"প্রথম সুলাইমান" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
(বট নিবন্ধ পরিষ্কার করেছে। কোন সমস্য থাকল এর পরিচালককে জানান।)
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
'''প্রথম সুলাইমান''' ([[উসমানীয় তুর্কি ভাষা|উসমানীয় তুর্কি ভাষায়]]: سليمان اوّل) ("সুলায়মান দ্য ম্যাগ্নিফিসেন্ট", তুর্কি ভাষায় মুহতেশিম সুলাইমান বা মহৎ সুলায়মান নামে পশ্চিমা বিশ্বে পরিচিত, তুরস্কে কানুনি সুলতান সুলাইমান নামে পরিচিত) ছিলেন [[উসমানীয় সাম্রাজ্য|উসমানীয় সাম্রাজ্যের]] দশম এবং সবচেয়ে দীর্ঘকালব্যাপী শাসনরত সুলতান, যিনি [[১৫২০]] সাল থেকে [[১৫৬৬]] সালে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত [[উসমানীয় সাম্রাজ্য]] শাসন করেন।<ref>Merriman.</ref> পাশ্চাত্ত্যে তিনি মহৎ সুলাইমান হিসেবেও পরিচিত। তিনি পুর্নবারের জন্য সম্পূর্ণভাবে উসমানীয় সাম্রাজ্যের নীতিমালাগুলো তৈরি করেছিলেন বলে প্রাচ্যে তাঁকে বলা হয় বিধানকর্তা সুলাইমান ({{lang-ar|سليمان القانوني}})। প্রথম সুলাইমান ষোড়শ শতাব্দীর ইউরোপে একজন বিশিষ্ঠ রাজা হিসেবে স্থান লাভ করেন, যার শাসনামলে উসমানীয় সাম্রাজ্যের সামরিক, রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক শক্তির বিস্তার ঘটে। সুলতান সুলাইমানের সেনাবাহিনী রোমান সাম্রাজ্য এবং [[হাঙ্গেরি|হাঙ্গেরির]] অনেক শহরের পতন ঘটায়। কিন্তু ১৫২৯ সালে [[পঞ্চম চার্লস, রোমান সম্রাট|রোমান সম্রাট, পঞ্চম চার্লসের]] সেনাবাহিনী সুলতান সুলাইমানের সেনাবাহিনীকে ভিয়েনা শহর দখল করতে ব্যর্থ করে। প্রথম সুলাইমান [[পারস্য|পারস্যের]] সাফাভিদ সুলতান, প্রথম তাহমাসবের বিরুদ্ধে যুদ্ধ পরিচালনা করেন এবং [[মধ্য প্রাচ্য|মধ্য প্রাচ্যের]] বেশির ভাগ অঞ্চল দখল করে নেন। তিনি [[উত্তর আফ্রিকা|উত্তর আফ্রিকায়]] [[আলজেরিয়া]] সহ বড় বড় অঞ্চলগুলো রোমান সাম্রাজ্যের হাত থেকে দখল করে নেয়। তাঁর শাসনামলে উসমানীয় নৌবাহিনী [[ভূমধ্যসাগর]] থেকে [[লোহিত সাগর]] ও [[পারস্য উপসাগর]] পর্যন্ত তাদের আধিপত্য বজায় রাখে।<ref>Mansel, 61.</ref> সুলতান সুলায়মান ছিলেন উসমানীয় সাম্রাজ্যের সবেচেয়ে শক্তিশালী ও ক্ষমতাবান সুলতান।
 
উসমানীয় সাম্রাজ্যের বিস্তারকালে, সুলতান সুলাইমান ব্যাক্তিগতভাবে তাঁর সাম্রাজ্যের সমাজ ব্যবস্থা, শিক্ষা ব্যবস্থা, খাজনা ব্যবস্থা ও অপরাধের শাস্তি ব্যবস্থার বিষয়গুলোতে আইনপ্রণয়নসংক্রান্ত পরিবর্তন আনার আদেশ দেন। তিনি যেসব কানুনগুলো স্থাপন করে গেছেন, সেসব কানুনগুলো উসমানীয় সাম্রাজ্যে অনেক শতাব্দী ধরে প্রচলিত ছিল।<ref name=atil24>Atıl, 24.</ref> সুলতান সুলাইমান যে শুধু একজন মহান রাজা ছিলেন তা নয়, তিনি একজন মহান কবিও ছিলেন। "মুহিব্বি" (অর্থ:প্রেমিক) নামক ছদ্ম উপনামে তিনি তুর্কি ও ফারসি ভাষায় বহু কালজয়ী কবিতা লিখেছেন। তাঁর শাসনামলে উসমানীয় সংস্কৃতির অনেক উন্নতি হয়।হয়।তিনি সুলতানএকজন যোগ্য শাসক ছিলেন।ন্যায় বিচার স্থাপন করেছিলেন।সুলতান সুলাইমান [[উসমানীয় তুর্কি ভাষা]] সহ আরো পাঁচটি ভিন্ন ভাষায় কথা বলতে পারতেন: [[আরবী ভাষা]], [[সার্বীয় ভাষা]], [[ফার্সি ভাষা]], [[উর্দু ভাষা]] এবং [[চাগাতাই ভাষা]] (একটি বিলুপ্ত তুর্কি ভাষা)।
 
জানা যায় যে, সুলতান সুলাইমান উসমানীয় সাম্রাজ্যের দু'শ বছরের সংসকৃতিরসংস্কৃতির নিয়ম ভঙ্গ করে তাঁর হারেমের একজন কানিজ, রোক্সেলানার সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। রোক্সেলানার নাম পরবর্তীকালে হুরেম সুলতান রাখা হয়। তিনি সুলতান সুলাইমানের পুত্র, [[উসমানীয় সাম্রাজ্যের শাহেনশাহ দ্বিতীয় সেলিম|সেলিম ইবনে সুলাইমানের]] গর্ভধারণী হন। সুলতান সুলাইমানের মৃত্যুর পর, [[উসমানীয় সাম্রাজ্যের শাহেনশাহ দ্বিতীয় সেলিম|সেলিম ইবনে সুলাইমান]], '[[উসমানীয় সাম্রাজ্যের শাহেনশাহ দ্বিতীয় সেলিম|দ্বিতীয় সেলিম]]' হিসেবে উসমানীয় সাম্রাজ্যের সুলতান হন।
 
==বিকল্প নাম ও উপাধিসমূহ==
৬৭টি

সম্পাদনা