২০২০ দিল্লি দাঙ্গা: সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
দিনে অন্য একটি হত্যার সাথে, মৃতের সংখ্যা ৪২ -এ পৌঁছায়। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে গেছে বলে ধরে নিয়ে বাড়ি থেকে বেরিয়ে আসা ৬০ বছর বয়সের এক নেকড়া সংগ্রহকারীকে আক্রমণ করা হয় এবং মাথায় আঘাতের কারণে হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা জান। [৮৪] ]
===২৯ ফেব্রুয়ারি===
দিনটিতে কোনও নতুন সহিংসতার ঘটনা পুলিশে রিপোর্ট করা হয়নি, কিছু দোকান আবার চালু হওয়ার সাথে দাঙ্গা শেষ হয়।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://timesofindia.indiatimes.com/city/delhi/situation-returning-to-normal-in-riot-hit-northeast-delhi-some-shops-reopen/articleshow/74418181.cms|শিরোনাম=Situation returning to normal in riot-hit northeast Delhi, some shops reopen|তারিখ=Feb 29, 2020|ওয়েবসাইট=The Times of India|সংগ্রহের-তারিখ=2020-03-04}}</ref> সামাজিক মিডিয়াতে উত্তেজক সামগ্রী পোস্ট করা লোকজনের বিরুদ্ধে ১৩ টি মামলা দায়ের করা হয়।<ref name="ToI29FebEnd" /> [[রবি শঙ্কর]] ব্রহ্মপুরীর মতো দাঙ্গা-আক্রান্ত অঞ্চল পরিদর্শন করেন।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://timesofindia.indiatimes.com/city/delhi/situation-peaceful-but-tense-in-delhi-sri-sri-ravi-shankar-visits-riot-hit-areas/articleshow/74426342.cms|শিরোনাম=Situation peaceful but tense in Delhi; Sri Sri Ravi Shankar visits riot-hit areas|তারিখ=Mar 1, 2020|ওয়েবসাইট=The Times of India|সংগ্রহের-তারিখ=2020-03-04}}</ref>অপিইন্ডিয়ানিউজ পোর্টাল অপইন্ডিয়া সিদ্ধান্ত নিয়েছিল দাঙ্গাবিধ্বস্ত কারওয়াল নগর পর্যবেক্ষণ করার এবং সেখানে গিয়ে দেখে এসেছে মুসলিমরা সেখানে কিরকম বীভৎস দাঙ্গা বাঁধিয়ে এসেছে।
টুইটারে অনুপম কে সিংহ লিখেছেন:
 
৬২টি

সম্পাদনা