"নবদ্বীপের ভদ্রকালী মাতা" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

১টি উৎস উদ্ধার করা হল ও ০টি অকার্যকর হিসেবে চিহ্নিত করা হল। #IABot (v2.0beta15)
(উদ্ধৃতি টেমপ্লেট ও অন্যান্য সংশোধন)
(১টি উৎস উদ্ধার করা হল ও ০টি অকার্যকর হিসেবে চিহ্নিত করা হল। #IABot (v2.0beta15))
== ইতিহাস ==
[[File:Charichapara bhadrakali pratima chitra.jpg|thumb|[[চালচিত্র]] সহ নবদ্বীপের ভদ্রকালী মাতার হাতে আঁকা চিত্র]]
পালযুগের পাওয়া মহিষাসুরমর্দিনী মূর্তিগুলি প্রকৃত পক্ষে ভদ্রকালী রূপেই আরাধনা করা হত বলে মনে করা হয়। শ্রী শ্রী চণ্ডী ও মার্কেন্ডেও পুরাণ অনুযায়ী দেবী ভদ্রকালী রূপে মহিষ মর্দন করেন, তাই তিনি মহিষাসুরমর্দিনী।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://bn.wikisource.org/wiki/%E0%A6%9C%E0%A7%80%E0%A6%AC%E0%A6%A8%E0%A7%80_%E0%A6%95%E0%A7%8B%E0%A6%B7/%E0%A6%AD%E0%A6%BE%E0%A6%B0%E0%A6%A4%E0%A7%80%E0%A6%AF%E0%A6%BC-%E0%A6%AA%E0%A7%8C%E0%A6%B0%E0%A6%BE%E0%A6%A3%E0%A6%BF%E0%A6%95/%E0%A6%AD%E0%A6%A6%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%95%E0%A6%BE%E0%A6%B2%E0%A7%80|শিরোনাম=জীবনী কোষ/ভারতীয়-পৌরাণিক/ভদ্রকালী|শেষাংশ=|প্রথমাংশ=|তারিখ=|ওয়েবসাইট=|প্রকাশক=উইকিসংকলন|সংগ্রহের-তারিখ=২৪ ডিসেম্বর ২০১৭}}</ref> আবার দেবী সরস্বতীকেও ভদ্রকালী বলে উল্লেখ করা হয়েছে। [[নবদ্বীপের শাক্তরাস]] উৎসবে ভদ্রকালীর আরাধনা ৪০০ বছরেরও অধিক প্রাচীন বলে মনে করা হয়। [[বাল্মীকি]] রামায়ণ অনুযায়ী পাতালপুরির রাক্ষসরাস মহীরাবনের আরাধ্যাদেবী হলেন ভদ্রকালী। মহীরাবন রাম ও লক্ষণকে পাতালে নিয়ে যায় দেবীর সামনে বলি দেওয়ার জন্য। কিন্তু, রাম ভক্ত হুনুমান মহিরাবন বধ করে রাম ও লক্ষণকে নিয়ে উদ্বার করেন। রামের নির্দেশে হুনুমান মহিরাবনের দেবী ভদ্রকালীকে মর্তলোকে নিয়ে আসেন এবং বঙ্গদেশে বর্ধমানের ক্ষিরগ্রামে প্রতিষ্ঠা করেন। [[নবদ্বীপের শাক্তরাস]] উৎসবে দেবীকে এই রূপেই আরাধনা করা হয়। কালিকাপুরাণ মতে, ভদ্রকালীর গায়ের রং অতসীপুষ্পের ন্যায়, মাথায় জটাজুট, ললাটে অর্ধচন্দ্র ও গলদেশে কণ্ঠহার। তন্ত্রমতে অবশ্য তিনি মসীর ন্যায় কৃষ্ণবর্ণা, কোটরাক্ষী, সর্বদা ক্ষুধিতা, মুক্তকেশী; তিনি জগৎকে গ্রাস করছেন, তার হাতে জ্বলন্ত অগ্নিশিখা।<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://www.bdtimes365.com/feature/2016/01/30/111604|শিরোনাম=দেবী কালীর রূপের রহস্য!|শেষাংশ=|প্রথমাংশ=|তারিখ=|ওয়েবসাইট=|প্রকাশক=|সংগ্রহের-তারিখ=২৪ ডিসেম্বর ২০১৭|আর্কাইভের-ইউআরএল=https://web.archive.org/web/20180109015613/http://www.bdtimes365.com/feature/2016/01/30/111604|আর্কাইভের-তারিখ=৯ জানুয়ারি ২০১৮|অকার্যকর-ইউআরএল=হ্যাঁ}}</ref>
 
==আরো দেখুন==
৮৯,৫৯০টি

সম্পাদনা