"স্যামসন এইচ চৌধুরী" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।
(বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।)
(বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।)
}}
 
'''স্যামসন এইচ চৌধুরী''' (জন্ম: [[২৫ সেপ্টেম্বর]], [[১৯২৫]] - মৃত্যু: [[৫ জানুয়ারি]], ২০১২) [[বাংলাদেশ|বাংলাদেশের]] বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও শিল্পপতি ছিলেন। শীর্ষস্থানীয় এ শিল্পোদ্যোক্তা [[স্কয়ার গ্রুপ|স্কয়ার গ্রুপের]] চেয়ারম্যান ছিলেন।<ref>[http://www.shaptahik.com/v2/?DetailsId=3634 সাপ্তাহিক]</ref>
 
== জন্ম ও পারিবারিক জীবন ==
== কর্মজীবন ==
 
স্যামসন এইচ চৌধুরীর বাবা ছিলেন আউটডোর ডিসপেনসারির মেডিক্যাল অফিসার। বাবার পেশার সুবাদে ছোটবেলা থেকেই ঔষুধ নিয়ে তিনি নাড়াচাড়া করেছেন। [[ভারত]] থেকে শিক্ষাজীবন শেষ করে ফিরে আসেন তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের পাবনার আতাইকুলা গ্রামে। [[১৯৫২]] খ্রিষ্টাব্দে চিন্তাভাবনা করে তিনি 'ফার্মেসি'কেই ব্যবসায় হিসেবে বেছে নিলেন; গ্রামের বাজারে দিলেন ছোট একটি দোকান। [[১৯৫৮]] খ্রিষ্টাব্দে [[যুক্তফ্রন্ট সরকার]] তখন ক্ষমতায় থাকাকালীন সময়ে পেয়ে যান ওষুধ কারখানা স্থাপনের একটা লাইসেন্স। তিনিসহ আরো তিন বন্ধুর সঙ্গে মিলে প্রত্যেকে ২০ হাজার টাকা করে মোট ৮০ হাজার টাকায় পাবনায় কারখানা স্থাপন করলেন স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস। স্কয়ারের নামকরণও করা হয়েছিল চার বন্ধুর প্রতিষ্ঠান হিসেবে। তাই এর লোগোও তাই বর্গাকৃতির। ১৯৫৮ খ্রিষ্টাব্দের স্থাপিত প্রতিষ্ঠানটিতে বর্তমানে ৩০ হাজার শ্রমিক কর্মরত।<ref>[http://archive.prothom-alo.com/detail/date/2012-01-05/news/214224 দৈনিক প্রথম আলো]</ref> শুধু ঔষুধেই নয়, এই শিল্প গ্রুপের ব্যবসায় সম্প্রসারিত হয়েছে প্রসাধনসামগ্রী, টেক্সটাইল, পোশাক তৈরী, কৃষিপণ্য, তথ্যপ্রযুক্তি, স্বাস্থ্যসেবা এমনকি মিডিয়াতেও। তিনি দেশের অন্যতম বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল [[মাছরাঙা (টিভি চ্যানেল)|মাছরাঙার]] চেয়ারম্যান ছিলেন। স্কয়ার গ্রুপ ২০০৯-১০ অর্থবৎসরে [[জাতীয় রাজস্ব বোর্ড]] কর্তৃক ''সেরা করাদাতা'' নির্বাচিত হয়েছিলো।<ref>[http://www.dailykalerkantho.com/print_news.php?pub_no=244&cat_id=1&menu_id=24&news_type_id=1&index=3 দৈনিক কালের কন্ঠ]</ref>
 
== সম্পৃক্ততা ==
১,৭৬,৪২২টি

সম্পাদনা