"আবুল কাশেম ফজলুল হক" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
 
[[১৯৫৩]] সালের [[ডিসেম্বর ৪|৪ ডিসেম্বর]] এ. কে. ফজলুক হক, [[হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী]] ও [[আবদুল হামিদ খান ভাসানী|মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীকে]] নিয়ে গঠিত হল যুক্তফ্রন্ট। যুক্তফ্রন্টের মুখপাত্র হিসেবে কাজ করার জন্য এ সময়ে সাপ্তাহিক ‘ইত্তেফাক’কে দৈনিক পত্রিকায় রুপান্তর করা হয়।{{সত্যতা}} [[তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া]] ছিলেন ইত্তেফাকের প্রতিষ্ঠা সম্পাদক। [[১৯৫৪]] সালের [[মার্চ ১০|১০ মার্চ]] নির্বাচন অণুষ্ঠিত হয়। এই নির্বাচনে ৩০০ আসনের মধ্যে মুসলিম লীগ ৯ টি আসন লাভ করে।{{সত্যতা}} [[১৯৫৪]] সালের [[এপ্রিল ৩|৩ এপ্রিল]] এ. কে. ফজলুক হক চার সদস্য বিশিষ্ট মন্ত্রী সভা গঠন করেন।<ref>{{বই উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://books.google.com.bd/books?id=Szfqq7ruqWgC&pg=PA141&dq=sher+e+bangla+fazlul+huq&hl=bn&sa=X&ved=0ahUKEwjyrfHul7zlAhWt7HMBHfR5DyQQ6AEIPjAD#v=onepage&q=sher%20e%20bangla%20fazlul%20huq&f=false|শিরোনাম=Bangladesh: Past and Present|শেষাংশ=Ahmed|প্রথমাংশ=Salahuddin|তারিখ=2004|প্রকাশক=APH Publishing|ভাষা=en|আইএসবিএন=9788176484695}}</ref> পূর্ণাঙ্গ মন্ত্রী পরিষদ গঠন করা হয় [[মে ১৫|১৫ মে]]। প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন শেরে বাংলা আবুল কাশেম ফজলুল হক।
=== পূর্ব পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীমুখ্যমন্ত্রী এ. কে. ফজলুক হক ===
যুক্তফ্রন্টের ২১ দফা কর্মসূচি ছিল। যুক্তফ্রন্ট মন্ত্রী পরিষদ এই ২১ দফা বাস্তবায়নের জন্য তৎপর হন। তাদের গৃহীত উল্লেখ্যযোগ্য কর্মসূচি গুলো হল:
# [[বাংলা|বাংলাকে]] [[পাকিস্তান|পাকিস্তানের]] অন্যতম রাষ্ট্রভাষা করার সুপারিশ।
৫৩টি

সম্পাদনা