"স্বতন্ত্র রাজনীতিবিদ" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে হলে সমর্থনের প্রমাণ হিসেবে নির্বাচনী এলাকার ১ শতাংশ ভোটারের স্বাক্ষর জমা দিতে হয় মনোনয়নপত্রের সঙ্গে।<ref>[https://www.bbc.com/bengali/amp/news-46436257 সংসদ নির্বাচন: নির্বাচনী আইন কি স্বতন্ত্র প্রার্থীদের জন্য বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে?] বিবিসি বাংলা, ঢাকা</ref> তবে অতীতে সংসদ সদস্য ছিলেন এমন ব্যক্তির ক্ষেত্রে এই বিধান প্রযোজ্য নয়।<ref>[https://www.prothomalo.com/amp/opinion/article/1561383/প্রার্থীদের-যা-জানা-জরুরি প্রার্থীদের যা জানা জরুরি] দৈনিক প্রথম আলো </ref> এবং ২০,০০০ টাকা জামানত হিসাবে জমা দিতে হয়। এ ছাড়া আরপিওর ২০(এ) ধারায় স্বতন্ত্র প্রার্থীরা ইভিএম ব্যবহারের সুযোগ পাবে।
 
===স্থানীয় নির্বাচন===
ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে সমর্থনের কোনো প্রমাণ দেখাতে হয় না। তবে পৌরসভায় ১০০ ভোটার, উপজেলায় ২৫০ ভোটার, সিটি করপোরেশনে ৩০০ ভোটারের সমর্থন তালিকা দিতে হয়।<ref>[https://www.bd-pratidin.com/amp/first-page/2018/02/03/302958 সহজ হচ্ছে স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার পথ] বাংলাদেশ প্রতিদিন </ref>