"চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় গ্রন্থাগার" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

বিষয়বস্তু যোগ
(হালনাগাদ করা হল)
(বিষয়বস্তু যোগ)
 
==অবস্থান==
[[চট্টগ্রাম]] শহর থেকে প্রায় {{রূপান্তর|২২|km}} উত্তরে [[হাটহাজারী|হাটহাজারী থানার]] [[ফতেহপুর ইউনিয়ন|ফতেহপুর ইউনিয়নে]] অবস্থিত চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এলাকার শহীদ মিনারের পাশে এবং আইটি ভবনের পশ্চিমে এই গ্রন্থাগারের অবস্থান।<ref name="LAS">{{ওয়েব উদ্ধৃতি |ইউআরএল=https://coral.uchicago.edu:8443/display/lasa/Chittagong+University+Library+%28Chittagong%2C+Bangladesh%29 |শিরোনাম=Chittagong University Library (Chittagong, Bangladesh) |প্রকাশক=Libraries & Archives in South Asia |সংগ্রহের-তারিখ=৪ মে ২০১৫}}</ref><ref name="সৌন্দর্যের আধার">{{সংবাদ উদ্ধৃতি |তারিখ=১৫ এপ্রিল ২০১৫ |শিরোনাম=চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়: প্রাকৃতিক ও স্থাপত্য সৌন্দর্যের আধার |ইউআরএল=http://www.dailyinqilab.com/details/8023/চট্টগ্রাম-বিশ্ববিদ্যালয়-:-প্রাকৃতিক-ও-স্থাপত্য-সৌন্দর্যের-আধার |সংবাদপত্র=[[দৈনিক ইনকিলাব]] |অবস্থান=[[ঢাকা]] |সংগ্রহের-তারিখ=৪ মে ২০১৫ }}{{অকার্যকর সংযোগ|তারিখ=ফেব্রুয়ারি ২০১৯ |bot=InternetArchiveBot |ঠিক করার প্রচেষ্টা=yes}}</ref>{{r|এক টুকরো গ্রাম}} গ্রন্থাগারের সামনে কলা ও মানববিদ্যা অনুষদ এবং দক্ষিণে [[চাকসু]] ভবন।<ref name="{{r|আজাদী"/>}}{{r|এক টুকরো গ্রাম}}{{sfn|খালেদ|দাশগুপ্ত|হক|১৯৯৫|pp=৩০৯-৩১০}}<ref name="কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার">{{সংবাদ উদ্ধৃতি |লেখক=সাহাবুদ্দীন জামিল |তারিখ=নভেম্বর ২৮, ২০১৩ |শিরোনাম=চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার |ইউআরএল=http://shampratikdeshkal.com/library/2013/11/28/949 |সংবাদপত্র=সাম্প্রতিক দেশকাল |অবস্থান= |সংগ্রহের-তারিখ=মে ৪, ২০১৫ |আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20151002172011/http://shampratikdeshkal.com/library/2013/11/28/949 |আর্কাইভের-তারিখ=২ অক্টোবর ২০১৫ |অকার্যকর-ইউআরএল=হ্যাঁ}}</ref> গ্রন্থাগার ভবনের পশ্চিম পাশে [[চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় জাদুঘর]] অবস্থিত।<ref name="জঙ্গলপট্টি">{{সংবাদ উদ্ধৃতি |শিরোনাম=চবি যেন জঙ্গলপট্টির জাদুঘর |ইউআরএল=https://www.dailyinqilab.com/article/48950/চবি-যেন-জঙ্গলপট্টির-জাদুঘর |সংগ্রহের-তারিখ=১৪ মে ২০১৯ |প্রকাশক=[[দৈনিক ইনকিলাব]] |তারিখ=২০ নভেম্বর ২০১৬ |আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20190514121714/https://www.dailyinqilab.com/article/48950/%E0%A6%9A%E0%A6%AC%E0%A6%BF-%E0%A6%AF%E0%A7%87%E0%A6%A8-%E0%A6%9C%E0%A6%99%E0%A7%8D%E0%A6%97%E0%A6%B2%E0%A6%AA%E0%A6%9F%E0%A7%8D%E0%A6%9F%E0%A6%BF%E0%A6%B0-%E0%A6%9C%E0%A6%BE%E0%A6%A6%E0%A7%81%E0%A6%98%E0%A6%B0 |আর্কাইভের-তারিখ=১৪ মে ২০১৯ |অকার্যকর-ইউআরএল=না }}</ref>
 
==ইতিহাস==
[[চিত্র:Chittagong University Library (09).jpg|thumb|বাম|২০১৫ সালে গ্রন্থাগার ভবন]]
 
১৯৬৬ সালের ১৮ নভেম্বরের কয়েকজন কর্মকর্তা তৎকালীন কলা নিয়ে ভবনের নিচতলায় {{রূপান্তর|১২০০|ft2}} বিশিষ্ট একটি কক্ষে মাত্র ৩০০টি বইয়ের সংগ্রহ নিয়ে গ্রন্থাগারটির যাত্রা শুরু হয়।<ref name="আজাদী">{{সংবাদ উদ্ধৃতি |লেখক=গাজী মোহাম্মদ নুরউদ্দিন |শিরোনাম=প্রাচীন পুঁথি-পাণ্ডুলিপির বিশাল সংগ্রহ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় গ্রন্থাগার |ইউআরএল=http://www.dainikazadi.org/details2.php?news_id=1617&table=september2014&date=2014-09-14&page_id=36&view=&instant_status= |সংগ্রহের-তারিখ=জানুয়ারি ১০, ২০১৫ |কর্ম=[[দৈনিক আজাদী]] |আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20151023215055/http://www.dainikazadi.org/details2.php?news_id=1617&table=september2014&date=2014-09-14&page_id=36&view=&instant_status= |আর্কাইভের-তারিখ=২৩ অক্টোবর ২০১৫ |অকার্যকর-ইউআরএল=হ্যাঁ}}</ref><ref name="এক টুকরো গ্রাম">{{সংবাদ উদ্ধৃতি |শেষাংশ1=টিপু |প্রথমাংশ1=মহিউদ্দিন |শিরোনাম=চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি আলোকিত এক টুকরো গ্রাম |ইউআরএল=http://www.dailysangram.com/post/26215-চট্টগ্রাম-বিশ্ববিদ্যালয়-কেন্দ্রীয়-লাইব্রেরিআলোকিত-এক-টুকরো-গ্রাম |সংগ্রহের-তারিখ=১২ মে ২০১৯ |প্রকাশক=[[দৈনিক সংগ্রাম]] |তারিখ=২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১০ |আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20190512161231/http://www.dailysangram.com/post/26215-%E0%A6%9A%E0%A6%9F%E0%A7%8D%E0%A6%9F%E0%A6%97%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%BE%E0%A6%AE-%E0%A6%AC%E0%A6%BF%E0%A6%B6%E0%A7%8D%E0%A6%AC%E0%A6%AC%E0%A6%BF%E0%A6%A6%E0%A7%8D%E0%A6%AF%E0%A6%BE%E0%A6%B2%E0%A6%AF%E0%A6%BC-%E0%A6%95%E0%A7%87%E0%A6%A8%E0%A7%8D%E0%A6%A6%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A7%80%E0%A6%AF%E0%A6%BC-%E0%A6%B2%E0%A6%BE%E0%A6%87%E0%A6%AC%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A7%87%E0%A6%B0%E0%A6%BF%E0%A6%86%E0%A6%B2%E0%A7%8B%E0%A6%95%E0%A6%BF%E0%A6%A4-%E0%A6%8F%E0%A6%95-%E0%A6%9F%E0%A7%81%E0%A6%95%E0%A6%B0%E0%A7%8B-%E0%A6%97%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%BE%E0%A6%AE |আর্কাইভের-তারিখ=১২ মে ২০১৯ |অকার্যকর-ইউআরএল=না }}</ref> পরবর্তীকালে ১৯৬৮ সালে বর্তমান প্রশাসনিক ভবনের (মল্লিক ভবন) দক্ষিণ পাশে মানবিক ও সমাজ বিজ্ঞান অনুষদ (বর্তমানে [[সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়|সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ]]) ভবনে প্রায় ১৪ হাজার বই নিয়ে ক্ষুদ্র পরিসরে গ্রন্থাগারটি প্রতিষ্ঠা করা হয়। এরপর অস্থায়ী গ্রন্থাগারাটি বর্তমান ভবনে স্থানান্তরিত করা হয়। ১৯৭৩ সালের ডিসেম্বর মাসের দিকে কিছুদিনের জন্য গ্রন্থাগারটি পুনরায় বর্তমান প্রশাসনিক ভবনে স্থানান্তরিত করা হয়েছিল। বর্তমানে {{রূপান্তর|৫৬৭০০|ft2}}<ref name="{{r|এক টুকরো গ্রাম"/>}} পরিমিত এলাকা জুড়ে বিস্তৃত এটি চট্টগ্রামের সবচেয়ে বড় ও আধুনিক গ্রন্থাগার।<ref name="মূল্যবান">{{সংবাদ উদ্ধৃতি |শিরোনাম=মূল্যবান বইয়ের সংগ্রহশালা দুষ্প্রাপ্য ও পাণ্ডলিপি শাখা |ইউআরএল=http://oldsite.dailyjanakantha.com/news_view.php?nc=50&dd=2010-10-31&ni=37889 |সংগ্রহের-তারিখ=১৪ মে ২০১৯ |প্রকাশক=[[দৈনিক জনকণ্ঠ]] |তারিখ=৩১ অক্টোবর ২০১০ }}{{অকার্যকর সংযোগ|তারিখ=ডিসেম্বর ২০১৯ |bot=InternetArchiveBot |ঠিক করার প্রচেষ্টা=yes }}</ref> ১৯৯০ সালে বর্তমান আধুনিক মোজাইক মেঝে বিশিষ্ট গ্রন্থাগারটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন তৎকালীন উপাচার্য [[আলমগীর মোহাম্মদ সিরাজউদ্দীন]]।{{r|এক টুকরো গ্রাম}}
 
২০০৬-২০০৭ অর্থ বছরে এই গ্রন্থাগারের বরাদ্দ ছিল প্রায় ৩৮ লক্ষ টাকা। পূর্বে এ গ্রন্থাগারের জন্য ১ কোটি ২০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত বাজেট প্রণয়ন করা হয়েছিল।{{r|এক টুকরো গ্রাম}} ২০০৫ সালের হিসাবে গ্রন্থাগারের জন্য ৮,৭৫০টি বই, ১২০০টি বাঁধাইকৃত সাময়িকী, ১৫০টি থিসিস, ১২০টি সিডি রম সহ স্থানীয় ও বিদেশী প্রায় ৪৫০টি সাময়িকী সংগ্রহ করা হয়েছিল।{{r|এক টুকরো গ্রাম}}
 
==পরিচালনা==
গ্রন্থাগারটি উপ-উপাচার্যের সভাপতিত্বে নেতৃত্বাধীন বিশ্ববদ্যিালয়ের সকল অনুষদের ডিন সহ ১৪ সদস্যের একটি কমিটি কর্তৃক পরিচালিত। গ্রন্থাগারিক, এই কমিটির সদস্য-সচিব হিসেবে বিবেচিত। এই কমিটি গ্রন্থাগার পরিচালনার যাবতীয় নীতিমালা প্রণয়ন এবং সময়ানুযায়ী গ্রন্থাগারের কার্যক্রমের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান করে।
 
গ্রন্থাগার প্রতিষ্ঠার পর থেকে এযাবৎকাল পর্যন্ত বিভিন্ন মেয়াদে দশ জন গ্রন্থাগারিকের দায়িত্ব পালন করেছেন। প্রথম প্রতিষ্ঠাতা সহকারি গ্রন্থাগারিক ছিলেন আতাউর রহমান, যিনি ৩১ অক্টোবর ১৯৬৬ থেকে ১৬ অক্টোবর ১৯৬৮ সাল পর্যন্ত এ দায়িত্বে কর্মরত ছিলেন।<ref name="{{r|এক টুকরো গ্রাম"/>}}
 
==ভবন==
গ্রন্থাগারটি একটি ত্রিতল ভবনে অবস্থিত, যেখানে অনুষদভিত্তিক পাঠকক্ষ রয়েছে। প্রতিটি পাঠকক্ষের সাথে শিক্ষকেদর জন্য পৃথক পাঠকক্ষের ব্যবস্থা রয়েছে। এছাড়াও [[Master of Philosophy|এম.ফিল]] এবং [[পিএইচডি]] গবেষকদের জন্য রয়েছে ২৪টি গবেষণাকক্ষ।{{sfn|তাহের|২০১০|pp=৭৪}}
 
ভবনের প্রথমনিচ তলায় রয়েছে প্রশাসনিক শাখা, গ্রন্থাগার কার্যালয়, সংস্থাপন শাখা, প্রক্রিয়াকরণ শাখা, বাঁধাই শাখা, প্রচার (Lending) শাখা, কলা পাঠকক্ষ, সভা-সিম্পোজিয়ামের জন্য একটি মিলনায়তন,{{sfn|তাহের|২০১০|pp=৭৪}} এছাড়া রয়েছে কলা অনুষদের শিক্ষার্থীদের জন্য পাঠকক্ষ, মিলনায়তন এবং দৈনিক সংবাদপত্র পাঠকক্ষ এবং নিরাপত্তা শাখা।{{r|এক টুকরো গ্রাম}}
 
দ্বিতীয় তলায় রয়েছে বিজ্ঞান, ব্যবসায় প্রশাসন, আইন এবং সামাজিক বিজ্ঞানের জন্য স্বতন্ত্র পাঠকক্ষ। এছাড়াও রয়েছে দুষ্প্রাপ্য ও পাণ্ডুলিপি এবং পুরাতন সযবাদপত্র শাখা, ফটোকপি শাখা, কম্পিউটার ল্যাব এবং ইন্টারনেট কক্ষ।{{r|এক টুকরো গ্রাম}}
 
গ্রন্থাগারের মোজানীনে (দুইটি তলার মধ্যবর্তী তলায়নিচু তলা) রয়েছে রেফারেন্স বা উৎস শাখা, জার্নাল ও সাময়িকী শাখা, এবং গবেষণা কক্ষ।{{r|এক টুকরো গ্রাম}} ২০১৬ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ডক্টর [[আর আই চৌধুরী|আর আই চৌধুরীর]] নামে একটি কর্ণার স্থাপন করা হয়েছে।<ref name="ক্যামেরা স্থাপন">{{সংবাদ উদ্ধৃতি |শিরোনাম=চবি গ্রন্থাগারে আধুনিকায়ন ও সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন |ইউআরএল=https://new.priyo.com/articles/চবি-গ্রন্থাগারে-আধুনিকায়ন-ও-সিসিটিভি-ক্যামেরা-স্থাপন |প্রকাশক=প্রিয়.কম |সংগ্রহের-তারিখ=১২ মে ২০১৯ |তারিখ=১৮ এপ্রিল ২০১৮ |আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20190512170120/https://new.priyo.com/articles/%E0%A6%9A%E0%A6%AC%E0%A6%BF-%E0%A6%97%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%A8%E0%A7%8D%E0%A6%A5%E0%A6%BE%E0%A6%97%E0%A6%BE%E0%A6%B0%E0%A7%87-%E0%A6%86%E0%A6%A7%E0%A7%81%E0%A6%A8%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%BE%E0%A6%AF%E0%A6%BC%E0%A6%A8-%E0%A6%93-%E0%A6%B8%E0%A6%BF%E0%A6%B8%E0%A6%BF%E0%A6%9F%E0%A6%BF%E0%A6%AD%E0%A6%BF-%E0%A6%95%E0%A7%8D%E0%A6%AF%E0%A6%BE%E0%A6%AE%E0%A7%87%E0%A6%B0%E0%A6%BE-%E0%A6%B8%E0%A7%8D%E0%A6%A5%E0%A6%BE%E0%A6%AA%E0%A6%A8 |আর্কাইভের-তারিখ=১২ মে ২০১৯ |অকার্যকর-ইউআরএল=হ্যাঁ }}</ref> এই কর্নারে আর আই চৌধুরীর ব্যক্তিগত সংগ্রহের ১০০৯টি বই এবং ৪৭৭টি জার্নাল সংগ্রহ করা হয়েছে।<ref>{{সংবাদ উদ্ধৃতি |লেখক1=চট্টগ্রাম প্রতিদিন ডেস্ক |শিরোনাম=কালের সাক্ষ্য বহন করে গ্রন্থাগার |ইউআরএল=https://www.banglanews24.com/daily-chittagong/news/bd/486187.details |সংগ্রহের-তারিখ=৩ নভেম্বর ২০১৯ |প্রকাশক=[[বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম]] |তারিখ=৪ মে ২০১৬ |আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20191103150326/https://www.banglanews24.com/daily-chittagong/news/bd/486187.details |আর্কাইভের-তারিখ=৩ নভেম্বর ২০১৯ |অকার্যকর-ইউআরএল=না }}</ref> ২০১৮ সালে গ্রন্থাগার দপ্তরে বঙ্গবন্ধু কর্ণার স্থাপন করা হয়।<ref name="বঙ্গবন্ধু কর্ণার">{{সংবাদ উদ্ধৃতি |শিরোনাম=চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘বঙ্গবন্ধু কর্ণার’ |ইউআরএল=http://dailypurbodesh.com/চট্টগ্রাম-বিশ্ববিদ্যাল-13/ |সংগ্রহের-তারিখ=১২ মে ২০১৯ |প্রকাশক=[[দৈনিক পূর্বদেশ]] |তারিখ=১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ |আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20190512181111/http://dailypurbodesh.com/%E0%A6%9A%E0%A6%9F%E0%A7%8D%E0%A6%9F%E0%A6%97%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%BE%E0%A6%AE-%E0%A6%AC%E0%A6%BF%E0%A6%B6%E0%A7%8D%E0%A6%AC%E0%A6%AC%E0%A6%BF%E0%A6%A6%E0%A7%8D%E0%A6%AF%E0%A6%BE%E0%A6%B2-13/ |আর্কাইভের-তারিখ=১২ মে ২০১৯ |অকার্যকর-ইউআরএল=না }}</ref> ২০১৯ সালে গ্রন্থাগারে একটি সাইবার সেন্টার স্থাপন করা হয়।<ref name="সাইবার সেন্টার">{{সংবাদ উদ্ধৃতি |শিরোনাম=চবির গ্রন্থাগারে এবার যুক্ত হলো সাইবার সেন্টার |ইউআরএল=https://www.thedailycampus.com/public-university/19532/চবির-গ্রন্থাগারে-এবার-যুক্ত-হলো-সাইবার-সেন্টার |সংগ্রহের-তারিখ=১২ মে ২০১৯ |প্রকাশক=thedailycampus |তারিখ=৯ মার্চ ২০১৯ |আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20190512164930/https://www.thedailycampus.com/public-university/19532/%E0%A6%9A%E0%A6%AC%E0%A6%BF%E0%A6%B0-%E0%A6%97%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%A8%E0%A7%8D%E0%A6%A5%E0%A6%BE%E0%A6%97%E0%A6%BE%E0%A6%B0%E0%A7%87-%E0%A6%8F%E0%A6%AC%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%AF%E0%A7%81%E0%A6%95%E0%A7%8D%E0%A6%A4-%E0%A6%B9%E0%A6%B2%E0%A7%8B-%E0%A6%B8%E0%A6%BE%E0%A6%87%E0%A6%AC%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%B8%E0%A7%87%E0%A6%A8%E0%A7%8D%E0%A6%9F%E0%A6%BE%E0%A6%B0 |আর্কাইভের-তারিখ=১২ মে ২০১৯ |অকার্যকর-ইউআরএল=না }}</ref>
 
===মুক্তিযুদ্ধ কর্নার===
৫৪,০৫৯টি

সম্পাদনা