"অন্তরাত্মা" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

1টি উৎস উদ্ধার করা হল ও 0টি অকার্যকর হিসেবে চিহ্নিত করা হল। #IABot (v2.0beta10)
(সংশোধন)
(1টি উৎস উদ্ধার করা হল ও 0টি অকার্যকর হিসেবে চিহ্নিত করা হল। #IABot (v2.0beta10))
[[File:Rosarium_philosphorum_Soul.jpg#/media/File:Rosarium_philosphorum_Soul.jpg|thumb| [[Rosary of the Philosophers|রোজারি অব দ্যা ফিলোসোফারস]] গ্রন্থে আত্মার চিত্রায়ন]]
 
অনেক ধর্মে এবং দার্শনিক ও পৌরাণিক বিভিন্ন ঐতিহ্যে আত্মাকে বলা হয় যে কোন জীবিত প্রাণীর অশরীরী সত্ত্বা ।<ref>"soul."Encyclopædia Britannica. 2010. Encyclopædia Britannica 2006 CD. 13 July 2010.</ref> দার্শনিক বিশ্বাসের উপর ভিত্তি করে আত্মা মরণশীল হতে পারে কিংবা অমর হতে পারে ।<ref>http://www.oed.com/view/Entry/185083. Oxford English Dictionary (OED). Oxford English Dictional (OED). Retrieved 1 December 2016.</ref> খ্রিস্টান, ইহুদী ধর্মাবলম্বীদের বিশ্বাস অনুযায়ী, শুধুমাত্র মানুষের আত্মা অমর (যদিও অমরত্ব নিয়ে ইহুদীদের মধ্যে বিতর্ক রয়েছে, ব্যাপারটি প্লেটো দ্বারা প্রভাবিত হতে পারে) ।<ref>http://www.jewishencyclopedia.com/articles/8092-immortality-of-the-soul www.jewishencyclopedia.com. Retrieved 2016-12-14.</ref> যেমন, ক্যাথলিক ধর্মতত্ত্ববিদ থমাস অ্যাকিনাস মনে করেন, আত্মা (অ্যানিমা) রয়েছে সব প্রাণীতেই, কিন্তু অমর আত্মার অধিকারী শুধুমাত্র মানুষই । <ref>Peter Eardley and Carl Still, Aquinas: A Guide for the Perplexed (London: Continuum, 2010), pp. 34–35</ref> অন্যান্য ধর্মে (বিশেষ করে হিন্দুধর্ম ও জৈনধর্মে) এই বিশ্বাস আছে যে, সব জীবিত অস্তিত্বেরই আত্মা আছে, যেটা অ্যারিস্টোস্টলও বিশ্বাস করতেন । আবার অনেকে এই শিক্ষা দেন যে, জড় সত্ত্বারও (যেমন নদী কিংবা পর্বতের) নিজস্ব আত্মা রয়েছে । এই ধরণের বিশ্বাসকে বলা হয় অ্যানিমিজম ।<ref>httphttps://waybackweb.archive.org/web/20080709052029/http://www.bartleby.com/65/so/soul.html The Columbia Encyclopedia, Sixth Edition. 2001–07. Retrieved 12 November 2008.</ref>
 
== নামকরণ ==
৬৪,৪৭৭টি

সম্পাদনা