"কাস্তিও দে গিরিবাইলে" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

বিষয়বস্তু যোগ ও সম্প্রসারণ
(→‎ইতিহাস: সম্প্রসারণ)
(বিষয়বস্তু যোগ ও সম্প্রসারণ)
 
[[স্পেনে মুসলমান বিজয়|স্পেনে মুসলমান বিজয়ের]] পর পুরনো ইবেরীয় ও রোমান যুগের বসতি ও দুর্গের উপর এই অঞ্চলে আরও একটি দুর্গ গড়ে ওঠে। এইসময় গিরিবাইলের চারিপাশে প্রতিষ্ঠিত বিভিন্ন খামারগুলির সুরক্ষার প্রয়োজনেই এই দুর্গের দরকার হয়ে পড়েছিল।<ref name="Dema" /><ref name="Barragán" />
 
===বর্তমান দুর্গ===
দ্বাদশ শতাব্দীর দ্বিতীয়ার্ধে খ্রিস্টীয় বাহিনী মাঞ্চা অভিমুখে অগ্রসর হবার আগে এই অঞ্চলে গিরিবাইলেসহ আরও যেসব দুর্গগুলি ছিল, সেগুলির সবক'টিরই সংস্কার করা হয় ও নতুন করে গড়ে তোলা হয়। মূল লক্ষ্য ছিল স্বাভাবিকভাবেই এই অঞ্চলের মধ্য দিয়ে উপত্যকার বিভিন্ন দিকে প্রসারিত বাণিজ্যপথ ও অন্যান্য পার্বত্য পথগুলির সুরক্ষাবিধান করা। এই পর্যায়েই গিরিবাইলেতে দুর্গটিকে নূতন করে মর্টার ব্যবহার করে নির্মাণ করা হয়। দুর্গটি পুনর্নির্মাণের সময় গিরিবাইলে [[আলমোহাদ খিলাফত|আলমোহাদ খিলাফতের]] অধীনে ছিল।
 
১২২৭ খ্রিস্টাব্দে দুর্গটি ''আবু মোহাম্মদ'' [[কাস্তিয়া|কাস্তিয়ার]] রাজা [[তৃতীয় ফের্নান্দো (কাস্তিয়া)|তৃতীয় ফের্নান্দোর]] হাতে তুলে দেন। ১২৭৪ সালে ধর্মীয় মিলিশিয়া ''অর্ডার অফ কালাত্রাভা'' দুর্গটি অধিকার করার পর
কাস্তিয়ার রাজা [[দশম আলফোনসো (কাস্তিয়া)|দশম আলফোনসোর]] নির্দেশে এটির অধিকার [[বায়েথা]] পুর কর্তৃপক্ষের হাতে অর্পণ করা হয়। পরে ১২৯২ সালে রাজা [[চতুর্থ সাঞ্চো (কাস্তিয়া)|চতুর্থ সাঞ্চোর]] নির্দেশে [[গুয়াদালিমার]] ও [[গুয়াদালেন]] নদীর মধ্যবর্তী ভূভাগসহ দুর্গটি তুলে দেওয়া হয় বায়েথার বিচারক ''দন খিল বাইলে দে কাব্রেরা'' (''Gil Bayle de Cabrera'') -র হাতে। এই খিল বাইলে'র নাম থেকেই বর্তমানে স্থানটির নাম ''খিরিবাইলে'' বা গিরিবাইলে।<ref name="Dema" /><ref name="Barragán" />
 
 
==তথ্যসূত্র==