"নারায়ণ" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা দৃশ্যমান সম্পাদনা
(বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।)
"নারায়ণ" শব্দের অর্থ "যিনি জলের উপর শয়ন করেন।" হিন্দুশাস্ত্র মতে, জল প্রথম সৃষ্ট বস্তু, তাই সৃষ্টিকর্তা নারায়ণ জলেই বাস করেন। এই জন্য হিন্দু শিল্পকলায় নারায়ণকে প্রায়শই জলের উপর অবস্থানকারী মূর্তিতে চিত্রিত করা হয়। সংস্কৃত ভাষায় "নর" শব্দের অর্থ মানুষ। তাই "নারায়ণ" শব্দের অন্য অর্থ হল, "মানুষ যেখানে আশ্রয় গ্রহণ করে।"
 
[[ভাগবত পুরাণ|ভাগবত পুরাণে]] নারায়ণকে বলা হয়েছে সর্বোচ্চ উপাস্য। এই পুরাণ মতে, তিনি অসংখ্য জগৎ সৃষ্টি করে প্রতিটি জগতে জগদীশ্বর রূপে প্রবেশ করেছেন।<ref>Bhagavata Purana Canto 2 Chapter 10 Verse 10</ref> [[ব্রহ্মা]] রূপে [[রজঃ]] [[গুণ (হিন্দু দর্শন)|গুণ]] অবলম্বন করে তিনি চোদ্দটি জগৎ সৃষ্টি করেছেন। [[বিষ্ণু]] রূপে [[সত্ত্ব]] গুণ অবলম্বন করে তিনি সেগুলি রক্ষা করেন এবং [[শিব]] রূপে [[তমঃ]] গুণ অবলম্বন করে তিনি তা ধ্বংস করেন।<ref>Bhagavata Purana Canto 2 Chapter 5 Verse 16-18</ref><ref>Bhagavata Purana Canto 11 Chapter 4 Verse 5</ref><ref>Vishnu Purana 1.2.61-63</ref>
 
নারায়ণের অপর নাম "মুকুন্দ"। এই শব্দের অর্থ, যিনি জন্ম ও মৃত্যুর চক্র থেকে মুক্তি অর্থাৎ [[মোক্ষ]] প্রদান করেন।<ref>Name No. 515 in Vishnu Sahasranama</ref>
১,৮৬,১২৭টি

সম্পাদনা