"কাস্তিও দে গিরিবাইলে" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্প্রসারণ
(সম্প্রসারণ)
(সম্প্রসারণ)
 
==বিবরণ==
দুর্গটি কোনও সুসম পরিকল্পনার ভিত্তিতে তৈরি হয়নি। বর্তমানে এর অবশেষ হিসেবে দুটি বর্গাকার মিনারের ভগ্নাবশেষ ও দেওয়ালের কিছু অংশ দেখতে পাওয়া যায়। এগুলি নির্মাণের ক্ষেত্রে পাথর জোড়া লাগানোর জন্য মর্টার ব্যবহৃত হয়েছিল। এর মধ্যে একটি মিনার দৈর্ঘ্যে ৭.৪৫ মিটার ও প্রস্থে ৬.২০ মিটার একটি নিরেট বেদীর উপর নির্মিত। এর মধ্যে তিনটি ঘর রয়েছে। এই বেদীর উপরে আরও একটি পুরনো আমলের একটি ইসলামি শৈলীর মিনারের অস্তিত্বওঅস্তিত্বের অবশেষও পরিলক্ষিত হয়। এই দুটি মিনারের মধ্যে দূরত্ব ২ মিটারের মতো। যতদূরসম্ভব, দুর্গের ফটকের পাশে প্রহরার উদ্দেশ্যে এই মিনারগুলি তৈরি হয়েছিল। অন্যদিকে দ্বিতীয় যে মিনারটি এখনও কিছুটা অবশিষ্ট অবস্থায় আছে, তারও নির্মাণশৈলী যথেষ্ট জটিল। এক্ষেত্রেও আরও পুরনো কোনও নির্মাণের উপাদান ব্যবহৃত হয়েছে। এক্ষেত্রেও মিনারটির তলদেশে একটি ইঁট নির্মিত সুসম বেদীর অস্তিত্ব পরিলক্ষিত হয়; তার উপরে বর্গাকার মিনারটি উঠে গেছে। এর দেওয়ালগুলি পুরু মর্টার নির্মিত। এছাড়া দুর্গটির মধ্যে কামানের গোলা মজুত রাখার জন্য নির্মিত একটি বেসিনের আকৃতির অংশও এখনও অবশিষ্ট আছে।
 
==তথ্যসূত্র==