নাইটস ক্রিকেট দল: সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

চ্যাম্পিয়ন্স লীগ টি২০ - অনুচ্ছেদ সৃষ্টি!
(তথ্যছক অন্তর্ভূক্তিকরণ!)
(চ্যাম্পিয়ন্স লীগ টি২০ - অনুচ্ছেদ সৃষ্টি!)
{{কাজ চলছে}}
{{Infobox cricket team
|name = ভিকেবি নাইটস
 
'''ভিকেবি নাইটস''' দক্ষিণ আফ্রিকার বিশেষ প্রাধিকারপ্রাপ্ত [[ক্রিকেট]] দল। [[ফ্রি স্টেট ক্রিকেট দল|ফ্রি স্টেট]] ও [[নর্দার্ন কেপ ক্রিকেট দল|গ্রিকুয়াল্যান্ড ওয়েস্টের]] [[প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট]] অঞ্চলকে একীভূত করে এ দলটি গঠিত হয়েছে। পূর্বে দলটি '''ডায়মন্ড ঈগলস''' নামে প্রতিযোগিতায় অবতীর্ণ হয়েছিল। ব্লুমফন্তেইনের [[OUTsurance Oval|ম্যানগং ওভাল]] ও কিম্বার্লীর ডায়মন্ড ওভালে অতিথি দলগুলোর সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে। [[সানফয়েল সিরিজ]], [[Momentum 1 Day Cup|মোমেন্টাম ওয়ান ডে কাপ]] ও [[Ram Slam T20 Challenge|র‍্যাম স্ল্যাম টি২০ চ্যালেঞ্জ]] [[প্রতিযোগিতা|প্রতিযোগিতায়]] দলটি অংশ নেয়।
 
== পোষাক সরবরাহ ==
মোমেন্টাম ওয়ান ডে কাপ প্রতিযোগিতায় নাইটস দল গাঢ় নীল শার্ট ও সোনালী রঙের ট্রাউজার পরিহিত অবস্থায় খেলে। র‍্যাম স্ল্যাম টি২০ চ্যালেঞ্জে গাঢ় নীল শার্টের সাথে সোনালী রঙের ছটা ও সোনালী ট্রাউজারের গাঢ় নীলের ছটা পরিহিত অবস্থায় খেলতে নামে। বর্তমানে [[TYKA Sports|টিকে স্পোর্ট]] তাদের পোশাক সরবরাহের দায়িত্ব পালন করছে।
 
== চ্যাম্পিয়ন্স লীগ টি২০ ==
২০০৯ সালের স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক প্রো২০ প্রতিযোগিতায় ডায়মন্ড ঈগলস দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে। ফলশ্রুতিতে, ২০০৯ সালের চ্যাম্পিয়ন্স লীগ টুয়েন্টি২০ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের যোগ্যতা অর্জন করে। বি গ্রুপে নিউ সাউথ ওয়েলস ব্লুজ ও সাসেক্স শার্কসের বিপক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অবতীর্ণ হয়। প্রথম খেলায় [[নিউ সাউথ ওয়েলস ক্রিকেট দল|নিউ সাউথ ওয়েলসের]] বিপক্ষে ১০০ রান তুলতে পারেনি ও ৯১/৯ রান তুলে। তবে, দ্বিতীয় খেলায় [[সাসেক্স কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাব|সাসেক্স শার্কসের]] সাথে টাই করে। সাসেক্সের ১১৯/৭-এর বিপরীতে ঈগলস ১১৯/৪ তুলে। সুপার ওভারে ঈগলস জয় পায়। [[সুপার ওভার|সুপার ওভারে]] ঈগলস ৯/১ তুলে। অন্যদিকে, সাসেক্স কর্নেলিয়াস ডি ভিলিয়ার্সের প্রথম দুই বলে কুপোকাত হয়। রাইলি রুশো ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার লাভ করে।
 
পরবর্তী লিগ এ রাউন্ডে নিউ সাউথ ওয়েলস ব্লুজ, সমারসেট স্যাবার্স এবং ত্রিনিদাদ ও টোবাগোর মুখোমুখি হয়। ব্লুজের কাছে আবারও পরাজিত হয় ও সমারসেট স্যাবার্সের বিপক্ষে জয়ী হয়। অবশ্যই জয়ী হবার স্বপ্ন নিয়ে ত্রিনিদাদের বিপক্ষে পরাজিত হয়। ঐ খেলায় আবারও সিজে ডি ভিলিয়ার্স বেশ ভালোমানের ক্রীড়াশৈলী প্রদর্শন করেন। সেমি-ফাইনালে প্রবেশ করতে না পারলেও ১২ দলের ঐ প্রতিযোগিতায় তারা সপ্তম স্থান অধিকার করে।
 
== সম্মাননা ==
৭৭,৩৫৫টি

সম্পাদনা