প্রধান মেনু খুলুন

পরিবর্তনসমূহ

অনির্ভরযোগ্য উৎস বাতিল
=== গ্রন্থ রচনা ===
[[File:Ganesa writing the Mahabharat.jpeg|thumb|236x236px|[[ব্যাসদেব|ব্যাসদেবের]] কাহিনীটিকে [[গণেশ]] লিখিত রূপ দিচ্ছেন|left]]
মহাভারতে বর্ণিত হয়েছে, মহর্ষি [[ব্যাসদেব|বেদব্যাস]] [[হিমালয় পর্বতমালা|হিমালয়ের]] এক পবিত্র গুহায় [[ধ্যান|তপস্যা]] করবার পর মহাভারতের সম্পূর্ণ ঘটনাটি স্মরণ করেন এবং মনে মনেই এর রচনা করেন।<ref name="ReferenceA">মহাভারত-গীতা প্রেস গোরখ্‌পুর, আদি পর্ব অধ্যায় ১, শ্লোক-৯৯-১০৯</ref> ব্যাসদেব চাইলেন এই মহান কাহিনি সিদ্ধিদাতা গণেশের দ্বারা লিপিবদ্ধ হোক। গণেশ লিখতে সম্মত হলেন, কিন্তু তিনি শর্ত করলেন যে, তিনি একবার লেখা শুরু করলে তার শেষ না হওয়া পর্যন্ত [[ব্যাসদেব|ব্যাসদেবের]] [[আবৃত্তি]] একটিবারও থামতে পারবে না। তখন ব্যাসদেব বুদ্ধিমতো পাল্টা একটি শর্ত উপস্থাপনা করলেন – "গণেশ যে শ্লোকটি লিখবেন, তার মর্মার্থ না বুঝে লিখতে পারবেন না"। ভগবান গণেশ এই প্রস্তাব স্বীকার করলেন। এইভাবে ব্যাসদেব মাঝে মাঝে কিছু কঠিন শ্লোক রচনা করে ফেলতেন, যার ফলে [[গণেশ]]কে শ্লোকটির অর্থ বুঝতে সময় লাগত এবং সেই অবসরে ব্যাসদেব তাঁর পরবর্তী নতুন শ্লোকগুলি ভেবে নিতে পারতেন। এইরূপে সম্পূর্ণ মহাভারত রচনা করতে প্রায় ৩ বৎসর লেগে যায়।<ref>[http://jaihindi.blogspot.com/2009/08/blog-post_03.html महाभारत किसने लिखा?]। जयहिन्दी। बालसुब्रमण्यम। ३ अगस्त २००९। अभिगमन तिथि:१ मई २०१०</ref><ref>মহাভারত-গীতা প্রেস গোরখ্‌পুর, আদি পর্ব অধ্যায় ১, শ্লোক-২২-৭০</ref> [[ব্যাসদেব]] প্রথমে অধর্মের বিরুদ্ধে ধর্মের জয় সূচক উপাখ্যান যুক্ত ১০০০০০ শ্লোক সমন্বিত আদ্য জয় গ্রন্থ রচনা করেন। সর্বশেষে তিনি ষাট লক্ষ শ্লোক সমন্বিত অপর একটি গ্রন্থ রচনা করেন, যে গ্রন্থের ৩০ লক্ষ শ্লোক দেবলোকে, ১৫ লক্ষ শ্লোক পিতৃলোকে, ১৪ লক্ষ রক্ষোযক্ষ লোকে স্থান পেয়েছে এবং অবশিষ্ট মাত্র ১ লক্ষ শ্লোক এই মনুষ্যলোকে ‘মহাভারত’ নামে সমাদৃত হয়েছে। এই সম্বন্ধে মহাভারতেই বর্ণিত হয়েছে : {{cquote2|'''ত্রিংশচ্ছতসহস্রঞ্চ দেবলোকে প্রতিষ্ঠিতম্॥'''<br />'''পিত্রে পঞ্চদশ প্রোক্তং রক্ষোযক্ষে চতুর্দ্দশ।'''<br />'''একং শতসহস্রন্তু মানুষেষু প্রতিষ্ঠিতম্॥'''}}
 
=== গ্রন্থ প্রচার ===