"মোরিস মাতরলাঁক" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
<blockquote>আমার গবেষণার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশ চুরি করে বিখ্যাত লেখক আমাকে সন্দেহজনক অভিনন্দন জানিয়েছেন । যদিও তিনি স্বীকার করেন যে তিনি তাঁর জীবনে কখনোই উইপোকা দেখেননি, তবুও তিনি তাঁর পাঠকদের স্পষ্টভাবে বোঝাতে চেয়েছিলেন যে তিনি আমার তত্ত্বগুলিতে (দশ বছরের পরিশ্রমের ফল) পৌঁছেছেন তাঁর নিজস্ব নিরাবলম্ব বুদ্ধি দিয়ে । আপনি নিশ্চয় বুঝবেন যে এটা কল্পনার নিছক একটা রচনা নয়, সেজন্যই বলা । তিনি অক্ষরে অক্ষরে পড়ে সেগুলো নকল করেছেন ।<ref>L. Rousseau, 1974, ''Die Groot Verlange'', Capetown: Human & Rousseau, p. 398.</ref><ref name=d'Ass/></blockquote>
মারিস তার আফ্রিকান জাতীয়তাবাদী বন্ধুদের এক সম্প্রদায়ের সমর্থন পেয়ে [[দক্ষিণ আফ্রিকা]]র গণমাধ্যমে ন্যায়বিচার চেয়েছিলেন এবং মেটারলিংকের বিরুদ্ধে একটা আন্তর্জাতিক মামলা করার চেষ্টা করেছিলেন । কিন্তু সেটা প্রমাণ করা আর্থিকভাবে অসম্ভব ছিল এবং মামলাটি আর চলেনি । যাইহোক, মারিস একজন আফ্রিকান গবেষক ও ক্ষতিগ্রস্ত হিসেবে খ্যাতি অর্জন করেছিলেন, যিনি নিজেকে তার সত্ত্ব চুরির মাধ্যমে প্রকাশ করেন, কারন তিনি আফ্রিকায় জাতীয়তাবাদী আনুগত্যের বাইরে নিবন্ধ প্রকাশ করেছিলেন । মারিস এই কেলেঙ্কারির সময় গভীরভাবে চিন্তা করেছিলেন এবং বলেছিলেন, "আমি বিস্মিত হয় যে মেটারলিংক যখন এই ধরনের বিষয়গুলো (সংকটপূর্ণ প্রশংসা) পড়েন, এবং অচেনা [[বোয়ার]]কর্মীর সাথে তিনি যে অবিচার করছেন সে সম্পর্কে কোন চিন্তাভাবনা করেন কি?"<ref name="swart" />
<br/><br/>
''সাদা পিঁপড়ের জীবন'' প্রবন্ধে মেটারলিংকের নিজস্ব কথায় ইঙ্গিত করে যে সত্ত্ব চুরির কথা প্রকাশ হওয়া বা অভিযুক্ত হওয়া সম্ভব, যা তাঁকে চিন্তিত করেছিল :
 
===শেষ জীবন===
১৭৪টি

সম্পাদনা