"তানসেন" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
বৃন্দাবন থেকে বিহাটে ফিরে তানসেন শিব মন্দিরে সঙ্গীত সাধনা শুরু করেন। লোকমুখে বলতে শোনা যায়, তার সঙ্গীতে মন্দিরের দেয়াল আন্দোলিত হত। স্থানীয়রা পূর্ণভাবে বিশ্বাস করতে শুরু করেন যে, তানসনের সঙ্গীতের কারণেই মন্দিরটি এক দিকে একটু হেলে পড়েছে। তানসেন সম্বন্ধে আরও কিছু অলৌকিক ঘটনার উল্লেখ পাওয়া যায়। যেমন : বৃক্ষ ও পাথরকে আন্দোলিত করা, নিজ থেকেই বাতি জ্বালানো এবং যখন বৃষ্টির কোনো চিহ্নই নেই তখন বৃষ্টি আনয়ন।
বাবা-মার মৃত্যুর পর তিনি হযরত গাউসের নিকট আসেন।তিনি তানসেনের সাঙ্গীতিক গুরু ছিলেন। শিক্ষা শেষে তিনি [[মেওয়া]] বান্ধবগড়ের রাজা রামচন্দ্রের রাজকীয় আদালতে সঙ্গীত শিল্পী হিসেবে যোগ দেন। এরপর তিনি মুঘল বাদশাহ আকবরের রাজ দরবারে নবরত্নের একজন হিসেবে সঙ্গীতের সাধনা শুরু করেন।
তানসেনের দুজন স্ত্রী ছিলেন।তাদের একজন ছিলেন আকবরের বোন মেহেরুনিসা,তানসেনের পাঁচ সন্তানের খবর পাওয়া যায়।সন্তানদের নামনামঃ ঃহামিরসেনহামিরসেন,সুরাটসেন,বিলাস,তান্সান্স,সরস্বতী দেবী।
 
''কেউ কেউ দাবী করেন তানসেন নাকি তার ধর্ম পরিবর্তন করেছিলেন! কিন্তু এই তথ্য সম্পুর্ণই ভুল। তানসেন ছিলেন মুক্তমনা, তিনি সকল ধর্মকেই সমানভাবে সন্মান করতেন''
 
== গাউসের সমাধি ==
বেনামী ব্যবহারকারী