"ভারতের সর্বোচ্চ ন্যায়ালয়" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

পরামর্শ দান এলাকা
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
(পরামর্শ দান এলাকা)
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা দৃশ্যমান সম্পাদনা
প্রথম দিকে সর্বোচ্চ ন্যায়ালয় [[ভারতের সংসদ|সংসদ ভবনের]] [[চেম্বার অফ প্রিন্সেস]] কক্ষে বসত। এখানেই ১৯৩৭ সাল থেকে ১৯৫০ সাল পর্যন্ত ফেডেরাল কোর্ট অফ ইন্ডিয়া বসত। ভারতের প্রথম প্রধান বিচারপতি ছিলেন স্যার এইচ. জে. কানিয়া। প্রথম বাঙালী প্রধান বিচারপতি স্যার [[বিজন কুমার মুখার্জী]] (১৯৫৪-১৯৫৬)। ১৯৫৮ সালে সর্বোচ্চ আদালত তার বর্তমান ভবনে উঠে আসে।<ref name="history"/> প্রথম দিকে [[ভারতের সংবিধান]] সর্বোচ্চ ন্যায়ালয়ে একজন প্রধান বিচারপতি ও ৭ জন বিচারপতির ব্যবস্থা রেখেছিল এবং বিচারপতির সংখ্যা বৃদ্ধির ক্ষমতা সংসদের হাতের ন্যস্ত করেছিল।<ref name=SCcosnti>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|শিরোনাম=Constitution of Supreme Court of India|ইউআরএল=http://www.supremecourtofindia.nic.in/constitution.htm|প্রকাশক=Supreme Court of India|সংগ্রহের-তারিখ=29 March 2014|আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20130330233810/http://supremecourtofindia.nic.in/constitution.htm|আর্কাইভের-তারিখ=৩০ মার্চ ২০১৩|অকার্যকর-ইউআরএল=হ্যাঁ}}</ref> প্রথম বছরগুলিতে সর্বোচ্চ ন্যায়ালয় বছরে ২৮ দিন সকাল ১০টা থেকে ১২টা এবং দুপুর ২টো থেকে বিকেল ৪টে অবধি বসত।<ref name="History PDF" />
 
== পরামর্শ দান এলাকা ==
== গঠনশৈলী ==
বর্তমানে একজন প্রধান বিচারপতি এবং ত্রিশ জন অন্যান্য বিচারপতি নিয়ে সুপ্রিমকোর্ট গঠিত।প্রয়োজনে অস্হায়ী বিচারপতি নিয়োগের ব্যবস্হা সংবিধানে রয়েছে(ধারা নং-127)।এছাড়া প্রধান বিচারপতি রাষ্ট্রপতির সম্মতি সাপেক্ষে কোনো অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতিকে সাময়িক কালের জন্য বিচারক হিসেবে মনোনীত করতে পারেন (ধারা নং 128)।
সংবিধান অনুযায়ী সুপ্রিমকোর্টের বিচারপতি পদপ্রার্থীকে অবশ্যই ভারতীয় নাগরিক হতে হবে।তাঁকে ভারতের কোনো হাইকোর্টে 5 বছর বিচারপতিরূপে অভিজ্ঞ থাকতে হবে অথবা কোনো হাইকোর্টে 10 বছরের অ্যাডভোকেট হিসেবে অভিজ্ঞতা থাকা দরকার।বিচারপতিগন 65 বছর বয়স পর্যন্ত স্বপদে অধিষ্ঠিত থাকেন।
বেনামী ব্যবহারকারী