"অনূঢ়া তেনেকুন" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।
(5টি উৎস উদ্ধার করা হল ও 0টি অকার্যকর হিসেবে চিহ্নিত করা হল। #IABot (v2.0beta10))
(বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।)
 
== প্রারম্ভিক জীবন ==
ছয় বছর বয়সে অনুরাধাপুরা থেকে [[কলম্বো|কলম্বোয়]] স্থানান্তরিত হন। সেখানে মাউন্ট লাভিনিয়ায় অবস্থিত এস. টমাস কলেজে অধ্যয়ন করেন। সেখানে তিনি স্কুল হোস্টেলে অবস্থান করেন। ক্রিকেটের প্রতি আসক্তির কারণে স্কুল ক্রিকেট দলের সদস্য হন।<ref name="spirit">{{সংবাদ উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.sundayobserver.lk/2009/11/22/spo06.asp|শিরোনাম=Anura Tennekoon – spirit of cricket|শেষাংশ=Wijesinghe|প্রথমাংশ=Rohan|তারিখ=22 November 2009|কর্ম=Sunday Observer|সংগ্রহের-তারিখ=2 April 2010|আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20091129204317/http://www.sundayobserver.lk/2009/11/22/spo06.asp#|আর্কাইভের-তারিখ=২৯ নভেম্বর ২০০৯|অকার্যকর-ইউআরএল=হ্যাঁ}}</ref> এরপর থোমিয়ান ক্রিকেট দলের অধিনায়কত্ব করেন।<ref name="thomian">{{সংবাদ উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.island.lk/2002/03/03/sports14.html|শিরোনাম=The "Battle of the Blues" and its reminiscences|শেষাংশ=Manamendra|প্রথমাংশ=Renu |তারিখ=3 March 2002|কর্ম=The Island|সংগ্রহের-তারিখ=2 April 2010}}</ref> ১৯৬৪ সালে সেরা ছাত্র হিসেবে বর্ষসেরা ব্যাটসম্যান মনোনীত হন। তাঁরতার পূর্ববর্তী মৌসুমের [[ব্যাটিং গড়]] ছিল ৫৬.৮৪ ও তিনি সর্বসাকুল্যে ৫১৩ রান তোলেন।<ref>{{সংবাদ উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://sundaytimes.lk/090823/Sports/sp_04.html|শিরোনাম=Fifty years hence and the contest goes on|শেষাংশ=Akbar|প্রথমাংশ=Rangi |তারিখ=23 August 2009|কর্ম=The Sunday Times|সংগ্রহের-তারিখ=2 April 2010}}</ref> এরপর ১৯৬৬ সালে সিলন দলের (বর্তমানে শ্রীলঙ্কা) পক্ষে ও সফরকারী ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথমবারের মতো [[প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট|প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে]] অংশগ্রহণ করেন। এরপর [[সিংহলীজ স্পোর্টস ক্লাব|সিংহলীজ স্পোর্টস ক্লাবে]] (এসএসসি) চলে যান। এছাড়াও [[Ceylon Board President's XI|সিলন বোর্ড সভাপতি একাদশের]] পক্ষেও খেলেছেন তেনেকুন।<ref name="spirit" /> ১৯৭৪ সালে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে ভারতের বিপক্ষে নিজস্ব সেরা অপরাজিত ১৬৯* রান তোলেন। টেস্ট মর্যাদা লাভের পূর্বে তাঁরতার এ সংগ্রহটিই যে-কোন শ্রীলঙ্কান ব্যাটসম্যানের মধ্যে সর্বোচ্চ ছিল।<ref name="thomian" /><ref name="firstcaptain">{{সংবাদ উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.sundayobserver.lk/2004/02/01/spo08.html|শিরোনাম=So, Royal really lost 1885 match to S. Thomas'|শেষাংশ=Manamendra|প্রথমাংশ=Renu|তারিখ=1 February 2004|কর্ম=Sunday Observer|সংগ্রহের-তারিখ=2 April 2010|আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20110605113817/http://www.sundayobserver.lk/2004/02/01/spo08.html#|আর্কাইভের-তারিখ=৫ জুন ২০১১|অকার্যকর-ইউআরএল=হ্যাঁ}}</ref> পরিচ্ছন্ন ব্যাটসম্যান হিসেবে তিনি খ্যাতি লাভ করেন।
 
== খেলোয়াড়ী জীবন ==
শ্রীলঙ্কা দলের পক্ষে [[একদিনের আন্তর্জাতিক|একদিনের আন্তর্জাতিকে]] [[Cap (sports)|নবম ক্যাপ]] পরিধান করেন তিনি।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.cricinfo.com/srilanka/content/player/caps.html?country=8;class=2|শিরোনাম=Sri Lanka Players by Caps (ODI)|প্রকাশক=Cricinfo.com|সংগ্রহের-তারিখ=2 April 2010|আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20100424032259/http://www.cricinfo.com/srilanka/content/player/caps.html?country=8;class=2#|আর্কাইভের-তারিখ=২৪ এপ্রিল ২০১০|অকার্যকর-ইউআরএল=না}}</ref> সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে ৪টি ওডিআইয়ে অংশ নেন ও সবকটিতেই দলের অধিনায়ক মনোনীত হন।
 
১৯৭৫ সালে শ্রীলঙ্কা প্রথমবারের মতো ক্রিকেট বিশ্বকাপে অংশ নেয়। ৭ জুন, ১৯৭৫ তারিখে [[ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দল|ওয়েস্ট ইন্ডিজের]] বিপক্ষে তাঁরতার একদিনের আন্তর্জাতিকে অভিষেক ঘটে। কিন্তু ঐ খেলায় তাঁরতার দল মাত্র ৮৬ রানে গুটিয়ে যায়। তিনিও ঐ খেলায় [[বার্নার্ড জুলিয়েন|বার্নার্ড জুলিয়ানের]] বলে [[David Murray (cricketer)|ডেভিড মারের]] হাতে কট আউট হন ও [[শূন্য রান|শূন্য রানে]] প্যাভিলিয়নে গমন করেন।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.cricinfo.com/ci/engine/match/65038.html|শিরোনাম=Prudential World Cup – 4th match, Group B|প্রকাশক=Cricinfo.com|সংগ্রহের-তারিখ=2 April 2010|আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20100420075231/http://www.cricinfo.com/ci/engine/match/65038.html#|আর্কাইভের-তারিখ=২০ এপ্রিল ২০১০|অকার্যকর-ইউআরএল=না}}</ref> ঐ প্রতিযোগিতাসহ ১৯৭৯ সালের প্রতিযোগিতায়ও তিনি দলের অধিনায়ক ছিলেন।<ref name="firstcaptain" /><ref>{{সংবাদ উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://news.bbc.co.uk/sport2/hi/cricket/tms/6450505.stm|শিরোনাম= Stump the Bearded Wonder No 142|প্রকাশক=BBC Sport|সংগ্রহের-তারিখ=2 April 2010 | তারিখ=14 March 2007}}</ref> কিন্তু ১৯৭৯ সালে আঘাতপ্রাপ্তির ফলে প্রতিযোগিতায় তিনি তেমন প্রভাব বিস্তার করতে পারেননি। তাঁরতার পরিবর্তে দলের অধিনায়কত্ব করেন [[বান্দুলা ওয়ার্নাপুরা]]।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.cricinfo.com/wisdenalmanack/content/story/150318.html|শিরোনাম=Prudential World Cup 1979, fifth Group B match|কর্ম=Wisden|প্রকাশক=Cricinfo.com|সংগ্রহের-তারিখ=2 April 2010}}</ref>
 
== অবসর ==
১৯৮২ সালে [[আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল|আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের]] [[আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের সদস্যদের তালিকা|পূর্ণাঙ্গ সদস্য]] হবার ফলে শ্রীলঙ্কা দলের টেস্ট মর্যাদাপ্রাপ্তি ঘটে। এর দুই বছর পূর্বে তিনি অবসর নেন। এ অর্জনের সাথে শ্রীলঙ্কার অন্যান্য খেলোয়াড়ের সাথে তেনেকুনেরও যথেষ্ট অবদান রয়েছে।<ref name="firstcaptain" />
 
ক্রিকেট খেলা থেকে অবসর নেয়ার পর তাঁকেতাকে [[Sri Lanka A cricket team|শ্রীলঙ্কা এ ক্রিকেট দলের]] ম্যানেজারের দায়িত্ব দেয়া হয়।<ref name="spirit" /> ডিসেম্বর, ২০০০ থেকে ২০০৩-এর শেষার্ধ্ব পর্যন্ত শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করেন। এর কারণ হিসেবে ব্যক্তিগত সমস্যা তুলে ধরেন।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.cricinfo.com/srilanka/content/story/132757.html|শিরোনাম=Tennekoon to step down as CEO of Sri Lankan board|শেষাংশ=Austin |প্রথমাংশ=Charlie|তারিখ=10 October 2003|প্রকাশক=Cricinfo.com|সংগ্রহের-তারিখ=2 April 2010}}</ref> ২০০৯ সালে তিনি জাতীয় ক্রিকেট দলের নির্বাচকমণ্ডলীর সদস্য মনোনীত হন।<ref>{{সংবাদ উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.sundayobserver.lk/2009/05/31/spo15.asp|শিরোনাম=Three new cricket selectors|তারিখ=31 May 2009|কর্ম=Sunday Observer|সংগ্রহের-তারিখ=2 April 2010|আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20090721155841/http://www.sundayobserver.lk/2009/05/31/spo15.asp#|আর্কাইভের-তারিখ=২১ জুলাই ২০০৯|অকার্যকর-ইউআরএল=হ্যাঁ}}</ref>
 
== তথ্যসূত্র ==
১,৮২,৩৮১টি

সম্পাদনা