"মৈতৈ মণিপুরী ভাষা" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।
(updated image)
(বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্যায় এর পরিচালককে জানান।)
|region=উত্তর-পূর্ব [[ভারত]], [[বাংলাদেশ]], [[মায়ানমার]]
|ethnicity=[[মৈতৈ জাতি|মৈতৈ]]
|speakers=১২ লক্ষ ৫০ হাজার (২০১০)<ref>{{বই উদ্ধৃতি|last1শেষাংশ১=Moseley|first1প্রথমাংশ১=C. (Editor)|titleশিরোনাম=Atlas of the world's languages in danger (3rd ed)|dateতারিখ=2010|publisherপ্রকাশক=UNESCO Publishing|locationঅবস্থান=Paris}}</ref> থেকে ১৪ লক্ষ ৮৫ হাজার
|date=২০০১ জনগণনা
|ref=e18
 
'''মৈতৈ''' /{{IPA|ˈməɪtəɪ}}/<ref>Laurie Bauer, 2007, ''The Linguistics Student’s Handbook'', Edinburgh</ref> (মৈতৈ ভাষায়: '''মেইতেই লোন্‌''', '''মণিপুরী''' ভাষা নামেও পরিচিত<ref>
{{ওয়েব উদ্ধৃতি
{{cite web
|urlইউআরএল=http://manipur.gov.in/?page_id=3507|titleশিরোনাম=At a Glance « Official website of Manipur|publisherপ্রকাশক=}}
</ref><ref name="2001Stm1">[http://www.censusindia.gov.in/%28S%282scoev45b4mhlg45mz5jq345%29%29/Census_Data_2001/Census_Data_Online/Language/Statement1.aspx Abstract of speakers' strength of languages and mother tongues – 2000], Census of India, 2001
</ref>) [[উত্তর-পূর্ব ভারত|উত্তর-পূর্ব ভারতের]] [[মণিপুর]] রাজ্যের প্রধান ভাষা।
সরকারী দপ্তরে এই ভাষা ব্যবহার করা হয়। মণিপুর ছাড়াও [[অসম]], [[ত্রিপুরা]], [[বাংলাদেশ]] ও [[মায়ানমার|মায়ানমারে]] ভাষাটি প্রচলিত। [[ইউনেস্কো]] <ref>
{{বই উদ্ধৃতি
{{cite book
|last1শেষাংশ১=Moseley|first1প্রথমাংশ১=C. (Editor)
|titleশিরোনাম=Atlas of the world’s languages in danger (3rd ed)
|dateতারিখ=2010
|publisherপ্রকাশক=UNESCO Publishing|locationঅবস্থান=Paris}}
</ref>
 
 
মৈতৈ ভাষা মণিপুরের সমস্ত জাতিগুলি নিজেদের মধ্যে যোগাযোগের জন্য এটি ব্যবহার করে, এবং এই ভাষাটি এই জাতিগুলিকে সমন্বিত উপাদান হিসেবে প্রমাণিত হয়েছে। এটি ভারতীয় সরকার কর্তৃক স্বীকৃত এবং ১৯৯২ সালের সংবিধানের ৭১তম সংশোধনী দ্বারা ৮ম তফসিলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। ভারতীয় বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে স্নাতোকত্তর (পিএইচডি) স্তর অবধি মৈতৈ ভাষা একটি বিষয় হিসাবে পড়ানো হয়, এবং স্নাতক স্তর অবধি মৈতৈ মাধ্যমে শিক্ষাদান করা হয়। সরকারী বিদ্যালয়ে ৮ম শ্রেণী অবধি মৈতৈ ভাষায় শিক্ষাদান করা হয়।<ref>
{{সাময়িকী উদ্ধৃতি
{{cite journal
|শেষাংশ১=Devi |প্রথমাংশ১=S.
|last1=Devi |first1=S.
|dateতারিখ=May 2013
|titleশিরোনাম=Is Manipuri an Endangered Language?
|urlইউআরএল=http://www.languageinindia.com/may2013/rebikameitheiendangeredfinal.pdf
|journalসাময়িকী=Language in India |volumeখণ্ড=13 |issueসংখ্যা নং=5 |pagesপাতাসমূহ=520–533}}</ref>
 
== ব্যুৎপত্তি ==
এর ব্যতিক্রম হচ্ছে ত্রিপুরা, বাংলাদেশ ও মায়ানমারে পাওয়া উপভাষার বাক্-পার্থক্য।<ref>
{{বই উদ্ধৃতি
|last1শেষাংশ১=Thoudam|first1প্রথমাংশ১=P. C.
|titleশিরোনাম=Demographic and Ethnographic Information: Problems in the analysis of Manipuri language
|dateতারিখ=2006
|publisherপ্রকাশক=Central Institute of Indian Language}}
</ref> মৈতৈয়ের উপভাষার সঠিক সংখ্যা অজানা।<ref>
{{সাময়িকী উদ্ধৃতি
|last1শেষাংশ১=Haokip |first1প্রথমাংশ১=P.
|dateতারিখ=April 2011
|titleশিরোনাম=The Languages of Manipur: A Case Study of the Kuki-Chin Languages
|journalসাময়িকী=Linguistics of the Tibeto-Burman Area
|volumeখণ্ড=34 |issueসংখ্যা নং=1 |pagesপাতাসমূহ=86–118}}
</ref>
 
উপভাষাগুলির সামান্য পার্থক্যগুলি নিম্নলিখিত সারণিতে দেওয়া হল:<ref>
{{বই উদ্ধৃতি
|last1শেষাংশ১=Ningoma|first1প্রথমাংশ১=M. S.
|titleশিরোনাম=Manipur Dialects
|dateতারিখ=1996
|publisherপ্রকাশক=Sealang Projects}}
</ref>
{| class="wikitable"
! প্রমিত মৈতৈ<ref>
{{বই উদ্ধৃতি
|last1শেষাংশ১=Primeros|first1প্রথমাংশ১=A. J.
|titleশিরোনাম=A Manipuri Grammar, Vocabulary and Phrase Book
|dateতারিখ=1888
|publisherপ্রকাশক=Assam Secretariat Press
|locationঅবস্থান=Shillong}}
</ref> !! লোই !! পাঙ্গাল !! বাংলা
|-
মৈতৈ নিম্নলিখিত ধ্বনিগুলি ব্যবহার করে:<ref>
{{বই উদ্ধৃতি
|last1শেষাংশ১=Chelliah|first1প্রথমাংশ১=S. L.
|titleশিরোনাম=Meitei Phonology
|dateতারিখ=1997
|publisherপ্রকাশক=Mouton de Gruyter
|pagesপাতাসমূহ=17–21}}
</ref>
 
মৈতৈ ভাষা একটি [[সুরাঘাত (ভাষাবিজ্ঞান)|সুরাঘাতীয় ভাষা]]। তবে এই ভাষাতে দুটি না তিনটি সুর আছে তা নিয়ে বিতর্ক আছে।<ref name="ReferenceA">
{{সাময়িকী উদ্ধৃতি
|last1শেষাংশ১=LaPolla |first1প্রথমাংশ১=Randy J. |authorলেখক-linkসংযোগ=Randy LaPolla
|dateতারিখ=2000 |titleশিরোনাম=Book review: A grammar of Meitei, by S. L. Chelliah |journalসাময়িকী=Lingua |publisherপ্রকাশক=Elsevier |volumeখণ্ড=110 |issueসংখ্যা নং=4 |pagesপাতাসমূহ=299–304 |doiডিওআই=10.1016/s0024-3841(99)00037-6}}</ref>
 
=== ধ্বনিতাত্ত্বিক প্রক্রিয়া ===
 
==== গ্রাসমানের সূত্র ====
[[সংস্কৃত]] এবং [[প্রাচীন গ্রীক]] ভাষায় পাওয়া [[গ্রাসমানের সূত্রে|গ্রাসমানের সূত্রে]] ব্যক্ত বিষমীভবনের মত একটি প্রক্রিয়া মৈতৈ ভাষায়।<ref>Chelliah (1997)</ref> এই ক্ষেত্রে একটি মহাপ্রাণিত ব্যঞ্জনধ্বনি যদি এমন কোন শব্দাক্ষরের পরে বসে যার শেষ ব্যঞ্জনধ্বনিটি মহাপ্রাণ (যেমন {{IPA|/h/, /s/}}) তবে প্রথমোক্ত ব্যঞ্জনধ্বনিটি মহাপ্রাণহীন হয়ে যায়। এই মহাপ্রাণহীন ধ্বনিটিই রণনশীল ধ্বনির মধ্যবর্তি অবস্থায় ঘোষ ধ্বনি হয়ে যায়।
 
* {{IPA|/tʰin-/}} ('ভেদ করা') + {{IPA|/-khət/}} ('ঊর্ধ্বাভিমুখী') → {{IPA|/tʰinɡət/}} ('উপরের দিকে ভেদ করা')
বহুবচনের ক্ষেত্রে বিশেষ্য এবং সর্বনামের শেষে ''-খোই'' (পুরুষবাচক সর্বনাম এবং মনুষ্য নামবিশেষ্য) অথবা ''-সিং'' (বাকি ক্ষেত্রে) যোগ করা হয়। বাংলার মতই মৈতৈ ভাষায় বচন ক্রিয়ার উপর কোন প্রভাব ফেলে না। নিচে উদাহরণ দেওয়া হল:<ref name="Singh 2013">
{{সাময়িকী উদ্ধৃতি
|lastশেষাংশ=Singh |firstপ্রথমাংশ=S. Indrakumar
|dateতারিখ=November 2013
|titleশিরোনাম=Agreements in Manipuri
|urlইউআরএল=http://www.languageinindia.com/nov2013/indrakumaragreementsmanipurifinal.pdf
|journalসাময়িকী=Language in India |volumeখণ্ড=13 |issueসংখ্যা নং=11 |pagesপাতাসমূহ=216–231}}
</ref>
 
ধাতুর সঙ্গে ভাবপ্রকারকে পরপ্রত্যয় হিসাবে যোগ হয়ে যৌগিক ক্রিয়ার সৃষ্টি হয়। এই পরপ্রত্যয়ের সংখ্যা বেশি হলেও নিচে দেওয়া দুটিই অধিকাংশ ক্ষেত্রে ব্যবহার হয়:<ref name="Devi 2014">
{{সাময়িকী উদ্ধৃতি
|last1শেষাংশ১=Devi |first1প্রথমাংশ১=M. Bidyarani
|dateতারিখ=May 2014
|titleশিরোনাম=Compound Verbs in Manipuri
|urlইউআরএল=http://www.languageinindia.com/may2014/bidyaranimanipuricompoundverbsfinal.pdf
|journalসাময়িকী=Language in India |volumeখণ্ড=14 |issueসংখ্যা নং=5 |pagesপাতাসমূহ=66-70}}
</ref>
{| class="wikitable"
* Chelliah, Shobhana L. (2002). Early Meitei manuscripts. In C. I. Beckwith (Ed.), ''Medieval Tibeto-Burman languages: PIATS 2000: Tibetan studies: Proceedings of the ninth seminar of the International Association of Tibetan Studies, Leiden 2000'' (pp.&nbsp;59–71). Leiden, Netherlands: Brill.
* Chelliah, Shobhana L. (2002). A glossary of 39 basic words in archaic and modern Meitei. In C. I. Beckwith (Ed.), ''Medieval Tibeto-Burman languages: PIATS 2000: Tibetan studies: Proceedings of the ninth seminar of the International Association of Tibetan Studies, Leiden 2000'' (pp.&nbsp;189–190). Leiden, Netherlands: Brill.
* {{সাময়িকী উদ্ধৃতি | last1শেষাংশ১ = Chelliah | first1প্রথমাংশ১ = Shobhana L. | yearবছর = 2004 | titleশিরোনাম = Polysemy through metonymy: The case of Meitei ''pi'' 'grandmother' | urlইউআরএল = | journalসাময়িকী = Studies in Language | volumeখণ্ড = 28 | issueসংখ্যা নং = 2| pagesপাতাসমূহ = 363–386 | doiডিওআই = 10.1075/sl.28.2.04che }}
* {{সাময়িকী উদ্ধৃতি | last1শেষাংশ১ = Chelliah | first1প্রথমাংশ১ = Shobhana L. | yearবছর = 2015 | titleশিরোনাম = Is Manipur a linguistic area? | journalসাময়িকী = Journal of South Asian Languages and Linguistics | volumeখণ্ড = 2 | issueসংখ্যা নং = 1 | pagesপাতাসমূহ = 87–109 }}
* Singh, Ningthoukhongjam Khelchandra. (1964). ''Manipuri to Manipuri & English dictionary''.
 
== বহিঃসংযোগ ==
{{কমন্স বিষয়শ্রেণী}}
{{commons category}}
<!--* [http://tabish.freeshell.org/eeyek/ মৈতৈ লিপি]-->
* [http://tabish.freeshell.org/eeyek/mani_intro.html মণিপুরি/মৈতৈলোন্: সূচনা]
{{বাংলাদেশের ভাষাসমূহ}}
 
{{কর্তৃপক্ষ নিয়ন্ত্রণ}}
{{Authority control}}
 
.
 
{{DEFAULTSORT:মৈতৈ ভাষা}}.
[[বিষয়শ্রেণী:মৈতৈ ভাষা]]
[[বিষয়শ্রেণী:চীনা-তিব্বতি ভাষা]]
১,৭৪,২৯৯টি

সম্পাদনা