"আলাউদ্দিন খিলজি" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

→‎রাজ্যজয়: আলাউদ্দিন খিলজি
(→‎রাজ্যজয়: বিষয় বস্তু যোগ)
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
(→‎রাজ্যজয়: আলাউদ্দিন খিলজি)
}}
 
আলা-উদ্দিন-খিলজি(১২৯৬-১৩১৬)তিনি ছিলেন খিলজি বংসের ২য় শক্তিশালী শাসক যিনি দিল্লিতে বসে ভারতীয় উপমহাদেশে খিলজি শাসন পরিচালনা করেছেন।তিনি চেয়েছিলেন ভারতীয় ইতিহাসেও একজন আলেকজেন্ডারের মতো শক্তিশালী কারো কথা উল্লেখ করা থাকুক।তাই তিনি তিনি নিজেকেই ২য় আলেকজেন্ডার (আলেকজেন্ডারে-সানি) বানানোরে জন্যে চেষ্টা চালিয়ে যান ।তিনি মুদ্রায় এবং জুম্মাহের খুতবার আগের বয়ানে নিজের কৃতিত্ব বর্ণনার আদেশ দেন।
'''আলাউদ্দিন খলজি''' বা '''আলাউদ্দিন খিলজি''' নিজ পিতৃব্য ও খলজি বংশের প্রতিষ্ঠাতা [[জালালউদ্দিন খিলজি]]কে হত্যা করে আলাউদ্দিন খলজি ১২৯৬ খ্রিস্টাব্দে দিল্লির সিংহাসন দখল করেন । তিনি ১২৯৬ খ্রিস্টাব্দ থেকে ১৩১০ খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত রাজত্ব করেন। তিনি একজন অত্যাচারী রাজা ছিলেন। তিনি বিভিন্ন রাজ্যে লুটপাট চালাতেন। তিনি সব সময় পেশিশক্তির ব্যবহার করতেন, তার ধর্মান্ধতার কারণে পরবর্তীতে সুলতানি শাসনের পতন ঘটে।
 
ইলবেরি তুর্কি আমলে ভারতে দিল্লি সুলতানির যে ভিত্তি স্থাপিত হয়েছিল, আলাউদ্দিন খলজির তা পরিপূর্ণ রূপ গ্রহন করেছিল । উত্তর ও দক্ষিণ ভারতের বিস্তৃত এলাকা জুড়ে সাম্রাজ্য স্থাপনের সঙ্গে সঙ্গে শাসনতান্ত্রিক সংস্কার চালু করে নিজ কর্তৃত্ব সুদৃঢ় করতে তিনি সচেষ্ট হয়েছিলেন । তার দৃঢ়তায় মঙ্গল আক্রমণ থেকে ভারতবর্ষ রেহাই পায়। এই দিক দিয়ে বিচার করলে তাঁকে সুলতানি আমলের শ্রেষ্ঠ সম্রাট বলা যেতে পারে । 
আলাউদ্দিন খিলজি ছিলেন খিলজি বংশের প্রতিষ্ঠাতা জালালুদ্দিন খিলজির ভাতিজা এবং জামাতা। মাম্লূকশদেরকে পরাজিত করে জালালুদ্দিন খিলজি যখন দিল্লি দখল করে নেন তখন আলাউদ্দিন খিলজিকে আমির-ই-তুজুখ বা উদযাপন মন্ত্রী পদ দেওয়া হয়।১২৯১ সালে জালালুদ্দিন খিলজির কাছ থেকে কারা্ নামক অঞ্চল দখল করে নেন।১২৯৬ সালে বসিলা অবরোধ করে আবাধ দখল করে।তার পরিচালনা শুরু করেন। আবার ১২৯৬ সালে দেভাগিরি অবরোধ করেন এবং জালালুদ্দিনের বিপুল পরিমানের সম্পদ দখল করে নেন।জালালুদ্দিন খিলজিকে হত্যা করে, তিনি দিল্লিতে নিজের শাসন প্রতিষ্ঠা করেন এবং পরবর্তীতে জালালুদ্দিনের ছেলের কাছ থেকে মুলতান দখল করে নেন।
 
==রাজ্যজয়==
২০টি

সম্পাদনা