"সালাফি আন্দোলন" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

Al Riaz Uddin Ripon-এর করা 4137685 নং সংস্করণে প্রত্যাবর্তন করা হয়েছে। (টুইং)
(Al Riaz Uddin Ripon-এর করা 4137685 নং সংস্করণে প্রত্যাবর্তন করা হয়েছে। (টুইং))
ট্যাগ: পূর্বাবস্থায় ফেরত
<br />{{Distinguish|সালাফ}}
{{Sunni Islam|Movements}}
'''সালাফি আন্দোলন''' ({{lang-ar|سلفية}}) [[সুন্নি ইসলাম|সুন্নি ইসলামের]] অন্তর্ভুক্ত একটি সংস্কারপন্থী আন্দোলন। এটি সালাফিইয়্যাসালাফিবাদ নামেও পরিচিত।
 
সালাফি আন্দোলনকে বিপক্ষ দলগুলো (বিশেষত ব্রেলভী সম্প্রদায়ের লোকেরা) একে [[ওয়াহাবিবাদ]] বলে কটাক্ষ করে। কারণ এই আন্দোলনে ইমাম মুহাম্মাদ বিন আব্দুল ওয়াহহাবের বিশেষ অবদান আছে। সালাফিরা সূফিবাদ ,পীর-মুরিদি ও মাজারকেন্দ্রিক কর্মকান্ডের বিরোধীতা করে। সালাফিবাদে ইসলামের আক্ষরিক, কঠোর ও বিশুদ্ধ চর্চা এবং বিশেষত [[সালাফ]] তথা ইসলামের প্রথম যুগের চর্চার প্রতি গুরুত্বারোপ করা হয়। সালাফিবাদ অন্যতম প্রভাবশালী ও দ্রুত বর্ধনশীল ইসলামি মতাদর্শ।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|লেখক১=Barby Grant|শিরোনাম=Center wins NEH grant to study Salafism|ইউআরএল=http://csrc.asu.edu/news/center-wins-neh-grant-study-salafism|প্রকাশক=Arizona State University|সংগ্রহের-তারিখ=9 June 2014|উক্তি=It also reveals that Salafism was cited in 2010 as the fastest growing Islamic movement on the planet.}}</ref><ref>{{সংবাদ উদ্ধৃতি|লেখক১=Simon Shuster|শিরোনাম=Comment: Underground Islam in Russia|ইউআরএল=http://www.sbs.com.au/news/article/2013/08/03/comment-underground-islam-russia|সংগ্রহের-তারিখ=9 June 2014|কর্ম=Slate|তারিখ=3 Aug 2013|উক্তি=It is the fastest-growing movement within the fastest-growing religion in the world.}}</ref><ref>{{সংবাদ উদ্ধৃতি|লেখক১=CHRISTIAN CARYL|শিরোনাম=The Salafi Moment|ইউআরএল=http://www.foreignpolicy.com/articles/2012/09/12/the_salafi_moment|সংগ্রহের-তারিখ=9 June 2014|কর্ম=FP|তারিখ=September 12, 2012|উক্তি=Though solid numbers are hard to come by, they're routinely described as the fastest-growing movement in modern-day Islam.}}</ref><ref>{{সংবাদ উদ্ধৃতি|শিরোনাম=Uproar in Germany Over Salafi Drive to Hand Out Millions of Qurans|ইউআরএল=http://www.aina.org/news/20120416150547.htm|সংগ্রহের-তারিখ=9 June 2014|কর্ম=AFP|তারিখ=2012-04-16|উক্তি=The service [German domestic intelligence service] said in its most recent annual report dating from 2010 that Salafism was the fastest growing Islamic movement in the world…}}</ref> সালাফিরাঅধিকাংশ সালাফী হাম্বলী মাযহাবের অনুসারী। তাদের অনেকে নির্দিষ্ট কোনোকোন [[মাযহাব|মাযহাবের]] অন্ধএর অনুসরণ (তাকলীদ) করে না। শারয়ী বিষয়ে সালাফিদের সাথে অন্যান্য মতালম্বি মুসলিমদের মতপার্থক্য রয়েছে। তারা [[লাইলাতুল বরাত|শবে বরাত]], [[ঈদে মিলাদুন্নবী]] , শবে মেরাজ, আখেরি চাহার সোমবা, ফাতিহা -ই- ইয়াজদাহাম ইত্যাদিকে ইসলামে যোগ হওয়া নতুন জিনিস (বিদ'আত) হিসেবে বিশ্বাস করে এবং এগুলো উৎযাপন করে না।
 
২০১৫ সালে মিশরে মিশরীয় সরকার সালাফিদের নিষিদ্ধ ঘোষণা করে।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|শিরোনাম=Egypt bans Salafi books from mosques|ইউআরএল=http://muslimvillage.com/2015/06/28/83307/egypt-bans-salafi-books-from-mosques/|ওয়েবসাইট=muslimvillage.com|সংগ্রহের-তারিখ=June 28, 2015}}</ref>
 
==আরও দেখুন==
== সালাফি আন্দোলনের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস ==
 
 
২০ংশ শতাব্দীর শেষের দিকে সালাফি আন্দোলনের জন্ম হয়। যদিও ইসলামের পূর্বযুগের সংস্কারবাদী, আহলুস সুন্নাহ ওয়াল জামা'আতের অনুসারী আলেমদের মধ্যে সালাফি শব্দটির প্রচলন ছিল। এ আন্দোলনের লোকেরা অন্ধ অনুসরণের বিরোধিতা শুরু করেন। তারা কুর'আন, সুন্নাহ, সাহাবী ও তাবেয়ীদের যুগের মৌলিক ইসলামের দিকে আহ্বান জানান। মিশর, আফ্রিকায় এই দলটি আনসার-উস-সুন্নাহ নামে পরিচিত। এর পিছনের কারিগর ছিলেন শাইখ হামিদ আল-ফিকহি, আব্দুর রহমান আল-ওয়াকীল ও আব্দুর রাযযাক হামযাহ। ভারতে সালাফি আন্দোলনের সূচনা করেন প্রখ্যাত আলিম [[মাওলানা সানাউল্লাহ অমৃতসরি]]। সালাফিরা মুসলিমদের আকীদা-বিশ্বাস ও রীতি-রেওয়াজ সঙস্কারকে রাজনৈতিক পরিবর্তনের পূর্বশর্ত মনে করে। বিংশ শতাব্দীর একেবারে শেষার্ধে [[নাসির উদ্দিন আল-আলবানি]] সিরিয়ায় ইসলামি পুনর্জাগরণকে উজ্জীবিত করেন। একই কাজ সৌদি আরবে করেছিলেন [[আব্দুল আযীয বিন বায]] ও [[সালিহ আল উসাইমীন]]। ইয়েমেনে এই কাজ করেন আলবানীর ছাত্র মুকবিল বিন হাদী।<ref>{{বই উদ্ধৃতি|শিরোনাম=সভ্যতার সংকট|শেষাংশ=ড আবু আমীনাহ|প্রথমাংশ=বিলাল ফিলিপস|বছর=|প্রকাশক=সিয়ান পাবলিকেশন|অবস্থান=|পাতাসমূহ=৭২-৭৩|আইএসবিএন=|ইউআরএল-অবস্থা=কার্যকর}}</ref>
 
== সালাফিদের রাজনৈতিক দর্শন ==
সালাফিরা রাজনৈতিক ক্ষেত্রে যে দৃষ্টিভঙ্গি পোষণ করে-
 
১) ইসলামবিরোধী আদেশ না দিলে ও প্রকাশ্য নামাজের অনুমতি দিলে শাসক মুসলিম হোক বা অমুসলিম, উক্ত শাসকের আনুগত্য করা স্থানীয় মুসলিমদের জন্য ওয়াজিব ও মুসলিমদের জন্য উক্ত শাসকের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করা হারাম।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://islamqa.info/en/answers/128453/is-it-obligatory-to-obey-a-ruler-who-does-not-rule-according-to-the-book-of-allaah-and-the-sunnah-of-his-messenger-blessings-and-peace-of-allaah-be-upon-him|শিরোনাম=Is it obligatory to obey a ruler who does not rule according to the Book of Allaah and the Sunnah of His Messenger (blessings and peace of Allaah be upon him)?|শেষাংশ=|প্রথমাংশ=|তারিখ=|ওয়েবসাইট=|আর্কাইভের-ইউআরএল=|আর্কাইভের-তারিখ=|ইউআরএল-অবস্থা=কার্যকর|সংগ্রহের-তারিখ=}}</ref><ref>খোন্দকার আব্দুল্লাহ জাহাঙ্গীর, ইসলামের নামে জঙ্গিবাদ, ২০০৭, আস সুন্নাহ পাবলিকেশন্স</ref>
 
২) মুসলিমদের আকীদা-বিশ্বাস সংস্কার, ধর্মের মৌলিক বিশুদ্ধ আকীদা প্রচার-প্রসার, কুসংস্কার-শিরক-বিদ'আত বর্জন রাজনৈতিক পরিবর্তনের পূর্বশর্ত।
 
৩) মুসলিম সরকার ও শাসকের অনুমতি ও নেতৃত্ব জিহাদের পূর্বশর্ত। সরকারের অনুমতি ব্যতীত জিহাদ করা বিশৃঙ্খলার নামান্তর।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://islamqa.info/en/answers/20214/ruling-on-jihad-and-kinds-of-jihad|শিরোনাম=Ruling on jihad and kinds of jihad|শেষাংশ=|প্রথমাংশ=|তারিখ=|ওয়েবসাইট=|আর্কাইভের-ইউআরএল=|আর্কাইভের-তারিখ=|ইউআরএল-অবস্থা=কার্যকর|সংগ্রহের-তারিখ=}}</ref>
 
৪) বর্তমান বিশ্বে প্রচলিত জঙ্গি-সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড জিহাদ নয়।
 
৫) জিহাদের আরও দুটি পূর্বশর্ত হলো - সামর্থ্য ও বিজয়ের সম্ভাবনা।
 
== সালাফি রাষ্ট্র ==
সালাফিদের প্রধান কেন্দ্র হলো সৌদি আরব। মক্কা-মদীনার বিশ্ববিদ্যালয়গুলো সালাফিদের অন্যতম কেন্দ্র। সৌদি আরব ছাড়াও কাতার, কুয়েত, আরব আমিরাত ও মধ্যপ্রাচ্যের অধিকাংশ রাষ্ট্র সালাফি প্রধান। মিশরে সালাফিরা নিষিদ্ধ। বাংলাদেশে মদীনা ,মক্কা ও রিয়াদের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো থেকে স্নাতক করা আলিমদের মাধ্যমে সালাফি আন্দোলনের ব্যাপক বিস্তার ঘটছে। কুস্ংস্কার-অন্ধবিশ্বাস, কুপ্রথা ও ধর্মীয় গোঁড়ামির বিরোধিতা করা ও আধুনিকমনা হওয়ার কারণে ইসলাম পালনকারী তরুণ সমাজের বিশাল অংশ সালাফিবাদের প্রতি ঝুঁকছে। তাছাড়া, যারা নতুনভাবে ইসলাম চর্চা করছে, তাদেরও বিশাল অংশ সালাফি হয়ে উঠছে।
<br />
 
== সালাফি আলিম ==
 
* আহমাদ ইবনু তাইমিয়া
* মুহাম্মাদ বিন আব্দুল ওয়াহহাব আত-তামিমি
* সানাউল্লাহ অমৃতসরি
* সফিউর রহমান মুবারকপুরী
* আবদুল আল-আজিজ ইবনে বায
* মুহাম্মদ ইবনে আল-উসাযইমীন
* আবদুর রহিম গ্রীন
* বিলাল ফিলিপস
* মোহাম্মদ সালাহ
* আসিম আল হাকিম
* মুহাম্মদ বিন সালিহ আল মুনাজ্জিদ
* মুহাম্মদ নাসিরুদ্দীন আল-আলবানী
* শায়খ আব্দুল মুহসিন আব্বাদ আল বদর
* রবি বিন হাদী আল-মাদখালী
* সালিহ ইবনে ফাওযান আল ফাওযান
* আবদুল আজিজ আল ই শায়খ
* সালিহ আল লুহাইদান
* সালিহ আস সুহায়মি
* আবদুল আজিজ আল রাজিহ
* শায়খ মুহাম্মদ বিন হাদী
* শায়খ ফুয়াদ আল আমরী
* শায়খ উবায়দ আল জাবরী
* শায়খ আবদুল রাজ্জাক আল বদর
* শায়খ ফালাহ ইসমাইল
* শায়খ আবদুল ওয়াহহাব আল বান্না
* আহমদ বিন উমর বজমুল
* শায়খ আব্দুল্লাহ ইবনে ‘আবদুর-রহীম আল বুখারী
* মুহাম্মদ ইবনে রমযান আল-হাজাজরী
* শায়খ মুহাম্মদ ইবনে আদম আল-ইথিওবি
* শায়খ ‘আলী ইবনে নাছির আল-ফকিহীহ
* মুহাম্মদ ইবনে ‘আবদুল-ওহাব আল-‘আকিল
* মুহাম্মদ ইবনে ‘উমর বজমুল
* খালিদ আদ-দাফিরি
* আবু ‘উসমান মুহাম্মাদ আল-আনজারি
* হাসান ইবনে ‘আবদুল-ওহাব মারজুক আল-বান্নাহ
* ‘আবদুল্লাহাহ্-নাজমি
* শায়খ ‘আবদুস-সালাম আস-সিহাইমি
* ‘আবদুল-মুহসিন আল-উবায়কান
* শায়খ মুহাম্মদ ইবনে সা’দ রাসলান
* মুহাম্মদ বিন আবদুল ওয়াহহাব আল-ওয়াসাবি
* আবু ‘উমর উসামাহ আল-উতাইবী
* মুহাম্মদ ‘আলী ফেরকৌস
* শায়খ সুলাইমান আর-রুহাইলী
* আলী জাবের
* [[আবদুর রহমান আল-সুদাইস|আব্দুর রহমান আস-সুদাইস]]
* [[সৌদ আল-শুরাইম|সৌদ আশ-শুরাইম]]
* বান্দার বিন আব্দুল আযীয আল-বালীলা
* ইয়াসির আল দোসারি
* মাহির আল-মুয়াক্বালি
* আব্দুল্লাহ আওয়াদ জুহানী
* সালেহ বিন হুমাইদ
* ফয়সাল গাজ্জাওয়ী
* সালাহ বা উসমান
* উসামা খায়্যাত
* সালেহ আল তালিব
* খালিদ গামিদি
* আলী হুজাইফি
* আহমাদ তালিব হামিদ
* সালাহ আল বুদাইর
* খালিদ মুহান্না
* আহমাদ বিন আলী হুজাইফি
* আব্দুল বারি সুবাইসি
* হুসাইন আলে শায়খ
* মুহাম্মাদ আইয়ুব
* আব্দুল মুহসিন আল কাসিম
* আব্দুল্লাহ ইয়োলচু
 
<br />
 
=== ভারতের সালাফি আলিম ===
*[[শাইখ মতিউর রহমান মাদানী]]
* শাইখসানাউল্লাহ মাদানী
* শাইখবদরুদ্দোজা নাদভি
* ড.জাকির নায়েক
* আহমেদ দিদাত
* ব্রাদার রাহুল হোসেন (রুহুল আমীন)
 
===পাকিস্তানের সালাফি আলিম===
* [[ইসরার আহমেদ]]
 
=== বাংলাদেশের সালাফি আলিম ===
 
* আব্দুল্লাহিল কাফি আল কুরাইশি
* প্রফেসর ডা.আসাদুল্লাহ আল-গালিব।
* প্রফেসর ড.আবু বকর মুহাম্মাদ জাকারিয়া।
* শাইখ ড. মঞ্জুরে ইলাহী।
* আব্দুর রাযযাক বিন ইউসুফ
* আব্দুল্লাহ বিন আব্দুর রাযযাক
* আমানুল্লাহ বিন ইসমাইল মাদানী
* আব্দুল আলিম মাদানী
* ইমাম হোসেন
* সাইফুদ্দিন বেলাল মাদানী
* ড.মুজাফফর বিন মহসিন
* মুকাররম বিন মহসিন
* হারুন হোসাইন
* শহিদুল্লাহ খান মাদানী
* আব্দুল হামিদ ফাইযি
* আব্দুল্লাহ আল কাফি
* মোখলেসুর রহমান
* আব্দুন নূর
* হাশিম মাদানী
* মোহাম্মদ আলী
* আকরামুজ্জামান বিন আব্দুস সালাম
* আখতার মাদানী
* আব্দুর রাকিব বুখারী
* মুসলেহ উদ্দিন
* শায়খ মুখলেস বিন আরশাদ মাদানী
* শায়খ জাহাঙ্গীর আলম
* আব্দুর রহিম বাগেরহাটী
* আবদুল্লাহ শাহেদ আল-মাদানী
* আব্দুল্লাহ হিল হাদি
* শাইখ প্রফেসর ড.মোহাম্মদ সাইফুল্লাহ
* প্রফেসর মোখতার আহম্মেদ
* মুফতি কাজী ইব্রাহিম
* শাইখ ড.মোসলেহ উদ্দিন
* শাইখ আবদুস ছবুর চৌধুরী
* শাইখ আহম্মাদুল্লাহ ত্রিশালি
* শাইখ ড.মুফতি ইমাম হোসেন
* এডভোকেট মুহাম্মদ জাকারিয়া
* শাইখ আমানুল্লাহ মাদানী
* শাইখ আব্দুর রশিদ সালাফী
* শাইখ ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক চৌধুরী
<br/>
 
== আরও দেখুন ==
{{প্রবেশদ্বার|ইসলাম}}
* [[আহলে হাদিস]]