"আলাউদ্দিন খিলজি" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
(সংশোধন)
আলাউদ্দিন খিলজি ছিলেন খিলজি বংশের প্রতিষ্ঠাতা [[জালালউদ্দিন খিলজি|জালালুদ্দিন]] খিলজির ভাতিজা এবং জামাতা। [[বীরভূম জেলা|বীরভূমদেরকে]] পরাজিত করে জালালুদ্দিন খিলজি যখন [[দিল্লি]] দখল করে নেন, তখন আলাউদ্দিন খিলজিকে আমির-ই-তুজুখ বা উদযাপন মন্ত্রী পদ দেওয়া হয়। ১২৯১ সালে জালালুদ্দিন খিলজি তার ভাতিজা আলাউদ্দিন খিলজির হাতে কারা্([[কানপুর|কানপুরের]] নিকটবর্তী এক এলাকা)নামক অঞ্চলের শাসনভার তুলে দেন। ১২৯৬ সালে আলাউদ্দিন খিলজি বসিলা অবরোধ করে জালালুদ্দিন খিলজির কাছে থেকে আবাধ([[উত্তরপ্রদেশ|উত্তর-প্রদেশ]]) দখল করেন। ১২৯৬ সালে দেভাগিরি অবরোধ করেন এবং জালালুদ্দিনের বিপুল পরিমানের সম্পদ দখল করে নেন। জালালুদ্দিন খিলজিকে হত্যা করে, তিনি দিল্লিতে নিজের শাসন প্রতিষ্ঠা করেন এবং পরবর্তীতে জালালুদ্দিনের ছেলের কাছ থেকে [[মুলতান]] দখল করে নেন।
 
অল্পকিছুদিনের মধ্যেই আলাউদ্দিন খিলজি দক্ষভাবে বেশ কিছু মঙ্গোলীয় অঞ্চলকে নিজের ভারতীয় সাম্রজ্যের মধ্যে অন্তর্গত করেন। তার কত গুলো সফল অভিযানের মাঝে বিখ্যেত অভিযান গুলো হলঃ (১২৯৭–১২৯৮)জারান-মাঞ্জুর(বর্তমান [[পাঞ্জাব, ভারত|পাঞ্জাব]] এর কিছু এলাকা নিয়ে বিস্তৃত ছিল),শিবিস্থান(বিভক্ত [[পাকিস্তান|পাকিস্থান]])(শিবিস্থান-১২৯৮),কিলি (প্রাচীন দিল্লির একটি এলাকা)(১২৯৯), দেলি [[দিল্লি]](১৩০৩),এবং [[উত্তরপ্রদেশ|উত্তর-প্রদেশ]] আম্রহা (১৩০৫) ,১৩০৬ সালে তার সৈন্যগণ মঙ্গোলীয়দের কাছ থেকে একটি সফল অভিযান শেষে রভি নদীর উপতক্যা দখল করে নেয় এবং সেই বছরই তারা মঙ্গলীয়দের বিশেষ আবাসস্থান বর্তমানের আফগানিস্থান দখল করে নেয়।যে সকল সেনাপতি মঙ্গোলীয়দের বিপক্ষে দক্ষ হাতে সফল অভিযান পরিচালনা করেছিলেন তারা হলেন সেনা-অধ্যক্ষ জাফর খান(জাফর খান),সেনাপতি উলুগ খান(উলুগ খান ) এবং একসময়ের গোলাম কিন্তু পরবর্তী সময়ের জেনারেল মালিক কাফুর([[মালিক গফুর|মালিক কাফুর]] )
 
বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ এলাকাও আলাউদ্দদিন দখল করে নিজের দখলে নিয়েছিলেন এগুলো হলঃ [[রাথাম্বোর]] (১৩০১),[[চিত্তুর]] (১৩০৩),[[মালওয়া (পাঞ্জাব)]] (১৩০৫), [[সিবানা]](১৩০৮) এবং জালোর (১৩১১).কতগুলো হিন্দু এলাকা দখল করার মাধমে অভিযান গুলো শেষ করেন। অভিযান গুলোর মাঝে আছে পারামারাছ, ভগল্‌স, রনাস্থাম্বাপুরার ছামানাছ এবং জালরি, গুইলাসের রাওয়াল এলাকা, এবং জাবাপ্লাস। সেনাপতি মালিক কাফুর প্রাচীন ভিন্দাস , এলাকার দক্ষিণে বেশ কয়েকটি সফল সফল অভিযান পরিচালনা করেন। দেভগিরি(১৩০৮), ভেরঙ্গল(১৩১০) থেকে বিপুল পরিমাণের সম্পদ জব্দ করে নিয়ে আসেন। এই সকল সাহসীতাঁর সৈন্যদের ভয়ে জাভাদা রাজা রামচন্দ্র কাকাতিয়ার রাজা প্রতাপারুদ্র[[প্রতাপ রুদ্র]] এবং হয়সালার রাজা বাল্ললা চলে আসেন আলাউদ্দিন খিলজির করের অধীনে। মহাবীর সেনাপতি কাফুর আবার পাণ্ডু রাজ্য(১৩১১) অবরোধ করে বিপুল সম্পদ, হাতি এবং ঘোড়া জব্দ করেন।
 
==রাজ্যজয়==
১,৭৬২টি

সম্পাদনা