"চতুর্দশপদী" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।
(০টি উৎস উদ্ধার করা হল ও ১টি অকার্যকর হিসেবে চিহ্নিত করা হল। #IABot (v2.0beta15))
(বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।)
'''চতুর্দশপদী''' হল এক ধরনের কবিতা যার প্রথম উদ্ভব হয় মধ্যযুগে [[ইতালি|ইতালিতে]]। এর বৈশিষ্ট হল যে এই কবিতাগুলো ১৪টি চরণে সংগঠিত এবং প্রতিটি চরণে সাধারণভাবে মোট ১৪টি করে অক্ষর থাকবে।এর প্রথম আট চরণের স্তবককে অষ্টক এবং পরবর্তী ছয় চরণের স্তবককে ষষ্টক বলে। অষ্টকে মূলত ভাবের প্রবর্তনা এবং ষষ্টকে ভাবের পরিণতি থাকে।
 
== ইংরেজীইংরেজি চতুর্দশপদী ==
ইংরেজিতে চতুর্দশপদী কবিতাকে সনেট (sonnet) বলা হয়।
ইংরেজীইংরেজি চতুর্দশপদী প্রথম পরিচিতি পেয়েছিল খ্রীষ্টীয় ১৬শ (ষোড়শ) শতাব্দীতে 'টমাস ওয়াট' এর প্রয়োগের মাধ্যমে। কিন্তু এর প্রচলন প্রবল হয়ে ওঠে [[স্যার ফিলিপ সিডনি]] এর ''{{lang|en|Astrophel and Stella}}'' (১৫৯১) প্রকাশিত হওয়ার পর থেকে। তার পরের দুই শতক [[উইলিয়াম শেকসপিয়র]], [[এডমন্ড স্পেন্সার]], [[মাইকেল ড্রায়টন]] ইত্যাদি ব্যক্তিত্ত্বরা চতুর্দশপদী কবিতাকে নতুন নতুন ধাপে এগিয়ে নিয়ে গিয়েছেন। এরুপ কবিতার মূল বিষয়বস্তু ছিল নারীর প্রতি ভালবাসা।
 
==বাংলা চতুর্দশপদী==
১,৯৩,৪৩২টি

সম্পাদনা