"নেপোলিয়ন বোনাপার্ট" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
 
==ধর্ম==
নেপলিয়ান ১৭৭১ সালের ২১শে জুলা আজাকিকোতে ব্যাপ্টাইজড হন; তিনি একজন ধর্মপ্রাণ ক্যাথলিক হিসেবে বেড়ে ওঠেন কিন্তু যথেষ্ট ধর্মবিশ্বাস তার ছিলনা।<ref name="napoleon.org">{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.napoleon.org/fr/salle_lecture/articles/files/Empire_Saint-Siege_Napoleon_religion.asp |শিরোনাম=L'Empire et le Saint-Siège |প্রকাশক=Napoleon.org |সংগ্রহের-তারিখ=15 June 2011}}</ref> পরিণত বয়সে, তিনি একজন [[শ্বরবাদ|শ্বরবাদী]] ছিলেন এবং [[যীশু]]র তুলনায় [[মুহাম্মাদ|মুহাম্মাদের]] প্রতি অধিক আগ্রহ দেখাতেন।এবং এটাই সঠিক।সঠিক,,বরং এটাই মুলত হওয়া উচিত, । <ref>{{বই উদ্ধৃতি|লেখক=Stephen Coote|শিরোনাম=Napoleon and the Hundred Days|ইউআরএল=https://books.google.com/books?id=OP4lZemOr-IC&pg=PA28|বছর=2005|প্রকাশক=Perseus|পাতা=28}}</ref> নেপলিয়ানের উপাস্য ছিল অদৃশ্য ও অধরা ঈশ্বর। তবে,সামাজিক ও রাজনৈতিক কার্যক্ষেত্রে তিনি সংঘবদ্ধ ধর্মীয় শক্তির প্রতি অত্যন্ত অনুরাগী ছিলেন এবং নিজ লক্ষ হাসিলের জন্য তিনি তা প্রয়োগের জন্য যথেষ্ট মনযোগী ছিলেন। নিজের উপর ক্যাথলিক রীতিনীতি ও চমৎকারিত্বের প্রভাব উল্লেখ করেন তিনি।<ref name="napoleon.org" />
 
নেপলিয়ান জোসেফিন ডি বেহারনেসকে ধর্মীয় অনুষ্ঠান ছাড়াই আইনি প্রক্রিয়ায় বিয়ে করেন। মিশর অভিযানের সময়, নেপলিয়ান একজন বিপ্লবী সেনাপ্রধানের জন্য যথেষ্ট ধর্মীয় উদারতা প্রকাশ করেন, ওলামাদের সঙ্গে আলোচনা করেন এবং ধর্মীয় উদযাপনের নির্দেশ দেন, কিন্তু পোপ ষষ্ঠ পায়াসের মৃত্যুর পর নেপলিয়ানের প্রধান সহকারী এই আচরণকে রাজনৈতিক কৌশল বলে মন্তব্য করেন: "আমরা তাদের ধর্মের প্রতি মিছে আগ্রহ দেখানোর ভান করার মাধ্যমে মিশরীয়দের বোকা বানাচ্ছি। বোনপোর্ট এবং আমি কেহই এই ধর্ম্যা ততটা বিশ্বাস করি না যতটা পায়াস দ্য ডিফাংটের ধর্মে করি।"।{{#tag:ref|"Nous trompons les Égyptiens par notre simili attachement à leur religion, à laquelle Bonaparte et nous ne croyons pas plus qu'à celle de Pie le défunt."<ref>[[Jacques Bainville]], Napoleon I, p.94</ref>|group=note}} নিজ স্মৃতিগাঁথায়, বোনপড়তের সচিব [[Louis Antoine Fauvelet de Bourrienne|বোরিন]] নেপলিয়ানের ধর্মবিশ্বাস সম্পর্কে একই মন্তব্য লেখেন।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://chnm.gmu.edu/revolution/d/612/|শিরোনাম=Bonaparte and Islam.|প্রকাশক=Center for History and New Media at [[George Mason University]]|সংগ্রহের-তারিখ=12 July 2012|আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20110628204832/http://chnm.gmu.edu/revolution/d/612/|আর্কাইভের-তারিখ=২৮ জুন ২০১১|অকার্যকর-ইউআরএল=হ্যাঁ}}</ref> তার ধর্মীয় সুযোগগ্রহণের কৌশল তার এই বিখ্যাত উক্তিতে ফুটে উঠেছে: "নিজেকে ক্যাথলিক বানানোর মাধ্যমে আমি ব্রিটানি ও ভ্যান্ডিতে শান্তি এনেছি, নিজেকে ইতালীয় বানানোর মাধ্যমে আমি ইতালিতে সবার মন জয় করেছি। নিজেকে মুসলিম বানিয়ে আমি মিশরে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছি। আমি যদি ইহুদিদের শাসক হতাম, তবে আমি সলোমনের মন্দিরকে পুনঃপ্রতিষ্ঠিত করতাম।"<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি |ইউআরএল=http://www.napoleon-series.org/ins/weider/c_peace.html |শিরোনাম=Napoleon: Man of Peace |প্রকাশক=Napoleon-series.org |তারিখ=17 November 1999 |সংগ্রহের-তারিখ=4 November 2011 |আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20120111153552/http://www.napoleon-series.org/ins/weider/c_peace.html |আর্কাইভের-তারিখ=১১ জানুয়ারি ২০১২ |অকার্যকর-ইউআরএল=হ্যাঁ }}</ref> তবে, জুয়ান কোরের মতে, "সে তুলনায়, নবী মুহাম্মদের জন্য বোনপোর্টের প্রশংসা ছিল খাঁটি।"<ref>[[Juan Cole]], ''Napoleon's Egypt: Invading the Middle East'', Palgrave Macmillan, 2007, [https://books.google.com/books?id=8rzGxWUQiKkC&pg=PA129 p.29]</ref> এবং সেন্ট হেলেনায় তার বন্দিদশায় তিনি ভলতেয়ারের সমালোচক নাটকর্ম [[Mahomet (play)|''মাহোমেট'']]-এ নবী মুহাম্মাদের নেতিবাচক চিত্রায়নের কঠোর সমালোচনা করেন।<ref>''Memoirs of the Life, Exile, and Conversations of the Emperor Napoleon'', volume 2, Emmanuel-Auguste-Dieudonné comte de Las Cases, Redfield, 1855, [https://books.google.com/books?id=5XUuAAAAMAAJ&pg=PA94 p.94]</ref>
বেনামী ব্যবহারকারী