"হিউয়েন সাঙ" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
== প্রারম্ভিক জীবন ==
[[চিত্র:玄奘故居.jpg|thumb|left|250px|হিনান প্রদেশে হিউয়েন সাঙ এর আবাসস্থল]]
হিউয়েন সাঙ লুজহু প্রদেশের (বর্তমান হিনান প্রদেশ) গৌসি টাউনের চিনহি গ্রামে [[৬০২]] খ্রিষ্টাব্দে একটি সম্ভ্রান্ত ও উচ্চশিক্ষিত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পূর্বসূরী '''চেন শি''' ছিলেন হান সম্রাজ্যের একজন মন্ত্রী। তার দাদার বাবা '''চেন কিন''' পূর্ব ওয়েই সম্রাজ্যের শেনডেং প্রদেশের একজন বড় কর্মকর্তা ছিলেন আর তার দাদা '''চেন কাং''' উত্তোর কি সম্রাজ্যের রাজকীয় একাডেমির অধ্যাপক ছিলেন এবং সর্বশেষে তার বাবা '''চেন হুই''', শুই সম্রাজ্যের একজন ম্যাজিষ্ট্রেট হিসেবে কাজ করেছেন কিন্তু পরবর্তীতে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার আশঙ্কায় চাকরি ছেড়ে দেন। বিভিন্ন স্থান থেকে প্রাপ্ত তার আত্মজীবনী থেকে জানা যায় যে ইউয়েনহিউয়েন সাঙ খুব ছোটবেলা থেকেই [[কনফুসিয়াস|কনফুসিয়াসের]] গতানুগতিক তত্ত্বের উপর ব্যাপক আগ্রহ এবং পারদর্শিতা প্রদর্শন করতে থাকেন যা তার বাবাকে অবাক করে দেয়। তার ভাই বোনদের মতই হিউয়েন সাঙ তাদের বাবার কাছ থেকে প্রাথমিক শিক্ষা দীক্ষা লাভ করেন।
 
যদিও তার পরিবারের সকলে [[কনফুসিয়াস|কনফুসিয়াসের]] তত্ত্বের উপর বিশ্বাসী ছিলেন তার পরও হিউয়েন সাঙ তার বড় ভাই '''চেন সু''' এর পদাঙ্ক অনুসরণ করে বৌদ্ধ ভিক্ষু হওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেন। ৬১১ খ্রিষ্টাব্দে তার বাবার মৃত্যু হলে হিউয়েন সাঙ লুয়াং প্রদেশে জিংতু বুদ্ধ আশ্রমে তার ভাইয়ের সাথে প্রায় পাঁচ বছর কাটান। সেই বুদ্ধ আশ্রমে সেই সময় বৌদ্ধ ধর্মগ্রন্থ হিসেবে মাহায়ানার চর্চা করা হত।
 
== ভারতবর্ষ ==
আদিনপুর ত্যাগ করে তিনি [[খাইবার পাস]] হয়ে [[পেশাওয়ার]] দিকে রওনা হন। যাওয়ার পথে তিনি অনেক বৌদ্ধ মঠ দেখেন কিন্তু সেগুলোতে সে তুলনায় বৌদ্ধ ভিক্ষু ছিল না। হিউয়েন সাঙ এর মতে পূর্বে পেশওয়ারের বৌদ্ধ ধর্ম সম্পর্কিত যে গৌরব ছিল তা তৎকালীন পেশওয়ার হারাতে বসেছিল। [[পেশাওয়ার]] থেকে তিনি [[সোয়াত উপত্যকা|সোয়াত উপত্যকার]] দিকে চলে যান যেখানে তিনি চোদ্দশ পরিত্যাক্ত বৌদ্ধ মঠ দেখতে পান যেখানে পূর্বে প্রায় আঠারো হাজার ভিক্ষু বসবাস করতেন। সোয়াত উপত্যাকা দিয়ে তিনি [[সিন্ধু নদ]] পার হন। সিন্ধু পার হয়ে তিনি [[কাশ্মীর|কাশ্মীরের]] দিকে ধাবিত হন। [[কাশ্মীর|কাশ্মীরে]] হিউয়েনের সাথে বৌদ্ধ ভিক্ষু সংঘাসের সাথে দেখা হয়ে যায়। সংঘাস ছিলেন ময়াহনমাহায়ন গ্রন্থের পন্ডিৎ। হিউয়েন কাশ্মিরে ৬৩২ থেকে ৬৩৩ সাল পর্যন্ত অন্যান্নঅন্যান্য় জ্ঞানিজ্ঞানী বিক্ষুদেরভিক্ষুদের সাথে মাহায়ন অধ্যয়ন করে কাটান। এখানে অবস্থানকালেই তিনি তার বইয়ে খৃষ্টপূর্ব প্রথম শতকে অনুষ্ঠিত প্রথম বৌদ্ধ কাউন্সিলের ব্যাপারে লিখেছিলেন। এরপর তিনি আরোপূর্বেরআরো পূর্বের দিকে [[লাহোর]] ও মতিপুরের দিকে রওনা দেন। তার ভারত ভ্রমনেরভ্রমণের সাথে বাংলা (বর্তমান ভারতের পশ্চিম বাংলা ও [[বাংলাদেশ]]) তে আগমন একটি গুরুত্বপূর্ণ দিক। [[নালন্দা]] থেকে ৬০০ লি অতিক্রম করে কজংগলে আসেন সেখানে কিছুদিন অতিবাহিত করার পর ৯০০ লি পূর্ব দিকে পদ্মা পার হয়ে পুন্দ্রনগর আসেন সেখানেই অনেক দিন কাটান এর পর প্রায় ৯০০ লি উত্তর পুর্বে কামরুপ যান সেখান থেকে ১৩০০ লি দক্ষিণে সমতট তার পর ৯০০ লি পশ্চিমে সমুদ্র তীরবর্তি তাম্রলিপ্তি তে যান সম্ভবত এর পর শশাঙ্ক এর রাজধানী কর্ণসুবর্ণ তে যান এবং এর পর উড়িষ্যা দিয়ে চীনে ফিরে যান।
বাংলা ( বর্তমান ভারতের পশ্চিম বাংলা ও [[বাংলাদেশ]]) তে আগমান একটি গুরুত্বপূর্ণ দিক। [[নালন্দা]] থেকে ৬০০ লি অতিক্রম করে কজংগলে আসেন সেখানে কিছুদিন অতিবাহিত করার পর ৯০০ লি পুর্ব দিকে পদ্মা পার হয়ে পুন্দ্রনগর আসেন সেখানেই অনেক দিন কাটান এর পর প্রায় ৯০০ লি উত্তর পুর্বে কামরুপ যান সেখান থেকে ১৩০০ লি দক্ষিণে সমতট তার পর ৯০০ লি পশ্চিমে সমুদ্র তীরবর্তি তাম্রলিপ্তি তে যান সম্ভবত এর পর শশাঙ্ক এর রাজধানী কর্ণসুবর্ণ তে যান এবং এর পর উড়িষ্যা দিয়ে চীনে ফিরে যান।
 
== রচনাসমূহ ==
বেনামী ব্যবহারকারী