"বাংলা ভাষা" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
(পূর্বাবস্থায় ফেরত নেওয়া হোক)
ট্যাগ: পুনর্বহাল
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
'''বাংলা ভাষা''' ('''বাঙলা''', '''বাঙ্গলা''', তথা '''বাঙ্গালা''' নামগুলোতেও পরিচিত) একটি [[ইন্দো-আর্য ভাষাসমূহ|ইন্দো-আর্য]] ভাষা, যা [[দক্ষিণ এশিয়া]]র [[বাঙালি]] জাতির প্রধান কথ্য ও লেখ্য ভাষা। [[মাতৃভাষীর সংখ্যা অনুসারে ভাষাসমূহের তালিকা|মাতৃভাষীর সংখ্যায়]] বাংলা [[ইন্দো-ইউরোপীয় ভাষাসমূহ|ইন্দো-ইউরোপীয় ভাষা পরিবারে]]র চতুর্থ ও বিশ্বের ষষ্ঠ বৃহত্তম ভাষা।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://www.ethnologue.com/statistics/size|শিরোনাম=Summary by language size|ওয়েবসাইট=Ethnologue|ভাষা=en|সংগ্রহের-তারিখ=2019-02-10}}</ref> [[মোট ব্যবহারকারীর সংখ্যা অনুসারে ভাষাসমূহের তালিকা|মোট ব্যবহারকারীর সংখ্যা]] অনুসারে বাংলা বিশ্বের সপ্তম বৃহত্তম ভাষা। বাংলা সার্বভৌম ভাষাভিত্তিক [[জাতিরাষ্ট্র]] [[বাংলাদেশ|বাংলাদেশের]] একমাত্র রাষ্ট্রভাষা তথা সরকারি ভাষা<ref name="সংবিধান">{{বই উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://bdlaws.minlaw.gov.bd/bangla_all_sections.php?id=957|শিরোনাম=গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধান|শেষাংশ=|প্রথমাংশ=|অধ্যায়ের-ইউআরএল=http://bdlaws.minlaw.gov.bd/bangla_sections_detail.php?id=957&sections_id=29340|বছর=|কর্ম=[[আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় (বাংলাদেশ)|আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়]]|প্রকাশক=বাংলাদেশ সরকার|অবস্থান=|পাতাসমূহ=|অধ্যায়=৩৷ রাষ্ট্রভাষা|আইএসবিএন=|সংগ্রহের-তারিখ=২০১৯-০৪-২৬}}</ref> এবং [[ভারত|ভারতের]] [[পশ্চিমবঙ্গ]], [[ত্রিপুরা]], [[আসাম|আসামের]] [[বরাক উপত্যকা]]র সরকারি ভাষা। বঙ্গোপসাগরে অবস্থিত [[আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ|আন্দামান দ্বীপপুঞ্জে]]র প্রধান কথ্য ভাষা বাংলা। এছাড়া ভারতের [[ঝাড়খণ্ড]], [[বিহার]], [[মেঘালয়]], [[মিজোরাম]], [[ওড়িশা|উড়িষ্যা]] রাজ্যগুলোতে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে বাংলাভাষী জনগণ রয়েছে। ভারতে [[হিন্দি ভাষা|হিন্দির]] পরেই সর্বাধিক প্রচলিত ভাষা বাংলা।<ref name="second most spoken in India">{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://censusindia.gov.in/Census_Data_2001/Census_Data_Online/Language/Statement1.htm|শিরোনাম=Languages of India|আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20131029190612/http://censusindia.gov.in/Census_Data_2001/Census_Data_Online/Language/Statement1.htm|আর্কাইভের-তারিখ=২০১৩-১০-২৯|অকার্যকর-ইউআরএল=হ্যাঁ|সংগ্রহের-তারিখ=2009-09-02}}</ref><ref name="lang1991">{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.censusindia.gov.in/|শিরোনাম=Languages in Descending Order of Strength&nbsp;— India, States and Union Territories – 1991 Census|বছর=|কর্ম=Census Data Online|প্রকাশক=Office of the Registrar General, India|পাতা=1|আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20070614053639/http://www.censusindia.net/cendat/language/lang_table1.PDF|আর্কাইভের-তারিখ=২০০৭-০৬-১৪|অকার্যকর-ইউআরএল=না|সংগ্রহের-তারিখ=2006-11-19|month=}}</ref> এছাড়াও [[মধ্যপ্রাচ্য|মধ্য প্রাচ্য]], [[উত্তর আমেরিকা|আমেরিকা]] ও ইউরোপে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে বাংলাভাষী অভিবাসী রয়েছে।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://www.britannica.com/topic/Bengali-language|শিরোনাম=Bengali language|ওয়েবসাইট=Encyclopedia Britannica|ভাষা=en|সংগ্রহের-তারিখ=2019-05-23}}</ref> সারা বিশ্বে সব মিলিয়ে ২৬ কোটির অধিক লোক দৈনন্দিন জীবনে বাংলা ব্যবহার করে।<ref name="ethnologue">{{সংবাদ উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://www.ethnologue.com/language/ben|শিরোনাম=Bengali|শেষাংশ=|প্রথমাংশ=|তারিখ=|কর্ম=Ethnologue|সংগ্রহের-তারিখ=2018-02-21|বছর=২০১৮|সংস্করণ=২১তম|ভাষা=en|অনূদিত-শিরোনাম=বাংলা}}</ref> বাংলাদেশের [[আমার সোনার বাংলা|জাতীয় সঙ্গীত]] এবং ভারতের [[জনগণমন-অধিনায়ক জয় হে|জাতীয় সঙ্গীত]] ও [[বন্দে মাতরম্‌|স্তোত্র]] বাংলাতে রচিত।
 
ইউনেস্কো বাংলা ভাষাকে পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি মিষ্টি ভাষা হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে। বাংলা ভাষা বিকাশের ইতিহাস ১৩০০ বছর পুরনো। [[চর্যাপদ]] এ ভাষার আদি নিদর্শন। অষ্টম শতক থেকে বাংলায় রচিত সাহিত্যের বিশাল ভাণ্ডারের মধ্য দিয়ে অষ্টাদশ শতকের শেষে এসে বাংলা ভাষা তার বর্তমান রূপ পরিগ্রহণ করে। বাংলা ভাষার লিপি হল [[বাংলা লিপি]]। [[বাংলাদেশ]] ও [[পশ্চিমবঙ্গ|পশ্চিমবঙ্গে]] প্রচলিত বাংলা ভাষার মধ্যে শব্দগত ও উচ্চারণগত সামান্য পার্থক্য রয়েছে। [[বাংলার নবজাগরণ|বাংলার নবজাগরণে]] ও [[বাংলার সংস্কৃতি|বাংলার সাংস্কৃতিক বিবিধতাকে]] এক সূত্রে গ্রন্থনে এবং [[বাঙালি জাতীয়তাবাদ|বাঙালি জাতীয়তাবাদের]] বিকাশে তথা বাংলাদেশ গঠনে বাংলা ভাষা ও [[বাংলা সাহিত্য|সাহিত্য]] সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে।
 
১৯৪৭ থেকে ১৯৫২ খ্রিষ্টাব্দে [[পূর্ব বাংলা]]য় সংগঠিত [[বাংলা ভাষা আন্দোলন]] এই ভাষার সাথে বাঙালি অস্তিত্বের যোগসূত্র স্থাপন করেছে। ১৯৫২ খ্রিষ্টাব্দের ২১শে ফেব্রুয়ারি, [[ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়|ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে]] প্রতিবাদী ছাত্র ও আন্দোলনকারীরা সংখ্যাগরিষ্ঠের মাতৃভাষা বাংলাকে রাষ্ট্রভাষাকরণের দাবীতে নিজেদের জীবন উৎসর্গ করেন। ১৯৮৭ সালের [[বাংলা ভাষা প্রচলন আইন, ১৯৮৭|বাংলা ভাষা প্রচলন আইন]] বাংলাদেশের সকল রাষ্ট্রীয় কাজে বাংলার ব্যবহার বাধ্যতামূলক করেছে।<ref name=":0">{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://bdlaws.minlaw.gov.bd/bangla_pdf_part.php?id=705|শিরোনাম=বাংলা ভাষা প্রচলন আইন, ১৯৮৭|শেষাংশ=|প্রথমাংশ=|তারিখ=|ওয়েবসাইট=[[আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় (বাংলাদেশ)|আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়]]|আর্কাইভের-ইউআরএল=|আর্কাইভের-তারিখ=|সংগ্রহের-তারিখ=2019-04-22}}</ref> ১৯৫২'র ভাষা শহিদদের সংগ্রামের স্বীকৃতি স্বরূপ ১৯৯৯ খ্রিষ্টাব্দে [[ইউনেস্কো]] ২১শে ফেব্রুয়ারি দিনটিকে [[আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস]] হিসেবে ঘোষণা করে।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://unesdoc.unesco.org/images/0011/001177/117709E.pdf|বিন্যাস=PDF|শিরোনাম=Amendment to the Draft Programme and Budget for 2000–2001 (30 C/5)|সংগ্রহের-তারিখ=2008-05-27|কর্ম=General Conference, 30th Session, Draft Resolution|বছর=1999|প্রকাশক=UNESCO}}</ref><ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://portal.unesco.org/education/en/ev.php-URL_ID%3D28672%26URL_DO%3DDO_TOPIC%26URL_SECTION%3D201.html|শিরোনাম=Resolution adopted by the 30th Session of UNESCO's General Conference (1999)|সংগ্রহের-তারিখ=2008-05-27|কর্ম=International Mother Language Day|প্রকাশক=UNESCO}}{{অকার্যকর সংযোগ|তারিখ=অগাস্ট ২০১৮ |bot=InternetArchiveBot |ঠিক করার প্রচেষ্টা=yes }}</ref>
বেনামী ব্যবহারকারী