"হামিদুজ্জামান খান" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

 
===ভারত ও যুক্তরাষ্ট্রে শিক্ষালাভ===
হামিদুজ্জামান খান ১৯৭৩ সালে উচ্চশিক্ষার জন্য ভারত সরকারের বৃত্তি অর্জন করেন। ১৯৭৪ থেকে ১৯৭৬ সালে উপমহাদেশের প্রখ্যাত [[বারোদা|বারোদার]] [[মহারাজা সাহজিরাও বিশ্ববিদ্যালয়|মহারাজা সাহজিরাও বিশ্ববিদ্যালয়ে]] শিক্ষা লাভ করেন। বারোদায় হামিদহামিদুজ্জামান প্রখ্যাত ভারতীয় শিল্পী ও ভাস্কর রাঘব কানেরিয়া, মাহেন্দ্র পান্ডিয়া, শঙ্ক চৌধুরী, কে. জি. সুব্রামানিয়ানের অধীনে শিক্ষালাভ করেন।<ref name=StarMag>{{Cite news |date=2010-10-10 |title=Symbolising Freedom |url=https://www.thedailystar.net/magazine/2010/12/02/art.htm |work=The Daily Star|access-date=2020-04-08}}</ref> বারোদায় পড়াকালীন [[মুম্বই|বোম্বের]] এক প্রদর্শনীতে তার ভাস্কর্য প্রথম পুরস্কার লাভ করে এবং প্রখ্যাত চিত্রশিল্পী [[মকবুল ফিদা হুসেন|মকবুল ফিদা হুসেনকে]] আকৃষ্ট করে।<ref name=DailySun/> ১৯৭৬ সালে তিনি বারোদা মহারাজা সাহজিরাও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ভাস্কর্য বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন।<ref name=StarMag/>
 
১৯৮২ থেকে ১৯৮৩ সালে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কের স্কাল্পচার সেন্টার স্কুল থেকে মেটাল কাস্টিং বিষয়ে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন।<ref name="বহুমাত্রিক শিল্পী"/> এসময় নিউ ইয়র্ক সিটিতে হেনরি মুরের একটি ভাস্কর্য প্রদর্শনী দেখে হামিদ প্রভাবিত হন।<ref name=NewAge1>{{Cite news |date=2019-04-26 |title=Art through the Years |url=https://www.newagebd.net/print/article/70803 |work=New Age|access-date=2020-04-11}}</ref> ১৯৮২ সালে [[বিশ্বব্যাংক]] হামিদুজ্জামানের তিনটি চিত্রকর্ম ক্রয় করে এবং [[ওয়াশিংটন ডি.সি.|ওয়াশিংটন ডি.সি.-তে]] বিশ্বব্যাংকের সদর দপ্তরে স্থাপন করে। নিউ ইয়র্কে অবস্থানকালে তিনি যেসব ভাস্কর্য নির্মাণ করেছিলেন, সেগুলো নিয়ে ১৯৮৩ সালে ওয়াশিংটন, ডি.সি.-তে [[বাংলাদেশের দূতাবাস, ওয়াশিংটন, ডি.সি.|বাংলাদেশ দূতাবাসে]] ভাস্কর্য প্রদর্শনী হয়।<ref name=StarMag/>