"বঙ্গোপসাগর" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।
(১টি উৎস উদ্ধার করা হল ও ০টি অকার্যকর হিসেবে চিহ্নিত করা হল। #IABot (v2.0beta15))
(বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।)
| outflow =
| catchment =
| basin_countries = [[বাংলাদেশ]], [[ভুটান]], [[চীন]], [[ভারত]], [[ইন্দোনেশিয়া]], [[মায়ানমার]], [[নেপাল]], [[শ্রীলঙ্কা]]<ref>[http://www.worldatlas.com/aatlas/infopage/baybengal.htm Map of Bay of Bengal- World Seas, Bay of Bengal Map Location - World Atlas<!-- Bot generated title -->]</ref><ref>{{বই উদ্ধৃতি |lastশেষাংশ=Chowdhury |firstপ্রথমাংশ=Sifatul Quader |yearবছর=2012 |chapterঅধ্যায়=Bay of Bengal |chapterঅধ্যায়ের-urlইউআরএল=http://en.banglapedia.org/index.php?title=Bay_of_Bengal |editor1সম্পাদক১-lastশেষাংশ=Islam |editor1সম্পাদক১-firstপ্রথমাংশ=Sirajul |editor1সম্পাদক১-linkসংযোগ=Sirajul Islam |editor2সম্পাদক২-lastশেষাংশ=Jamal |editor2সম্পাদক২-firstপ্রথমাংশ=Ahmed A. |titleশিরোনাম=Banglapedia: National Encyclopedia of Bangladesh |editionসংস্করণ=Second |publisherপ্রকাশক=[[Asiatic Society of Bangladesh]]|languageভাষা=ইংরেজি}}</ref>
| length = {{convertরূপান্তর|2,090|km|mi|abbr=on}}
| width = {{convertরূপান্তর|1,610|km|mi|abbr=on}}
| area = {{convertরূপান্তর|2,172,000|km2|sqmi|abbr=on}}
| depth = {{convertরূপান্তর|2,600|m|ft|abbr=on}}
| max-depth = {{convertরূপান্তর|4,694|m|ft|abbr=on}}
}}
'''বঙ্গোপসাগর''' হল বিশ্বের বৃহত্তম [[উপসাগর]]।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|titleশিরোনাম=Bay of Bengal|urlইউআরএল=http://www.wcs.org/where-we-work/oceans/bay-of-bengal.aspx|publisherপ্রকাশক=Wildlife Conservation Society|accessdateসংগ্রহের-তারিখ=1 December 2012|languageভাষা=ইংরেজি}}</ref> এটি [[ভারত মহাসাগর|ভারত মহাসাগরের]] উত্তর অংশে অবস্থিত একটি প্রায় ত্রিভূজাকৃতি উপসাগর। এই উপসাগরের পশ্চিম দিকে রয়েছে [[ভারত]] ও [[শ্রীলঙ্কা]], উত্তর দিকে রয়েছে ভারত ও [[বাংলাদেশ]] এবং পূর্ব দিকে রয়েছে [[মায়ানমার]] [[মায়ানমার|ও থাইল্যান্ড।]] '''বঙ্গোপসাগরের ঠিক মাঝখানে বিরাজ করছে ভারতবর্ষের''' [[আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ]]।
 
বঙ্গোপসাগরের আয়তন {{convertরূপান্তর|2,172,000|km2}}। একাধিক বড়ো নদী এই উপসাগরে এসে মিশেছে। এগুলির মধ্যে উল্লেখযোগ্য [[গঙ্গা নদী|গঙ্গা]] ও তার প্রধান দুই শাখানদী [[পদ্মা নদী|পদ্মা]] ও [[হুগলি নদী|হুগলি]], [[ব্রহ্মপুত্র নদ|ব্রহ্মপুত্র]] ও তার উশাখানদী [[যমুনা নদী (বাংলাদেশ)|যমুনা]] ও [[মেঘনা নদী|মেঘনা]], [[ইরাবতী নদী|ইরাবতী]], [[গোদাবরী নদী|গোদাবরী]], [[মহানদী নদী|মহানদী]], [[কৃষ্ণা নদী|কৃষ্ণা]], সুবর্ণরেখা, [[কাবেরী নদী|কাবেরী ইত‍্যাদি নদী]]<nowiki/>সমূহ। বঙ্গোপসাগরের নিকটবর্তী গুরুত্বপূর্ণ বন্দরগুলি হল [[চেন্নাই]], [[চট্টগ্রাম]], [[কলকাতা]], [[মঙ্গলা|হলদিয়া, মঙ্গলা]], [[পারাদীপ]], [[টুটিকোরিন]], [[বিশাখাপত্তনম]] ও [[ইয়াঙ্গন]]। বিশ্বের বৃহত্তম সমুদ্রসৈকত [[কক্সবাজার]] এই উপসাগরের তীরে [[বাংলাদেশ]] রাষ্ট্রে অবস্থিত। এই উপসাগরের তীরে অবস্থিত বিখ‍্যাত পর্যটন কেন্দ্রগুলি হল [[আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ]], চেন্নাই, পুুুরি, বিশাখাপট্টনম, সুুুুন্দরবন, দিঘা, ফুকে, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, ত্রিংকোমালি ইত‍্যাদি।
 
[[চিত্র:Fishing boat on Bay of Bengal.JPG|right|thumb|বঙ্গোপসাগরে জেলে নৌকার দৃশ্য]]
 
== বিস্তার ==
[[ইন্টারন্যাশানাল হাইড্রোগ্রাফিক অর্গানাইজেশন]] বঙ্গোপসাগরের যে সীমারেখা নির্দিষ্ট করে দিয়েছে, সেটি নিম্নরূপ:<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|urlইউআরএল=http://www.iho-ohi.net/iho_pubs/standard/S-23/S23_1953.pdf|titleশিরোনাম=Limits of Oceans and Seas, 3rd edition|yearবছর=1953|publisherপ্রকাশক=International Hydrographic Organization|accessdateসংগ্রহের-তারিখ=7 February 2010|আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20111008191433/http://www.iho-ohi.net/iho_pubs/standard/S-23/S23_1953.pdf|আর্কাইভের-তারিখ=৮ অক্টোবর ২০১১|অকার্যকর-ইউআরএল=হ্যাঁ}}</ref>
 
::পূর্ব দিকে:'' মায়ানমারের [[নেগ্রাইস অন্তরীপ]] (১৬°০৩' উত্তর) থেকে একটি রেখা [[আন্দামান দ্বীপপুঞ্জ|আন্দামানের]] বৃহদায়তন দ্বীপগুলির উপর দিয়ে এমনভাবে টানা হয়েছে, যাতে দ্বীপগুলির মধ্যভাগের সংকীর্ণ জলভাগ রেখার পূর্ব দিকে পড়ে এবং বঙ্গোপসাগর থেকে বিচ্ছিন্ন থাকে। এই রেখাটি [[লিটল আন্দামান দ্বীপ]] (১০°৪৮' উত্তর অক্ষরেখা ও ৯২°২৪' পূর্ব দ্রাঘিমা রেখা) পর্যন্ত প্রসারিত। তারপর [[আন্দামান সাগর|মায়ানমার সাগরের]] দক্ষিণপশ্চিম সীমা পর্যন্ত বঙ্গোপসাগরের সীমা প্রসারিত। ([[সুমাত্রা|সুমাত্রার]] ওয়েজং রাজা ({{স্থানাঙ্ক|5|32|N|95|12|E|display=inline}}) থেকে পোয়েলো ব্রু পর্যন্ত একটি রেখা [[নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ|নিকোবর দ্বীপপুঞ্জের]] পশ্চিম দিকের দ্বীপগুলির উপর দিয়ে এমনভাবে প্রসারিত, যাতে দ্বীপগুলির মধ্যভাগের সংকীর্ণ জলভাগ মায়ানমার সাগরে পড়ে। এই রেখাটি দক্ষিণে লিটল আন্দামান দ্বীপের স্যান্ডি পয়েন্ট পর্যন্ত প্রসারিত।
 
== নামকরণ ==
প্রাচীন [[হিন্দুধর্ম|হিন্দু]] শাস্ত্রে বঙ্গোপসাগরকে বলা হয়েছে ‘মহোদধি’ ([[সংস্কৃত ভাষা|সংস্কৃত]]: महोदधि, অর্থাৎ, বিরাট জলাধার)।<ref name="Kuttan">{{বই উদ্ধৃতি | urlইউআরএল=https://books.google.com/books?id=nERVRxj22W0C&pg=PA243 | titleশিরোনাম=The Great Philosophers of India | publisherপ্রকাশক=AuthorHouse | authorলেখক=Kuttan | yearবছর=2009 | isbnআইএসবিএন=978-1434377807}}</ref><ref name="indiatourism4u">{{ওয়েব উদ্ধৃতি | urlইউআরএল=http://www.indiatourism4u.in/tourism/960/Tamil-Nadu/Dhanushkodi/ | titleশিরোনাম=Dhanushkodi | publisherপ্রকাশক=indiatourism4u.in | accessdateসংগ্রহের-তারিখ=21 August 2013 | আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20140308014348/http://www.indiatourism4u.in/tourism/960/Tamil-Nadu/Dhanushkodi | আর্কাইভের-তারিখ=৮ মার্চ ২০১৪ | অকার্যকর-ইউআরএল=হ্যাঁ }}</ref> প্রাচীন মানচিত্রগুলিতে এই উপসাগরটি ''সাইনাস গ্যাঞ্জেটিকাস'' বা ''গ্যাঞ্জেটিকাস সাইনাস'' নামে পরিচিত। এই কথা দুটির অর্থ গঙ্গা উপসাগর। <ref>[[commons:File:1794 Anville Map of the Ancient World - Geographicus - AncientWorld-anville-1794.jpg|1794, Orbis Veteribus Notus by Jean Baptiste Bourguignon d'Anville]]</ref>
 
বঙ্গোপসাগরের অন্যান্য সংস্কৃত নামগুলি হল ‘বঙ্গোপসাগর’ (সংস্কৃত: वङ्गोपसागर), বঙ্গসাগর (সংস্কৃত: वङ्गसागर) ও পূর্বপয়োধি (সংস্কৃত:पूर्वपयोधि, পূর্ব মহাসাগর)।
== সমুদ্র সৈকতসমূহ ==
[[চিত্র:Sunrise @ Digha.jpg|thumb|right|দীঘা সমুদ্র সৈকতে সূর্যাস্ত।]]
[[চিত্র:Cox's Bazar boats.jpg|thumb|[[কক্সবাজার]], বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিস্তৃত সমুদ্র সৈকত। <ref>{{সংবাদ উদ্ধৃতি| urlইউআরএল=http://www.smh.com.au/news/travel/the-worlds-longest-beach/2007/01/31/1169919381993.html | workকর্ম=The Sydney Morning Herald | titleশিরোনাম=বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিস্তৃত সমুদ্র সৈকত| dateতারিখ=January 31, 2007}}</ref>]]
[[চিত্র:St Martin Island Boat.JPG|thumbnail|right| সেন্ট মার্টিন্স দ্বীপ, বাংলাদেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ]]
 
 
===নৌ ভূতত্ত্ব===
সোয়াচ অব নো গ্রাউন্ড হচ্ছে একটি ১৪ কিলোমিটার ব্যাপী বঙ্গোপসাগরের গভীর সমুদ্রের গভীর খাদ। গভীরতম এই উপত্যকা রেকর্ড আয়তন প্রায় ১৩৪০ মিটার।<ref>[http://drs.nio.org/drs/bitstream/2264/449/1/J_Indian_Geophys_Union_4_185.pdf Morphological features in the Bay of Bengal] {{ওয়েব আর্কাইভ|ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20070614214602/http://drs.nio.org/drs/bitstream/2264/449/1/J_Indian_Geophys_Union_4_185.pdf |তারিখ=১৪ জুন ২০০৭ }} URL accessed 21 January 2007</ref> এখানকার ডুবো গিরিখাত বঙ্গ পাখার অংশ, যা বিশ্বের বৃহত্তম ডুবো গিরিখাত।<ref name=mpgCurray>{{সাময়িকী উদ্ধৃতি|lastশেষাংশ=Curray|firstপ্রথমাংশ=Joseph R.|author2লেখক২=Frans J. Emmel|author3লেখক৩=David G. Moore|titleশিরোনাম=The Bengal Fan: morphology, geometry, stratigraphy, history and processes|journalসাময়িকী=[[Marine and Petroleum Geology]]|dateতারিখ=December 2002|volumeখণ্ড=19|issueসংখ্যা নং=10|pagesপাতাসমূহ=1191–1223|doiডিওআই=10.1016/S0264-8172(03)00035-7|publisherপ্রকাশক=Elsevier Science Ltd}}</ref><ref name=whoi-bf-mar2000>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|lastশেষাংশ=France-Lanord|firstপ্রথমাংশ=Christian|titleশিরোনাম=Summary on the Bengal Fan: An introduction to a drilling proposal|urlইউআরএল=http://www.whoi.edu/pclift/BengalSummary.pdf|publisherপ্রকাশক=Woods Hole Oceanographic Institution|author2লেখক২=Volkhard Spiess |author3লেখক৩=Peter Molnar |author4লেখক৪=Joseph R. Curray |dateতারিখ=March 2000}}</ref>
 
== ঘূর্ণিঝড় ও ঘূর্ণিবাত্যা ==
১,৭০,৪৭২টি

সম্পাদনা