"তাজ মহল প্যালেস হোটেল" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
(বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।)
তাজমহল প্যালেস ও টাওয়ার হোটেলের কম-ক্ষতিগ্রস্ত বিভাগ ২১ ডিসেম্বর ২০০৮ এ পুনরায় খুলে দেওয়া হয়। তাজমহল প্যালেস হোটেলে জনপ্রিয় ঐতিহ্য বিভাগ পুনর্নির্মাণ করতে বেশ কয়েক মাস লেগে যায়।
 
জুলাই ২০০৯ এ ভারত - [[মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র]] সম্পর্ক গভীর করার উদ্দেশ্য নিয়ে যখন হিল্লারী ক্লিন্টন মুম্বাই সফর এ আসেন তখন তিনি তাজ হোটেল এ ছিলেন এবং তিনি একটি স্মৃতিচারণা অনুষ্ঠান এও অংশগ্রহনঅংশগ্রহণ করেন। “আমি ব্যক্তিগতভাবে এবং আমাদের দেশের তরফ থেকে সহানুভূতি ও সংহতি জানাতে চাই তাদের উদ্দেশ্যে যারা তাজ এ এই মর্মান্তিক ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছে।”<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|শেষাংশ=Mohammed|প্রথমাংশ=Arshad (18 July 2009)|ইউআরএল=http://www.reuters.com/article/2009/07/18/us-india-usa-clinton-idUSTRE56H0ST20090718|শিরোনাম=Clinton meets Mumbai victims, serenaded by artisans|প্রকাশক=Reuters (Mumbai)}}</ref> ১৫ অগাস্ট, ২০১০, ভারতের স্বাধীনতা দিবসের দিন, তাজমহল প্যালেস পুনরূদ্ধার এর পর পুনরায় খোলা হয়। হোটেলটির পুনরূদ্ধার কার্যে এই পর্যন্ত ১.৭৫ বিলিয়ন টাকা খরচা হয়েছে।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.hotelnewsnow.com/Article/3852/Taj-Mahal-Palace-Mumbai-reopens|শিরোনাম=HNN Newswire}}</ref>
 
২০১০ সালের ৬ই নভেম্বর, মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা হামলার পর তাজ মহল প্যালেস এ থাকার প্রথম বিদেশী রাষ্ট্রপ্রধান। হোটেলের ছাদ থেকে দেওয়া একটি বক্তৃতাএ তিনি বলেন "তাজ হলো শক্তির প্রতীক এবং ভারতীয় জনগণের স্থিতিস্থাপকতার চিন্হ"।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://articles.latimes.com/2010/nov/06/world/la-fgw-obama-mumbai-20101107|শিরোনাম=Obama visits site of Mumbai attacks, praises India's resilience|প্রকাশক=Los Angeles Times|সংগ্রহের-তারিখ=4 July 2011}}</ref><br />
১,৮৫,২০১টি

সম্পাদনা