"কলি যুগ" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
(বানান ভুল)
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা দৃশ্যমান সম্পাদনা
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
{{Hinduism}}
'''কলিযুগ'''
'''কলি যুগ''' ([[দেবনাগরী লিপি|দেবনাগরী]]: {{lang|sa|कलियुग}} {{IPA-sa|kəli juɡə|}}, আক্ষরিকভাবে "কলির যুগ", বা "পাপের যুগ") হলো হিন্দু শাস্ত্র অনুযায়ী, চার যুগের শেষ যুগ। অন্য যুগ গুলো হলো [[সত্য যুগ]], [[ত্রেতা যুগ]], ও [[দ্বাপর যুগ]]।
 
শ্রীমদ্ভাগবত মহাপুরান এর ১২ স্কন্ধ,২য় অধ্যায়,৩৩ নম্বর শ্লোকে বলা হয়েছে ভগবান শ্রীকৃষ্ণ যেইদিন ইহধাম ত্যাগ করে বৈকুণ্ঠধামে গমন করবেন সেইদিন থেকেই কলিযুগের শুরু হবে।।
মাঘ মাসের শুক্ল পক্ষের পুর্ণিমা তিথিতে শুক্রবারে কলিযুগের উৎপত্তি। এর পরিমাণ ৪,৩২,০০০ বছর। পুণ্য এক ভাগ, পাপ তিন ভাগ। [[অবতার]] কল্কি। মানুষের আয়ু একশ বিশ বছর প্রায়। নিজের হাতে সাড়ে তিন হাত নিজের শরীরের আয়তন। প্রাণ অন্নে। তীর্থ গঙ্গা। সব পাত্র ব্যবহার করা হয়। ধর্ম সংকোচিত। মানুষ তপস্যাহীন, সত্য থেকে দূরে অবস্থানরত। রাজনীতি কুটিল। শাসক ধনলোভী। ব্রাহ্মণ শাস্ত্রহীন। পুরুষ স্ত্রীর অনুগত। পাপে অনুরক্ত। সৎ মানুষের কষ্ট বৃদ্ধি। দুষ্টের প্রভাব বৃদ্ধি। তারক ব্রহ্মনাম- হরে কৃষ্ণ হরে কৃষ্ণ কৃষ্ণ কৃষ্ণ হরে হরে, হরে রাম হরে রাম রাম রাম হরে হরে।
 
 
শ্রীমদ্ভাগবত মহাপুরান এর ৩য় স্কন্ধ,১১শ অধ্যায়,১৯ নম্বর শ্লোক অনুযায়ী কলিযুগের বয়স ৪৮০০ বছর।
 
 
পন্ডিত মেঘাতিথি হাজার বছর আগে যুগের বয়স গননা করতে ভুল করেন এবং সেই ভুল গননাই সকল ধর্মগ্রন্থে লিপিবদ্ধ হয়।
 
পরবর্তীতে ঊনবিংশ শতাব্দীতে পন্ডিত কুলুক ভট্ট এবং স্বামী রাজনারায়ণ ষটশাস্ত্রী জ্যোতির্ভূষণ ভক্তিযোগাচার্য্য এই ভুল প্রমাণ করেন।স্বামী রাজনারায়ণ ষটশাস্ত্রী তার বিখ্যাত "চেতাবনি" গ্রন্থে তা উল্লেখ করেন।
 
যুগের সংশোধিত হিসাব অনুযায়ী সত্যযুগের বয়স ১২০০ বছর,ত্রেতাযুগের বয়স ২৪০০ বছর,দ্বাপর যুগের বয়স ৩৬০০ বছর এবং কলিযুগের বয়স ৪৮০০ বছর।
 
== সময় পরিমাণ ==
৮টি

সম্পাদনা