"জনি ক্যাশ" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

১টি উৎস উদ্ধার করা হল ও ০টি অকার্যকর হিসেবে চিহ্নিত করা হল।) #IABot (v2.0
(অনুবাদজনিত ত্রুটি)
(১টি উৎস উদ্ধার করা হল ও ০টি অকার্যকর হিসেবে চিহ্নিত করা হল।) #IABot (v2.0)
জনি ক্যাশ ০২ ফেব্রুয়ারী, ১৯৩২ সালে আরকানসাসের কিংসল্যান্ডে {{Sfn|Miller|2003}} <ref>Ellis, A. (2004, 01). "The man in black: Johnny cash, 1932–2003". ''Guitar Player,'' 38, 31–32, 34.</ref> জন্মগ্রহণ করেছিলেন। ক্যারি ক্লোভারি ( ''ন্যা'' রিভার্স) এবং রে ক্যাশের সাত সন্তানের মধ্যে তিনি ছিলেন চতুর্থ : রয়, মার্গারেট লুইস, জ্যাক, জে.আর., রেবা, জোয়ান এবং টমি (যিনি পরবর্তীতে সফল কান্ট্রি আর্টিস্ট হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন)। । জন মূলতঃ ইংরেজ এবং স্কটিশ বংশোদ্ভূত। <ref name="Memoir1">{{বই উদ্ধৃতি|শিরোনাম=A memoir|শেষাংশ=Cash|প্রথমাংশ=Roseanne|বছর=2010|প্রকাশক=Viking Press|আইএসবিএন=978-1-101-45769-6}}</ref> বড় হয়ে তিনি নিজের পারিবারিক নামের সঙ্গে একাদশ শতকের ফাইফ উপদ্বীপের সংযোগ আবিষ্কার করেন। এই তথ্য তাঁকে জানিয়েছিলেন তৎকালীন ফলল্যান্ডের লেয়ার্ড মেজর মাইকেল ক্রিকটন স্টুয়ার্ট। {{Sfn|Miller|2003}} <ref>{{বই উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://books.google.com/books|শিরোনাম=Cash: The Autobiography|শেষাংশ=Cash|প্রথমাংশ=Johnny|শেষাংশ২=Carr|প্রথমাংশ২=Patrick|তারিখ=2003|প্রকাশক=Harper Collins|পাতা=3|আইএসবিএন=0060727535|সংগ্রহের-তারিখ=February 26, 2019}}</ref> ক্যাশ লক এবং ফাইফের অন্যান্য কিছু জায়গার নামের সঙ্গে তাঁর পূর্বপুরুষদের নাম মিশে আছে। {{Sfn|Miller|2003}}
 
জন্মের সময় ক্যাশের নাম ছিল জে.আর. ক্যাশ। <ref>{{বই উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://books.google.com/books?id=vO15ig_GBI0C&pg=PA31|শিরোনাম=Johnny Cash: a biography|শেষাংশ=Streissguth|প্রথমাংশ=M.|বছর=2006|প্রকাশক=Da Capo|পাতা=6|আইএসবিএন=9780306815911}}</ref> পরবর্তীতে [[ইউনাইটেড স্টেটস এয়ার ফোর্স|মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বিমান বাহিনীতে]] যোগদানের সময় প্রথম নাম হিসাবে আদ্যক্ষর ব্যবহার করার অনুমতি দেওয়া হয়নি, কাজেই জে.আর. ক্যাশ নামটিকে জন আর. ক্যাশে পরিণত করতে বাধ্য হন। ১৯৫৫ সালে সান রেকর্ডসে স্বাক্ষর করার সময়, তিনি ''জনি'' ক্যাশ নামটি ব্যবহার শুরু করেন। <ref name="Streissguth_profile">{{বই উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://books.google.com/books?id=BBRDZoBeI88C|শিরোনাম=Johnny Cash: a biography|শেষাংশ=Streissguth|প্রথমাংশ=M.|বছর=2006|প্রকাশক=Da Capo|পাতা=196|আইএসবিএন=9780306813689}}</ref>
 
১৯৩৫ সালের মার্চ মাস, ক্যাশের বয়স তখন মাত্র তিন বছর, পরিবারটি আরকানসাসের ডাইসে বসবাস শুরু করে। ওটা ছিল একটি নিউ ডিল কলোনী, দরিদ্র পরিবারগুলিকে জমি দেওয়ার হচ্ছিল যেটা পরে তাদের হয়ে যাবে। <ref name="Bowden">{{সংবাদ উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.arkansasonline.com/news/2018/may/05/national-register-accepts-cash-boyhood-/|শিরোনাম=National Register accepts Johnny Cash boyhood home in Arkansas|শেষাংশ=Bowden|প্রথমাংশ=Bill|তারিখ=May 5, 2018|কর্ম=ArkansasOnline|সংগ্রহের-তারিখ=May 7, 2018|আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20180505231153/http://www.arkansasonline.com/news/2018/may/05/national-register-accepts-cash-boyhood-/|আর্কাইভের-তারিখ=May 5, 2018|অকার্যকর-ইউআরএল=no|প্রকাশক=[[Arkansas Democrat-Gazette]]}}</ref> পাঁচ বছর বয়স থেকে, ক্যাশ তার পরিবারের সাথে তুলো চাষ করতেন, গলা ছেড়ে গান করতেন ফসলের জমিতে। ডাইসে একবার বন্যা হয়, ''ক্যাশ শস্যভান্ডার'' বেশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল তাতে, এর প্রেক্ষিতে ক্যাশ "ফাইভ ফিট হাই অ্যান্ড রাইজিং" গানটি লিখেছিলেন । <ref>{{বই উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://books.google.com/books|শিরোনাম=Cash: The Autobiography|শেষাংশ=Cash|প্রথমাংশ=Johnny|শেষাংশ২=Carr|প্রথমাংশ২=Patrick|তারিখ=2003|প্রকাশক=Harper Collins|পাতা=20|আইএসবিএন=0060727535|সংগ্রহের-তারিখ=February 26, 2019}}</ref> [[মহামন্দা|মহামন্দার]] সময় তাঁর পরিবারের অর্থনৈতিক ও ব্যক্তিগত লড়াই তাঁর অনেক গানকে অনুপ্রাণিত করেছিল, বিশেষত যারা একই রকম সমস্যার মুখোমুখি হয়েছেন তারা এসব গানের মধ্যে নিজেদের খুঁজে পেতেন। ফলস্বরূপ, ক্যাশের সব কাজেই দরিদ্র ও শ্রমিক শ্রেণীর প্রতি সহানুভূতি ফুটে উঠেছিল।
 
ক্যাশের বড় ভাই জ্যাক ছিলেন তার বেশ ঘনিষ্ঠ। শনিবার, ১৩ ই মে, ১৯৪৪, <ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://folsomcasharttrail.com/blog/articles/postid/50/why-did-johnny-cash-always-wear-black-25-facts-about-americas-outlaw|শিরোনাম=WHY DID JOHNNY CASH ALWAYS WEAR BLACK? 25 FACTS ABOUT AMERICA'S OUTLAW|সংগ্রহের-তারিখ=2019-06-21}}</ref> হাইস্কুলের চাকরিক্ষেত্রে তিনি এক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হন। ওক কাঠের বেড়া কাটার টেবিল-স'তে এই দুর্ঘটনা ঘটে। জ্যাক প্রায় দু'টুকরো হয়ে যান, এক সপ্তাহ পর একই কারণে মৃত্যুবরণ করেন। <ref>{{বই উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://books.google.com/books|শিরোনাম=Cash: The Autobiography|শেষাংশ=Cash|প্রথমাংশ=Johnny|শেষাংশ২=Carr|প্রথমাংশ২=Patrick|তারিখ=2003|প্রকাশক=Harper Collins|পাতাসমূহ=24–26|আইএসবিএন=0060727535|সংগ্রহের-তারিখ=February 26, 2019}}</ref> ভাইয়ের এই দুঃখজনক মৃত্যুর কারণে ক্যাশ অপরাধবোধ অনুভব করেছিলেন, এ ব্যাপারে প্রায়ই কথা বলেছেন জীবনের বিভিন্ন সময়। ''ক্যাশ'' '': দ্য অটোবায়োগ্রাফি'' বই থেকে এ ব্যাপারে জানা যায়, তাঁর বাবা সেদিন সকালে বাড়ি ছিলেন না। জনি, তাঁর মা, এমনকি জ্যাক নিজেও সেদিন ভাবছিলেন খারাপ কিছু ঘটবে। তার মা জ্যাককে কাজে না গিয়ে ভাইয়ের সাথে মাছ ধরার জন্য অনুরোধ করেছিলেন, তবে পরিবারটির তখন টাকার খুব প্রয়োজন। জ্যাক একরকম জোর করেই সেদিন কাজে যান এবং আহত হন। মৃত্যুর আগে জ্যাক বলেছিলেন যে তিনি স্বর্গ ও ফেরেশতাদের দেখতে পাচ্ছেন। কয়েক দশক পরে, ক্যাশ বলেছিলেন স্বর্গে তার ভাইয়ের সাথে তিনি দর্শনপ্রত্যাশা করেন। <ref name="Streissguth_profile">{{বই উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://books.google.com/books?id=BBRDZoBeI88C|শিরোনাম=Johnny Cash: a biography|শেষাংশ=Streissguth|প্রথমাংশ=M.|বছর=2006|প্রকাশক=Da Capo|পাতা=196|আইএসবিএন=9780306813689}}</ref>
 
প্রাথমিক জীবনে ক্যাশ গসপেল সংগীত এবং রেডিওর দ্বারা অনুপ্রাণিত ছিলেন। মা এবং শৈশবের এক বন্ধু শিখিয়েছিলো গিটার, ক্যাশ ১২ বছর বয়সেই গান বাজানো এবং লেখা শুরু করেন। তরুণ বয়সে ক্যাশের উচ্চ-কণ্ঠ ছিল, পরবর্তীতে তা পাল্টে তার বাস-ব্যারিটোন ধাঁচে রূপান্তরিত হয়। <ref>{{বই উদ্ধৃতি|শিরোনাম=All I Did Was Ask: Conversations with Writers, Actors Musicians, and Artists|শেষাংশ=Gross|প্রথমাংশ=Terry|তারিখ=2004|প্রকাশক=[[Hachette Books]]|পাতা=31|সংস্করণ=Hardcover}}</ref>
 
২০০৩ সালের মে মাসে জুনের মৃত্যুর আগ পর্যন্ত কার্টার আর ক্যাশ একসাথে সন্তানকে বড় করা, সংগীত তৈরি এবং একসাথে ভ্রমণ চালিয়ে যান। বিয়ের পর থেকেই জুন ক্যাশকে অ্যাম্ফিটামিনের নেশা থেকে দূরে রাখার চেষ্টা করেছিলেন। মাঝে মধ্যেই টয়লেটে ওসব ফেলে ফ্ল্যাশ করে দেওয়ার ঘটনা তিনি ঘটিয়েছেন। ক্যাশকে একাধিকবার রিহ্যাবে যেতে হয়েছে তাও, পুরোটা সময় জুন তার সঙ্গেই ছিলেন। জুনের মৃত্যুর পরে ক্যাশ বলেছিলেন তাঁর বেঁচে থাকার একমাত্র কারণ এখন সংগীত। <ref>Puterbaugh, Parke. "Essential Johnny Cash." ''Rolling Stone'', October 16, 2003: 78.
International Index to Music Periodicals Full Text [ProQuest]. Web. June 12, 2016.</ref> স্ত্রীর মৃত্যুর পর ক্যাশ মাত্র চার মাস বেঁচেছিলেন। <ref name="Streissguth_profile">{{বই উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://books.google.com/books?id=BBRDZoBeI88C|শিরোনাম=Johnny Cash: a biography|শেষাংশ=Streissguth|প্রথমাংশ=M.|বছর=2006|প্রকাশক=Da Capo|পাতা=196|আইএসবিএন=9780306813689}}</ref>
 
== পেশা ==
এই দাবানলে ৫০৮ একর বনভূমি ধ্বংস হয়েছিল, তিনটি পাহাড়ের সব পর্ণরাজি পুড়ে চাই হয়ে যায়, সেই সাথে বিপন্নপ্রায় ৫৩ ক্যালিফোর্নিয়ার শকুনের ৪৯ টিই গৃহহীন হয়ে যায়। তথ্যটি জানার পর ক্যাশকে মোটেও অনুতপ্ত হতে দেখা যায়নি। বরং তিনি কেবল বলেছিলেন, “তোমাদের ওসব হলুদ পাখি নিয়ে আমার কোনও মাথাব্যথা নেই!”<ref name="LAT Hilburn">{{সংবাদ উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://articles.latimes.com/2013/oct/12/entertainment/la-et-ms-johnny-cash-calif|শিরোনাম=Johnny Cash's dark California days|শেষাংশ=Hilburn|প্রথমাংশ=Robert|তারিখ=October 12, 2013|কর্ম=[[LA Times]]|সংগ্রহের-তারিখ=20 February 2018}}</ref> ফেডারেল গভর্নমেন্ট তার থেকে ১২৫,১৭২ ডলার ক্ষতিপূরণ দাবী করে, শেষতক মামলাটা মিটমাট হয়েছিল ক্যাশ ৮২,০০১ ডলার দেওয়ার পর। ২০১৭ সালের হিসেবে অনুসারে গোটা বিশ্বেই বন্য এবং সংরক্ষিত সব মিলিয়ে মাত্র ৪৬৩টি ক্যালিফোর্নিয়া কনডোর রয়েছে।
 
এমন এক আইনবিরোধী ইতিহাস থাকার পরও ক্যাশকে কখনও জেলে যেতে হয়নি। সাত বার আদালতে হাজির হয়েছিলেন তিনি, অথচ প্রতিবার হাজতে মাত্র এক রাত কাটিয়েই বেরিয়ে গেছেন তিনি। ১৯৬৫ সালের মে মাসের ১১ তারিখ তাকে স্টার্কভাইলে গ্রেফতার করা হয়েছিল। অপরাধ: অন্যের জমিতে ঢুকে ফুল তুলছিলেন। এই ঘটনার কথা তিনি লিখেছিলেন স্টার্কভাইল সিটি জেইল গানে। একই বছর অক্টবরের ৪ তারিখ টেক্সাসে গ্রেফতার হয়েছিলেন নারকোটিক স্কোয়াডের হাতে। তাদের সন্দেহ ছিল মেক্সিকো থেকে তিনি হেরোইন পাচার করছিলেন। তার বদলে ওরা গায়কের গিটারের মধ্যে খুঁজে পেল ৬৮৮টি ডেক্সাড্রাইন ক্যাপসুল (মূলতঃ অ্যাম্ফিট্যামিন) আর ৪৭৫টি ইকুয়ারিল (সিডেটিভ)। অবৈধ মাদকদ্রব্যর বদলে প্রেসক্রিপশন ড্রাগস নিয়ে ধরা পড়েই বেঁচে গেলেন তিনি। স্বল্প সময়ের জন্য সাজা হল সে যাত্রা। ১৫০০ ডলারের  একটি বন্ড স্বাক্ষর করে তবেই ছাড়া পেয়েছিলেন তিনি। <ref>{{সংবাদ উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://articles.latimes.com/2013/oct/12/entertainment/la-et-ms-johnny-cash-calif/3|শিরোনাম=Johnny Cash's dark California days|শেষাংশ=Hilburn|প্রথমাংশ=Robert|তারিখ=2013-10-12|কর্ম=Los Angeles Times|সংগ্রহের-তারিখ=2018-11-08|ভাষা=en-US|issn=0458-3035|আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20181110203523/http://articles.latimes.com/2013/oct/12/entertainment/la-et-ms-johnny-cash-calif/3|আর্কাইভের-তারিখ=২০১৮-১১-১০|অকার্যকর-ইউআরএল=হ্যাঁ}}</ref>
 
ষাটের দশকের মাঝামাঝি ক্যাশ বেশ কয়েকটি কনসেপ্ট অ্যালবাম প্রকাশ করেন। তার বিটার টিয়ার্স (১৯৬৪) অ্যালবাম তিনি নেটিভ আমেরিকানদের জন্য লিখেছিলেন, বলেছিলেন সরকারের করা তাদের প্রতি যত অনাচারের কথা। হিট চার্টে গানগুলি বেশ জনপ্রিয়তা পেলেও তীব্র সমালোচনা হয়েছিল রেডিও ও ভক্তদের মধ্যে। তাদের ধারণা ছিল এই গানগুলো থেকে সমাজে বিতর্ক জন্ম নিতে পারে। ২০১১ সালে এক বইয়ে এই অ্যালবামের কথা লেখা হওয়ার আগে ব্যাপারটি মানুষ ভুলেই গিয়েছিল। পরবর্তীতে পুরো অ্যালবামটিকেই সমসাময়িক  গায়কদের সহায়তায় রি-রেকর্ড করা হয়। নির্মিত হয় এই অ্যালবামের জন্য ক্যাশের প্রচেষ্টা নিয়ে এক প্রামাণ্যচিত্রও। ২০১৬র ফেব্রূয়ারি ও নভেম্বরে সেই ফিল্ম সম্প্রচারিত হয় পিবিএসে। তার “হিজ সিংস  দ্য ব্যালাডস অফ দ্য টু ওয়েস্ট (১৯৬৫)” ছিল এক পরীক্ষামূলক কাজ, ওখানে প্রান্তিক গায়কদের সঙ্গে কণ্ঠ মিলিয়েছিলেন ক্যাশ।
৫৪,১৫৭টি

সম্পাদনা