"লেন মাডকস" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।
(সম্প্রসারিত রূপ!)
(বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।)
 
== খেলোয়াড়ী জীবন ==
[[গিল ল্যাংলি|গিল ল্যাংলি’র]] সাথে গ্লাভস ভাগাভাগি করে নিতেন লেন মাডকস। ল্যাংলি আহত হলে তিনি তাঁরতার স্থলাভিষিক্ত হতেন। কিন্তু, [[ডন টলন]] এবং [[ওয়ালি গ্রাউট|ওয়ালি গ্রাউটের]] কাছ থেকে প্রচণ্ড চাপের মুখোমুখি হতে হতো তাঁকে।তাকে। অস্ট্রেলিয়ার অন্যতম [[অস্ট্রেলীয় টেস্ট উইকেট-রক্ষকদের তালিকা|সেরা গ্লাভসম্যান]] হওয়া স্বত্ত্বেও তিনি মাত্র সাতটি টেস্টে অংশ নিতে পেরেছিলেন।
 
১৯৫৬ সালে ম্যানচেস্টারের [[ওল্ড ট্রাফোর্ড ক্রিকেট গ্রাউন্ড|ওল্ড ট্রাফোর্ডে]] অনুষ্ঠিত স্বাগতিক [[ইংল্যান্ড ক্রিকেট দল|ইংল্যান্ডের]] প্রথিতযশা [[বোলিং (ক্রিকেট)|বোলার]] জিম লেকারের টেস্টে এক [[ইনিংস|ইনিংসের]] সবকটি [[উইকেট]] লাভের দশম ব্যাটসম্যান হিসেবে [[লেগ বিফোর উইকেট|এলবিডব্লিউতে]] আউট হলে তাঁকেতাকে মাঠ ছেড়ে চলে আসতে হয়। ‘লেকারের খেলা’ নামে পরিচিত ঐ টেস্টে ১৯ উইকেট দখল করেছিলেন [[জিম লেকার]]। বলাবাহুল্য, ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের কাছে তাঁরতার দল ঐ টেস্টে পরাজিত হয়েছিল।
 
== অবসর ==
প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট থেকে অবসর নেয়ার পর ক্রিকেট প্রশাসকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হন তিনি। কিন্তু, [[দি অ্যাশেজ#1950 to 1980|১৯৭৭]] সালের [[অ্যাশেজ সিরিজের তালিকা|অ্যাশেজ]] সফরে ৩-০ ব্যবধানে সিরিজ পরাজিত হয় অস্ট্রেলিয়া। এছাড়াও, তাঁরতার ব্যবস্থাপকীয় কর্মপন্থা নির্ধারণের ফলে [[বিশ্ব সিরিজ ক্রিকেট|বিশ্ব সিরিজ ক্রিকেটে]] দ্বিধাবিভক্ত হয়ে পড়ে তাঁরতার নিজ দল।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি | ইউআরএল = http://www.espncricinfo.com/magazine/content/story/562558.html| শিরোনাম = Len Maddocks counts his blessings| প্রথমাংশ = Brydon | শেষাংশ= Coverdale| লেখক-সংযোগ = Brydon Coverdale| তারিখ=26 April 2012}}</ref>
 
রিচার্ড মাডকস নামে তাঁরতার এক ভাই রয়েছে। তাঁরতার পুত্র ইয়ান মাডকসও রিচার্ডের পদাঙ্ক অনুসরণ করে ভিক্টোরিয়ার পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট খেলেছেন। ২২ আগস্ট, ২০১৫ তারিখে তৎকালীন উদ্বোধনী বামহাতি ব্যাটসম্যান [[আর্থার মরিস|আর্থার মরিসের]] দেহাবসানের পর তিনিই সর্বাপেক্ষা বয়ষ্ক অস্ট্রেলীয় টেস্ট ক্রিকেটার ছিলেন।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://stats.espncricinfo.com/ci/content/records/283742.html |শিরোনাম=List of oldest living Test players |প্রকাশক=Stats.espncricinfo.com |তারিখ= |সংগ্রহের-তারিখ=22 August 2015}}</ref> পরের মাসে হ্যারল্ড স্ট্যাপলটনের মৃত্যুর পর ও স্বীয় মৃত্যুর পূর্ব-পর্যন্ত তিনিই ছিলেন অস্ট্রেলিয়ার প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে জীবিত ব্যক্তি।<ref>(24 September 2015). [http://www.cricket.com.au/news/harold-stapleton-passes-away-australia-oldest-first-class-cricketer-cricket-nsw/2015-09-24 "Australia's oldest cricketer dies, aged 100"] – cricket.com.au. Retrieved 29 February 2016.</ref>
 
== তথ্যসূত্র ==
১,৮২,৩৮১টি

সম্পাদনা