"সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

+
(সংশোধন)
(+)
| successor1 = [[খন্দকার মোশাররফ হোসেন]]
| primeminister1 = [[শেখ হাসিনা]]
| office2 = [[আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক]]
| term_start2 = ২০০৯
| term_end2 = ২৩ অক্টোবর, ২০১৬
| predecessor2 = [[আব্দুল জলিল]]
| successor2 = [[ওবায়দুল কাদের]]
}}
 
'''সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম''' (১ জানুয়ারি ১৯৫২ - ৩ জানুয়ারি ২০১৯) ছিলেন একজন বাংলাদেশি রাজনীতিবিদ ও মন্ত্রী। তিনি [[বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক|বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ষষ্ঠ সাধারণ সম্পাদক]] ছিলেন। তিনি [[কিশোরগঞ্জ-৩]] আসন থেকে [[সপ্তম জাতীয় সংসদ নির্বাচন, জুন ১৯৯৬|সপ্তম]] ও [[অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচন, ২০০১|অষ্টম]], [[কিশোরগঞ্জ-১]] আসন থেকে [[নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচন, ২০০৮|নবম]], [[দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন, ২০১৪|দশম]] ও [[একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন, ২০১৮|একাদশ]] জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে [[জাতীয় সংসদ সদস্য|সংসদ সদস্য]] নির্বাচিত হন। তিনি ২০১৫ সাল থেকে মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত [[জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় (বাংলাদেশ)|জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের]] মন্ত্রী ছিলেন। এর পূর্বে তিনি স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ছিলেন।<ref>{{সংবাদ উদ্ধৃতি |শিরোনাম=সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম আর নেই |ইউআরএল=http://www.ittefaq.com.bd/national/16380/সৈয়দ-আশরাফুল-ইসলাম-আর-নেই |সংগ্রহের-তারিখ=৩ জানুয়ারি ২০১৯ |কর্ম=[[দৈনিক ইত্তেফাক]] |তারিখ=৩ জানুয়ারি ২০১৯}}</ref>
 
==প্রাথমিক জীবন==