"মুসলিম লীগ (পাকিস্তান)" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
১৯৮৮ সালে [[পাকিস্তান|পাকিস্তানের]] সামরিক শাসক এবং পরবর্তীকালে বেসামরিক রাষ্ট্রপতি [[মুহাম্মদ জিয়া-উল-হক|মুহাম্মদ জিয়া-উল-হকের]] মৃত্যুর পরে [[নওয়াজ শরীফ|মিয়া মুহাম্মদ নওয়াজ শরীফের]] নেতৃত্বে [[পাকিস্তান মুসলিম লীগ (এন)]] নামে একটি নতুন মুসলিম লীগ গঠিত হয়। তবে আসল মুসলিম লীগের সাথে এর কোনও যোগসূত্র ছিল না। ১৯৯০ সাল থেকে ১৯৯৩ সাল পর্যন্ত [[নওয়াজ শরীফ]] [[পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী]] ছিলেন। পরবর্তীতে [[পাকিস্তান|পাকিস্তানের]] তৃতীয় সামরিক অভ্যুত্থানে ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার আগ পর্যন্ত ১৯৯৭ সাল থেকে ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত পুনরায় প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। অক্টোবরে [[পারভেজ মুশাররফ|জেনারেল পারভেজ মুশাররফের]] সামরিক সরকার কর্তৃক অনুষ্ঠিত বিতর্কিত নির্বাচনে মুসলিম লীগের নাম ব্যবহার করে পাঁচটি আলাদা দল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে।
 
এগুলোর মধ্যে বৃহত্তম দল [[পাকিস্তান মুসলিম লীগ (কা)|পাকিস্তান মুসলিম লীগ (কায়েদ-ই-আজম)]] ২৭২ টি আসনের মধ্যে ৬৯ টি আসন লাভ করে এবং [[নওয়াজ শরীফ|নওয়াজ শরীফের]] অনুগত [[পাকিস্তান মুসলিম লীগ (এন)|পাকিস্তান মুসলিম লীগ (নওয়াজ)]] ১৯ টি আসন পায়। ২০০৮ সালের নির্বাচনের পরে [[পাকিস্তান মুসলিম লীগ (কা)|কায়েদ-ই-আজম মুসলিম লীগ]] ক্ষমতাসীন জোটে ছিল এবং [[নওয়াজ শরীফ|নওয়াজনওয়াজশরীফের]] [[পাকিস্তান মুসলিম লীগ (এন)|মুসলিম লীগ]] ছিল বিরোধী দলে। পরবর্তীতে ২০১৩ সালের নির্বাচনে [[পাকিস্তান মুসলিম লীগ (এন)|পাকিস্তান
 
== তথ্যসূত্র ==