকালে কলকাতায় স্থানান্তরিত)। ১৮৮১ সালে যোগেন্দ্র নাথ বসু বঙ্গবাসী প্রকাশ করেন। ১৮৭২ সালে প্রকাশিত বাংলা নীল দর্পণ নাটক ইউরোপীয় নীলচাষীদের নির্মম অত্যাচারের চিত্র তুলে ধরলে সরকারি মহলে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখা দেয় এবং ফলত সরকার ১৮৭৬ সালে নীলকরদের স্বার্থরক্ষার উদ্দেশ্যে অভিনয় নিয়ন্ত্রণ আইন পাস করে। অমৃত বাজার পত্রিকা (যশোর) সহ আরও কতিপয় স্থানীয় পত্রিকা নীলচাষীদের পক্ষাবলম্বন করে।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|শিরোনাম=সংবাদপত্র ও রাজনীতি|ইউআরএল=http://bn.banglapedia.org/index.php?title=%E0%A6%B8%E0%A6%82%E0%A6%AC%E0%A6%BE%E0%A6%A6%E0%A6%AA%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%B0_%E0%A6%93_%E0%A6%B0%E0%A6%BE%E0%A6%9C%E0%A6%A8%E0%A7%80%E0%A6%A4%E0%A6%BF|ওয়েবসাইট=বাংলাপিডিয়া|সংগ্রহের-তারিখ=13 মে 2017}}</ref>
 
== বাংলাদেশের গনমাধ্যম ==
বর্তমানে বাংলাদেশে প্রায় কয়েক হাজার অনলাইন, প্রিন্ট ভার্ষণ ও সাপ্তাহিক পত্র পত্রিকা প্রকাশিত হয়ে থাকে। উল্লেখযোগ্য কয়েকটি গণমাধ্যম যেমন- ইত্তেফাক, প্রথম আলো, নায়াদিগন্ত, ডেইলি ইনকিলাব, মনব জমিন, বিডি প্রতিদিন, জায়জায়দিন, আমাদের সময়, যুগান্তর, দৈনিক সংগ্রাম, কালের কণ্ঠ, সমকাল, ভোরেরকাগজ, জনকণ্ঠ, ভোরেরপাতা এবং সময়ের আলো। বাংলাদেশে সাংবাদিকদের বিভিন্ন সময় হয়রানির শিকার হতে হয়।সংবাদ সংগ্রহে বাধা প্রধান করা হয়। তারপরেও বাংলাদেশে পত্রিকার সংখ্যা দিন দিন উল্লেখযোগ্য হারে বাড়ছে।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://banglanews.news/|শিরোনাম=Bangla News|শেষাংশ=The media|প্রথমাংশ=of Bangladesh|তারিখ=14/07/2020|ওয়েবসাইট=Bangla News|ভাষা=en-GB|সংগ্রহের-তারিখ=2020-07-14}}</ref>
 
== তথ্যসূত্র ==
১১টি

সম্পাদনা