"হামিদুজ্জামান খান" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

(→‎শীর্ষ: বানান সংশোধন)
 
==প্রাথমিক ও শিক্ষা জীবন==
হামিদুজ্জামান ১৯৪৬ সালে তদানীন্তন [[ব্রিটিশ ভারত]] অধীনস্ত [[বেঙ্গল প্রেসিডেন্সি]]র (বর্তমান [[বাংলাদেশ]]) বৃহত্তর ময়মনসিংহের [[কিশোরগঞ্জ জেলা]]য় সহশ্রাম গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা সায়েমউদ্দিন খান ছিলেন একজন হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক এবং মাতা রাবেয়া খাতুন ছিলেন একজন গৃহিণী। হামিদহামিদুজ্জামান তারতাঁর তিন ভাইয়ের মধ্যে সর্বকনিষ্ঠ। প্রখ্যাত ভারতীয় শিল্পী হেমেন্দ্রনাথ মজুমদারের বাড়ি ছিল সহশ্রামের পার্শ্ববর্তী গ্রাম গচিহাটায়। হামিদহামিদুজ্জামান প্রায়ই সেইবাড়িতেসেখানে যেতেন এবং হেমেন্দ্রনাথের চিত্রকর্ম দেখে অনুপ্রাণিত হয়েছিলেন। হামিদহামিদুজ্জামান প্রাথমিক শিক্ষা লাভ করেন তার নিজ গ্রামের সহশ্রাম প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে এবং পরে বনগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৯৬২ সালে মেট্রিকম্যাট্রিক পাস করেন। বনগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয়ে [[নীরদচন্দ্র চৌধুরী]]র ভাইয়ের পুত্র তার সহপাঠী ছিলেন। ছেলেবেলা থেকেই তিনি স্কেচ করতেন। এসময় তিনি তার দাদার একটি ছবি এঁকেছিলেন যা তার দাদার মুখের আকৃতির সাথে মিলে যায়।<ref name="বহুমাত্রিক শিল্পী">{{সংবাদ উদ্ধৃতি |ইউআরএল=http://www.bd-pratidin.com/various/2015/07/31/96893 |শিরোনাম=বহুমাত্রিক শিল্পী হামিদুজ্জামান খান |কর্ম=[[বাংলাদেশ প্রতিদিন]] |তারিখ=৩১ জুলাই ২০১৫ |সংগ্রহের-তারিখ=২১ মে ২০১৭}}</ref>
 
মাধ্যমিক পাস করার পর তিনি ভৈরব কলেজে ভর্তি হন। কিন্তু এই ধরনের পড়াশোনা তার ভালো লাগত না। তাই তিনি পড়াশুনা ছেড়ে সিলেট চলে যান। পরে তার এলাকার পোস্টমাস্টার তারহামিদুজ্জামানের বাবাকে তারছেলের আর্ট কলেজে পড়ার আগ্রহের কথা জানান। তার বাবা তাকে নিয়ে যান [[জয়নুল আবেদীন|শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদীনের]] বাসায়। জয়নুল আবেদীন তাকে আর্ট কলেজে ভর্তি করতে সাহায্য করেন। আর্ট কলেজে হামিদুজ্জামান প্রখ্যাত শিল্পী জয়নুল আবেদিন, [[সফিউদ্দিন আহমেদ]], [[আমিনুল ইসলাম (চিত্রশিল্পী)|আমিনুল ইসলাম]] ও [[মুস্তফা মনোয়ার|মুস্তফা মনোয়ারের]] সান্নিধ্য লাভ করেন। জয়নুল আবেদীন হামিদেরহামিদুজ্জামানের জলরঙ-এর কাজের প্রশংসা করতেন এবং তাকে উৎসাহিত করেছিলেন জলরঙে অনুশীলনের জন্যে। তৃতীয় বর্ষের ছাত্র থাকাকালীন বার্মার (বর্তমান [[মায়ানমার]]) রাষ্ট্রপতি [[নে উইন]] আর্ট কলেজ পরিদর্শনে এলে জয়নুল আবেদীন তাঁকে হামিদুজ্জামানের অঙ্কিত একটি শিল্পকর্ম উপহার হিসেবে প্রদান করেন। ১৯৬৭ সালে তিনি ঢাকা আর্ট কলেজ (বর্তমান [[চারুকলা অনুষদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়]]) থেকে চারুকলায় স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন। এসময় বিশিষ্ঠবিশিষ্ট শিল্পী [[আবদুর রাজ্জাক (চিত্রশিল্পী)|আবদুর রাজ্জাকের]] নেতৃত্বে আর্ট কলেজে ভাস্কর্য বিভাগ প্রতিষ্ঠিত হয়।<ref name=DailySun/>
 
===দুর্ঘটনা এবং ইউরোপ ভ্রমণ===