"পূর্ব নাগরী লিপি" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
{{original research|date=March 2018}}
 
{{তথ্যছক লিখন পদ্ধতি|type=আবুগিডা|name=পূর্বী নাগরী|sample=|imagesize=225px|languages=[[সিলেটি ভাষা|সিলোটি]]<div>অসমীয়া</div><div>বাংলা</div><div>বিষ্ণুপ্রিয়া মনিপুরী</div><div>মেইতেই</div><div>এবং অন্যান্য</div>|time=সি ১১০০-বর্তমান|fam1=প্রোটো সিনেইটিক বর্ণমালা <sup>[a]</sup>|fam2=ফিনিশীয় বর্ণমালা <sup>[a]</sup>|fam3=এরামিক বর্ণমালা <sup>[a]</sup>|fam4=ব্রাহ্মী|fam5=গুপ্ত|fam6=সিদ্ধম|sisters=বাংলা, [[সিলেটী ভাষা|সিলটি সিলোটি]] ও অসমীয়া|iso15924=Beng|unicode=[http://www.unicode.org/charts/PDF/U0980.pdf U+0980–U+09FF]|footnotes=[a] সেমেটিক অঞ্চলের ব্রাহ্মী লিপি সার্বজনীন ভাবে স্বীকৃত নয়।}}'''পূর্ব নাগরী বর্ণমালা''' বা '''প্রাচ্য নাগরী''' [[বাংলা ভাষা|বাংলা]], [[সিলেটী ভাষা|সিলোটি]] ও [[অসমীয়া ভাষা|অসমীয়]] ভাষাসহ বেশ কিছু ভাষায় ক্ষুদ্র বৈচিত্র সহকারে ব্যবহৃত হয়। এর ব্যবহার মূলত বাংলা ও অসমীয় ভাষাতেই অধিক। এই লিখন পদ্ধতি কে বা কারা আবিষ্কার করেছে এটা নিয়ে বিতর্ক রয়েছে। অসমীয়া ভাষাভাষীদের দাবি, এটা তাদের আবিষ্কার এবং বাংলা ভাষা ভাষীদের দাবি এটা তাদের নিজের আবিষ্কার। তবে প্রকৃতপক্ষে এটা চীন, বার্মা ও বঙ্গের মধ্যখানের যে অঞ্চল সে অঞ্চলে [[সিলেট অঞ্চল|সিলেট]] উদ্ভব লাভ করেছে বলে বলা হয় এই লিখন পদ্ধতি ও [[সিলেটি]] দের আবিষ্কার। আর এই লিখন পদ্ধতির আদি নিদর্শন চর্যাপদ সিলেটি ভাষায় লিখা বলে এই মোটি জোর লাভ করেছে। এছাড়াও এই বর্ণমালা ঐতিহাসিক ভাবে বিভিন্ন ভাষা যেমন, [[বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী ভাষা|বিষ্ণুপ্রিয়া মনিপুরী]], [[মৈতৈ ভাষা|মৈতৈ মনিপুরী]] ও [[ককবরক ভাষা]]য় ব্যবহৃত হয়েছে। আরো কিছু ভাষা যেমন, খাসি, বোদো, কারবি, মিসিং ইত্যাদিতে পূর্বযুগে এই বর্ণমালায় লেখা হতো। <ref>Prabhakara, M S [http://www.hinduonnet.com/2005/05/19/stories/2005051904051100.htm Scripting a solution] {{ওয়েব আর্কাইভ|ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20070710202520/http://www.hinduonnet.com/2005/05/19/stories/2005051904051100.htm |তারিখ=১০ জুলাই ২০০৭ }}, The Hindu, 19 May 2005.</ref>
 
== বিবরণ ==
বেনামী ব্যবহারকারী