"আলাউদ্দিন খিলজি" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

আলাউদ্দিন খিলজি ছিলেন খিলজি বংশের প্রতিষ্ঠাতা জালালুদ্দিন খিলজির ভাতিজা এবং জামাতা। মাম্লূকশদেরকে পরাজিত করে জালালুদ্দিন খিলজি যখন দিল্লি দখল করে নেন তখন আলাউদ্দিন খিলজিকে আমির-ই-তুজুখ বা উদযাপন মন্ত্রী পদ দেওয়া হয়।১২৯১ সালে জালালুদ্দিন খিলজির কাছ থেকে কারা্ নামক অঞ্চল দখল করে নেন।১২৯৬ সালে বসিলা অবরোধ করে আবাধ দখল করে।তার পরিচালনা শুরু করেন। আবার ১২৯৬ সালে দেভাগিরি অবরোধ করেন এবং জালালুদ্দিনের বিপুল পরিমানের সম্পদ দখল করে নেন।জালালুদ্দিন খিলজিকে হত্যা করে, তিনি দিল্লিতে নিজের শাসন প্রতিষ্ঠা করেন এবং পরবর্তীতে জালালুদ্দিনের ছেলের কাছ থেকে মুলতান দখল করে নেন।
 
অল্পকিছুদিনের মধ্যেই আলাউদ্দিন খিলজি দক্ষভাবে বেশ কিছু মঙ্গোলীয় অঞ্চলকে নিজের ভারতীয় সাম্রজ্যের মধ্যে অন্তর্গত করেন। তার কত গুলো সফল অভিযানের মাঝে বিখ্যেত অভিযান গুলো হল,হলঃ (1297–1298)জারান-মাঞ্জুর(বর্তমান [[পাঞ্জাব, ভারত|পাঞ্জাব]] এর কিছু এলাকা নিয়ে বিস্তৃত ছিল),শিবিস্থান(বিভক্ত [[পাকিস্তান|পাকিস্থান]])(Sivistan-1298),Kili(প্রাচীন দিল্লির একটি এলাকা)(1299), দেলি [[দিল্লি|Delhi]](1303),এবং [[উত্তরপ্রদেশ|উত্তর-প্রদেশ]] Amroha(1305). ১৩০৬ সালে তার সৈন্যগণ মঙ্গোলীয়দের কাছ থেকে একটি সফল অভিযান শেষে রভি নদীর উপতক্যা দখল করে নেয় এবং সেই বছরই তারা মঙ্গলীয়দের বিশেষ আবাসস্থান বর্তমানের আফগানিস্থান দখল করে নেয়।যে সকল সেনাপতি মঙ্গোলীয়দের বিপক্ষে দক্ষ হাতে সফল অভিযান পরিচালনা করেছিলেন তারা হলেন সেনা-অধ্যক্ষ জাফর খান(Zafar Khan),সেনাপতি উলুগ খান(Ulugh Khan) এবং একসময়ের গোলাম কিন্তু পরবর্তী সময়ের জেনারেল মালিক কাফুর(Malik Kafur)।
 
==রাজ্যজয়==
২০টি

সম্পাদনা