"দেওয়ানগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্প্রসারণ, তথ্যসূত্র
(তথ্যসূত্র, সম্প্রসারণ)
(সম্প্রসারণ, তথ্যসূত্র)
== ইতিহাস ==
ব্রিটিশ আমলে এই অঞ্চলের প্রাদেশিক রেজিস্ট্রার মি ডনোফন এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠা করেন। শুরুতে তৎকালীন ''কো-অপারেটিভ ব্যাংক'' প্রতিষ্ঠানটি চালু করার জন্য অর্থ বরাদ্দ দেয়, যে কারনে এর নাম হয় ''দেওয়ানগঞ্জ কো-অপারেটিভ স্কুল''। এসময় বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী ছমির উদ্দিন তালুকদার স্কুলের জন্য ১২ বিঘা জমি দান করেন<ref>বাংলা একাডেমী লোকজ ও সাংস্কৃতিক গ্রন্থমালা-জামালপুর, পৃষ্ঠা- ৫০</ref>। ১৯৮৬ সালে এটি সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মর্যাদা লাভ করে। ১৯৫২ সালের [[বাংলা ভাষা আন্দোলন|মহান মার্তৃভাষা আন্দোলনে]] এই প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রীদের ছিল গৌরবউজ্জ্বল ভূমিকা। ১৯৭১ সালে [[বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ|স্বাধীনতা যুদ্ধের]] সময় পাকবাহিনী এই স্কুল দখল করে এবং ব্যপক দমন, নিপীড়নের উদ্দ্যেশ্যে ''টর্চার সেল'' তৈরি করে<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://bn.wikipedia.org/wiki/%E0%A6%A6%E0%A7%87%E0%A6%93%E0%A6%AF%E0%A6%BC%E0%A6%BE%E0%A6%A8%E0%A6%97%E0%A6%9E%E0%A7%8D%E0%A6%9C_%E0%A6%89%E0%A6%AA%E0%A6%9C%E0%A7%87%E0%A6%B2%E0%A6%BE=দেওয়ানগঞ্জ_উপজেলা|শিরোনাম=দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা-উইকিপিডিয়া}}</ref>।
 
== অবকাঠামো ==
দেওয়ানগঞ্জ শহরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত এই বিদ্যালয়। সুবিশাল খেলার মাঠের এক প্রান্তে ব্রিটিশ আমলে নির্মিত মূল ভবন যা এখন পরিত্যক্ত প্রায়। এর পাশেই একটি দ্বিতল ভবন সহ আরো কিছু অবকাঠামোতে চলছে পাঠদান সহ অন্যান্য কার্যক্রম। মাঠের এক পাশে দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার ''কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার'' অবস্থিত, এর পাশেই স্কাউট ভবন। অবকাঠামোগত উন্নয়নের জন্য বাংলাদেশ সরকার ২০১৭ সালে এই বিদ্যালয়কে বিশেষ বাজেটের অন্তর্ভুক্ত করে<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://bangalikantha.com/archives/15405|শিরোনাম=জামালপুরের ১৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ভবন নির্মাণে প্রায় ১৩৮ কোটি টাকা বরাদ্দ- নিউজ বাঙালিকন্ঠ}}</ref>।
 
== উল্লেখযোগ্য প্রাক্তন শিক্ষার্থী ==
* প্রফেসর মুহম্মদ মোকাররম হোসায়েন (বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ এবং কবি, ডেমোক্রেসি ওয়াচের পরামর্শক<ref>{{ওয়েব উদ্ধৃতি|ইউআরএল=https://www.kalerkantho.com/print-edition/shuvosongho/2014/11/15/151153|শিরোনাম=প্রিয় শিক্ষক অধ্যক্ষ প্রফেসর মুহম্মদ মোকাররম হোসায়েন- দৈনিক কালেরকন্ঠ}}</ref> )
 
== তথ্যসূত্র ==
২৬১টি

সম্পাদনা