"বিবাহ" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

→‎ইসলামী বিবাহরীতি: বানান সংশোধন
(Nobel Saha (আলাপ)-এর সম্পাদিত 3974135 নম্বর সংশোধনটি বাতিল, মৌলিক গবেষণা)
ট্যাগ: পূর্বাবস্থায় ফেরত
(→‎ইসলামী বিবাহরীতি: বানান সংশোধন)
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
<br />{{মূল নিবন্ধ|ইসলামে বিবাহ|ইসলামী বৈবাহিক আইনশাস্ত্র}}
ইসলাম ধর্মে বিবাহের মাধ্যমে নারী ও পুরুষের মধ্যকার যৌন সম্পর্কের অনুমতি রয়েছে। ইসলামী বিবাহরীতিতে পাত্র পাত্রী উভয়ের সম্মতি এবং বিবাহের সময় উভয়পক্ষের বৈধ অভিভাবক বা ওয়ালীর উপস্থিতি ও সম্মতির প্রয়োজন। ইসলামী বিবাহে যৌতুকের কোন স্থান নেই। বিয়ের পূর্বেই পাত্রের পক্ষ হতে পাত্রীকে পাত্রীর দাবি অনুযায়ী একটি নির্দিষ্ট অঙ্কের টাকা বা অর্থসম্পদ বাধ্যতামূলক ও আবশ্যকভাবে দিতে হয়, একে দেনমোহর বলা হয়। এছাড়া বিয়ের পর তা পরিবার পরিজন ও পরিচিত ব্যক্তিবর্গকে জানিয়ে দেয়াও ইসলামী করনীয়সমূহের অন্তর্ভুক্ত।<ref>[http://www.sistani.org/local.php?modules=nav&nid=2&bid=59&pid=3079 The method of pronouncing the marriage formula] {{ওয়েব আর্কাইভ|ইউআরএল=http://www.sistani.org/local.php?modules=nav&nid=2&bid=59&pid=3079 |তারিখ=20110728025312 |df=y }}</ref><ref>[https://web.archive.org/web/20090218220414/http://www.sistani.org/local.php?modules=nav&nid=2&bid=59&pid=3078 Marriage formula]. sistani.org</ref><ref>[https://web.archive.org/web/20090218001957/http://www.sistani.org/local.php?modules=nav&nid=2&bid=59&pid=3080 Conditions of pronouncing Nikah]. sistani.org</ref><ref>[http://www.sistani.org/local.php?modules=nav&nid=2&bid=59&pid=3083 Women with whom matrimony is Haraam] {{ওয়েব আর্কাইভ|ইউআরএল=http://www.sistani.org/local.php?modules=nav&nid=2&bid=59&pid=3083 |তারিখ=20110728025339 |df=y }}</ref>
ইসলামী বিধান অনুযায়ী, একজন পুরুষ সকল স্ত্রীকে সমান অধিকার প্রদানের তার চাহিদা অনুসারে সর্বোচ্চ চারটি বিয়ে করতে পারে। আর সমান অধিকার দিতে অপারগ হলে শুধু একটি বিয়ে করার অনুমতি পাবে। মেয়েদের ক্ষেত্রে একাধিক বিয়ের অনুমতি নেই। ইসলামে একজন মুসলিম পুরুষএকজন মুসলিম নারীর পাশাপাশি ইহুদী কিংবা খ্রিষ্টান নারীকেঅমুসলিমকে বিয়ে করতে পারবে।পারবে কিন্তুযদি মুসলিম নারীরা শুধু মুসলিম পুরুষের সাথে বিবাহে আবদ্ধ হতে পারবে। ইসলামেউক্ত বিবাহপূর্বঅমুসলিম এর বিবাহবহির্ভূতঈমান যৌনতাথাকে। নিষিদ্ধ।
 
এ প্রসঙ্গে পবিত্র আল-কোরআনে সূরা আল বাকারা অধ্যায় ২, আয়াত ২২১ এবং ২২২ এ বলা হয়েছে।
কোনো মুসলিম ছেলে কোনো অমুসলিম মেয়ে কে বিয়ে করতে পারবে না যতক্ষন না পর্যন্ত সে মেয়ে ঈমান আনে।
এবং একই ভাবে কোনো মুসলিম মেয়ে কোনো অমুসলিম ছেলে কে বিয়ে করতে পারবে না যতক্ষন না পর্যন্ত সে ছেলে ঈমান আনে।
 
আল-কোরআনের সূরা বাকারা দুই হতে চার আয়াতে ঈমান সম্পর্কে এই বিষয় গুলি উল্লেখ করা হয়েছে যে
 
ঈমান শব্দের আভিধানিক অর্থ দৃঢ় বিশ্বাস। ইসলাম ধর্মে ঈমানের অর্থ অত্যন্ত ব্যাপক [১]। ঈমানের ছয়টি স্তম্ভ হচ্ছেঃ[২][৩][৪][৫]
 
এক. একক ইলাহ হিসেবে আল্লাহকে বিশ্বাস করা।
 
দুই. আল্লাহর ফেরেশতাদের প্রতি বিশ্বাস করা।
 
তিন. সমস্ত আসমানী কিতাব সমূহতে বিশ্বাস।
 
চার. সকল নবী ও রাসূলগণের প্রতি বিশ্বাস।
 
পাঁচ.তাক্বদীর বা ভাগ্যের ভালো মন্দের প্রতি বিশ্বাস।
 
ছয়. আখিরাত বা পরকালের প্রতি বিশ্বাস।
 
অর্থাৎ যদি কোনো অমুসলিম উপরোক্ত ৬ টি স্তম্ভে
বিশ্বাস করে তাহলে আল-কোরআন অনুসারে তার ঈমান আছে এবং সে কোনো মুসলিম মেয়ে বা ছেলে কে বিয়ে করতে পারবে। এতে তার ইসলাম ধর্ম গ্রহনের প্রয়োজন নেই। এবং বিয়ের পর মেয়ে ও ছেলে উভয়ই নিজ নিজ ধর্ম পালন করলে উক্ত মুসলিম মেয়ে বা ছেলের গুনাহ্ হবে না।...
 
== খ্রিস্টীয় বিবাহরীতি ==
১০টি

সম্পাদনা