"এদিনসন কাভানি" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
(বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।)
কাভানি তার কর্মজীবন শুরু করেন মন্তেভিদিও শহরের দানুবিও নামক ক্লাবে। সেখানে তিনি দুই বছর খেলেন। এরপর ২০০৭ সালে তিনি যোগ দেন [[ইউ.এস. চিত্তা দি পালেরমো|পালেরমো]]তে। তিনি ক্লাবে চারটি মৌসুম কাটান এবং লীগের ১০৯ খেলায় ৩৪ গোল করেন। ২০১০ সালে, কাভানি যোগ দেন [[এস.এস.সি. নাপোলি|নাপোলিতে]]। ২০১১–১২ মৌসুমে, তিনি ক্লাবের হয়ে কোপা ইতালিয়া শিরোপা জিতেন। যা ক্লাবের হয়ে তার প্রথম সম্মাননা। ঐ প্রতিযোগিতায় তিনি ৫ গোল করে শীর্ষ গোলদাতা হন। নাপোলির হয়ে প্রথম দুই মৌসুমে কাভানি ৩৩টি করে গোল করেন এবং তৃতীয় মৌসুমে ৩৮টি গোল করে মৌসুমে সিরি এ এর সর্বোচ্চ গোলদাতা হন। ২০১৩ সালের ১৬ জুলাই, ৬৪ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে [[পারি সাঁ-জের্‌মাঁ ফুটবল ক্লাব|পিএসজিতে]] স্থানান্তরিত হন কাভানি।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://uk.eurosport.yahoo.com/news/serie-cavani-completes-blockbuster-move-psg-161808142.html|শিরোনাম=Ligue 1 - Cavani completes blockbuster £55.4m move to PSG|তারিখ=১৬ জুলাই ২০১৩|সংগ্রহের-তারিখ=৪ ডিসেম্বর ২০১৩|কর্ম=ইয়াহু}}</ref>
 
[[উরুগুয়ে জাতীয় ফুটবল দল|জাতীয় দলের]] হয়ে কাভানির অভিষেক হয় ২০০৮ সালে ফেব্রুয়ারি ৬[[কলম্বিয়া জাতীয় ফুটবল দল|কলম্বিয়ার]] বিপক্ষে। তিনি উরুগুয়ের হয়ে [[২০১০ ফিফা বিশ্বকাপ]] এবং [[২০১১ কোপা আমেরিকা]]য় অংশগ্রহনঅংশগ্রহণ করেন। ২০১০ বিশ্বকাপে তিনি একটি গোল করেন, প্রতিযোগিতায় উরুগুয়ে চতুর্থ হয়। তিনি উরুগুয়ে দলের সদস্য হিসেবে ২০১১ কোপা আমেরিকা শিরোপা জিতেন, যা উরুগুয়ের রেকর্ড ১৫তম শিরোপা।
 
== তথ্যসূত্র ==
১,৭৮,৫৭৪টি

সম্পাদনা