"পুয়েন্তে মোচো (গুয়াদালিমার)" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

বিষয়শ্রেণী সংযোজন ও সম্প্রসারণ
(চিত্রযোগ)
(বিষয়শ্রেণী সংযোজন ও সম্প্রসারণ)
[[চিত্র:Uno de los ojos del puente Mocho.JPG|thumb|250px|পুয়েন্তো মোচো সেতুর একটি আর্চ]]
সেতুটি লম্বায় ১০০ মিটার ও তার প্রস্থ ৪.৫ মিটার। উনবিংশ শতাব্দীর বিখ্যাত স্পেনীয় পরিসংখ্যানবিদ পাসকুয়াল মাদোথ তাঁর ''দিকথিওনারিও খেওগ্রাফিকো, এসতাদিস্তিকো ই ইস্তোরিকো দে এস্পানিয়া, ই সুস পোসেসিওনেস দে উলত্রামার'' (''Diccionario geográfico, estadístico y histórico de España, y sus posesiones de Ultramar'', মাদ্রিদ, ১৮৪৫-৫০) গ্রন্থে এই সেতুর বিবরণ প্রসঙ্গে বলেছেন যে সেতুটি ২০০ পা লম্ব, ১৫ পা চওড়া ও তার উচ্চতা ৬০ হাত।<ref> [Diccionario geográfico-estadístico-historico de España y sus posesiones de ultramar (1845-1850) - Madoz, Pascual, 1806-1870 https://bibliotecadigital.jcyl.es/es/consulta/registro.cmd?id=16877] (স্পেনীয় ভাষা) ''Biblioteca Digital de Castilla y León'', সংগৃহীত ১৭ জানুয়ারি, ২০২০।</ref> এর খিলানগুলি মোট ছটি অর্ধবৃত্তাকার আর্চ তৈরি করেছে, যার উপর সেতুটি দাঁড়িয়ে আছে। এই আর্চ ও খিলানগুলি মূলত প্রস্তরনির্মিত আর তার বাইরের দিকের দেওয়াল চূনাপাথরের। খিলানের ভিতরের অংশটি মূলত চুন ও পাথর দিয়ে ভর্তি করা। অন্যদিকে আর্চগুলি বেশি শক্ত ও সহনশীল অ্যাসলার পাথরে তৈরি। আবার সেতুটির বাইরের দিকের দেওয়াল তুলনামূলকভাবে কম শক্তিশালী পাথরের টুকরো গেঁথে তৈরি করা হয়েছে। এই সেতুটি নির্মাণের ক্ষেত্রে অকুস্থলে নদীখাতে প্রাপ্ত বিভিন্ন প্রাকৃতিক বৈশিষ্ট্যকে যথেষ্ট দক্ষতা ও বুদ্ধিমত্তার সাথে ব্যবহার করা হয়েছে। যেমন - নদীখাতের মধ্যেই অবস্থিত পাথরের প্রাকৃতিক স্তূপের উপরই সেতুর একাধিক পিলারের ভিত স্থাপিত হয়েছে। অন্যদিকে এই পাথরের স্তূপ যেহেতু নদীর স্রোতকে অকুস্থলে একটি বড় ও একটি ছোট খাতে ভাগ করেছে, সেই অনুযায়ী সেতুটি নির্মিত হওয়ায় সেতুটিও কিছুটা অসম আকার ধারণ করেছে। ফলে দেখে মনে হয়, নদীখাতের মাঝামাঝি অবস্থিত পাথরের স্তূপের উপরে স্থাপিত খিলানের উপরে যেন দুটি পৃথক সেতুকে জোড়া লাগানো হয়েছে। শুধু তাই নয়, মাঝের এই অংশটির উচ্চতাও বাকি অংশের চেয়ে কিছু বেশি। অর্থাৎ, সাধারণভাবে একটি সেতুর উপরের অংশে সর্বত্র যেমন একটি রৈখিক উচ্চতা বজায় রাখা হয়, এক্ষেত্রে তা পরিলক্ষিত হয় না।
 
==যোগাযোগ ব্যবস্থার ক্ষেত্রে গুরুত্ব==
এই সেতু তেমন কোনও খুব গুরুত্বপূর্ণ রাস্তার অঙ্গ হিসেবে নির্মিত হয়নি। ''সিয়েরা দে সেগুরা'' থেকে ''কাম্পোরেদোন্দো'' ও ''কাম্পিও'' হয়ে ''কামিনো দে কার্তাখিনেনসে'' নামক যে দ্বিতীয় শ্রেণির রাস্তাটি সানতিস্তেবান'এর কাছে মূল রাজপথে মিলিত হয়েছিল, এই সেতুটি ছিল সেই রাস্তারই অঙ্গ। রাস্তাটি বর্তমানে একটি ট্রেকিং রুট হিসেবে ব্যবহৃত হয়।
 
==তথ্যসূত্র==