"বাংলাদেশ ট্রেড এন্ড ট্যারিফ কমিশন" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

কার্যক্রম সম্প্রসারণ
(হটক্যাটের মাধ্যমে বিষয়শ্রেণী:ঢাকা ভিত্তিক সংগঠন যোগ)
(কার্যক্রম সম্প্রসারণ)
== ইতিহাস ==
বাংলাদেশ ট্যারিফ কমিশন পূর্ব নাম পাকিস্তান ট্যারিফ কমিশন। এটি [[পূর্ব পাকিস্তান]] আমলে আবিষ্কার করা হয়। কমিশনটি ১৯৭৩ সালের ২ জুলাই প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। কমিশন দেশীয় শিল্প সুরক্ষা এবং আমদানি নিয়ন্ত্রণের জন্য দায়বদ্ধ। <ref name="tcb2">{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://en.banglapedia.org/index.php?title=Tariff_Commission|শিরোনাম=Tariff Commission|শেষাংশ=Bala|প্রথমাংশ=Swapan Kumar|ওয়েবসাইট=en.banglapedia.org|প্রকাশক=Banglapedia|ভাষা=en|সংগ্রহের-তারিখ=27 April 2017}}</ref> <ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.thedailystar.net/backpage/transit-gets-operational-1239373|শিরোনাম=Transit gets operational|তারিখ=14 June 2016|ওয়েবসাইট=The Daily Star|ভাষা=en|সংগ্রহের-তারিখ=27 April 2017}}</ref> কমিশন তার নিজস্ব কমিশনার অনুযায়ী দুর্বল। <ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.thedailystar.net/news-detail-161532|শিরোনাম=Unfair trade goes unchecked|তারিখ=7 November 2010|ওয়েবসাইট=The Daily Star|ভাষা=en|সংগ্রহের-তারিখ=27 April 2017}}</ref> ২০০৭ সালে [[দ্য ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি|ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বারস অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি]] প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়েছিল যে ভারতীয় চিনি রফতানিকারীদের ডাম্পিং বন্ধ করতে ব্যর্থ হয়েছে। <ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.thedailystar.net/news-detail-3301|শিরোনাম=Indian exporters dump sugar: BSFIC official|তারিখ=9 September 2007|ওয়েবসাইট=The Daily Star|ভাষা=en|সংগ্রহের-তারিখ=27 April 2017}}</ref>
 
==কার্যক্রম==
বাংলাদেশ ট্যারিফ কমিশনের প্রধান কাজ দেশীয় শিল্পের স্বার্থ সংরক্ষণ। সংস্থাটি আন্তর্জাতিক , দ্বি-পাক্ষিক, আঞ্চলিক ও বহুপাক্ষিক বাণিজ্য চুক্তি সম্পর্কে আলোচনা এবং বাস্তবায়নে সরকারকে প্রয়োজনীয় সহায়তা দেয়। বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থা (ডব্লিওটিও)’র শর্তাবলীর আলোকে কমিশন স্থানীয় শিল্প রক্ষা, উন্নয়ন এবং সম্প্রসারণে কাজ করে। আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বাংলাদেশি পণ্যের শুল্কমুক্ত প্রবেশাধিকার ও অবাধে মানব সম্পদ প্রবেশাধিকারের লক্ষ্যে কর্মপন্থা প্রণয়নে সরকারকে সহায়তা করে। শিল্প প্রতিষ্ঠান বা সংগঠনের আবেদন অনুযায়ী পণ্যের উৎপাদন খরচ, কাঁচামালের আমদানি ব্যয়, সম্পূর্ণায়িত পণ্যের আমদানি ব্যয়, জনবল, উৎপাদন ক্ষমতা, মূল্য সংযোজন, উৎপাদিত পণ্যের গুনগতমান ইত্যাদি বিশ্লেষণ করে কমিশন সুপারিশ প্রণয়ন করে। তথ্য বিশ্লেষণের কাজে কমিশন কতগুলি অর্থনৈতিক নির্দেশক ব্যবহার করে থাকে।