"কৃষ্ণগহ্বর" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

(বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।)
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
কৃষ্ণগহ্বরের আশেপাশে আরও বিশিষ্ট ধরনের কিছু দিগন্ত যেমন, পরম দিগন্ত এবং আপাত দিগন্ত দেখা যায়। এছাড়া আরও কিছু স্বতন্ত্র ধারণা থেকে প্রাপ্ত কোশি দিগন্ত এবং খুনে দিগন্ত; কাড় দ্রবণ এর ফোটন পরিমন্ডল এবং আর্গো-পরিমন্ডল; বিশ্বতত্ত্ব সংক্রান্ত কণা দিগন্ত ও মহাজাগতিক দিগন্ত; বিচ্ছিন্ন দিগন্ত এবং গতিশীল দিগন্ত কৃষ্ণবিবরের গবেষনায় গুরুত্বপুর্ন।
বিষ্ফোরণ।
 
<br>
কৃষ্ণবিবর যেমন মানুষের কাছে আকর্ষনীয় তেমনই বিপজ্জনক। কৃষ্ণবিবরে কেউ কখনো পৌছাতে পারেনি। তাই অনেকের মনে কৌতূহল আসে যে কৃষ্ণবিবরের ভিতরে গেলে কেমন দেখা যেত। কৃষ্ণবিবরের ভিতরে কেউ গেলে আর ফিরতে পারবে না। কারণ, কৃষ্ণবিবরে একবার পরে গেলে মৃত্যু অবধারিত। কৃষ্ণবিবর পরমাণুর আকার থেকে দানবাকারও হতে পারে। পরমাণু আকার কৃষ্ণবিবরে কেউ যদি পরে যায় তাহলে তার শরীর প্রথমে নুডুলসের মতো করে তারপর বিভক্ত করে গ্রহণ করে নেবে। দানবাকার কৃষ্ণবিবরে এই ঘটনাটি ঘটবে ভিতরে ঢোকার পর।<br>
(by-- Fairuzur Rahman Pretom, fb user)
 
== কৃষ্ণগহ্বরের গঠন ==
১৩টি

সম্পাদনা