"রিচার্ড উইডমার্ক" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

রিচার্ড উইডমার্ক
(রিচার্ড উইডমার্ক)
 
{{quotation | চলচ্চিত্র নির্মাণের যাদুগুলো হারিয়ে গেছে। এখন সবকিছুই একটা যান্ত্রিক প্রক্রিয়া...সবাই চায় ক্যামেরা ঘুরাতে, যেন এটা একটা রোলারকোস্টারের উপর স্থাপিত। জন ফোর্ডের মত স্বনামধন্য পরিচালক জানতেন কিভাবে এটা ব্যবহার করতে হয়। ফোর্ড কখনো ক্যামেরা নড়াতেন না, তিনি নড়াতেন মানুষকে। }}
 
== টেলিভিশন ==
১৯৫৪ সালের “হোয়াটস মাই লাইন” টেলিভিশন ধারাবাহিকে উইডমার্ক অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন। পরের বছর তিনি “আই লাভ লুসি” ধারাবাহিকে স্ব-ভূমিকায় অভিনয় করেন।
 
১৯৭০-এর প্রথমদিকে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি পল রুডবুশ-এর চরিত্রে “ভ্যানিশড” নামে একটি টেলিভিশন ছায়াছবিতে অভিনয়ের জন্য এমি পুরস্কারের জন্য মনোনীত হন। এছারা তিনি আরো কয়েকটি টেলিভিশন চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন।
 
== ব্যক্তিগর জীবন ==
উইডমার্ক চিত্রনাট্যকার জীন হেইযেলউডের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন ১৯৪২ সালে এবং একসাথে ছিলেন ১৯৯৭ সালে তাঁর মৃত্যু পর্যন্ত। তাঁদের একটি কন্যা সন্তান আছে, এন হীথ উইডমার্ক নামে। তিনি একজন অঙ্কন শিল্পী এবং লেখক। ১৯৯৯ সালে উইডমার্ক সুযান ব্ল্যানচার্ডের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।
 
মিসৌরি অঙ্গরাজ্যের ছোট্ট শহর গ্রীন সিটিতে একটি বিমানবন্দর আছে যার নাম উইডমার্ক এয়ারপোর্ট। এত ছোট শহরে বিমানবন্দর থাকার কথা নয়, কিন্তু সেই এলাকায় উইডমার্কের একটি ভেড়ার খামার ছিল এবং উইডমার্ক বিমানবন্দর নির্মাণের জন্য অর্থ সাহায্য দেন তাই এর নামও তাঁর নামে রাখা হয়।
 
যদিও উইডমার্ক তাঁর অভিনয় পেশার বেশীরভাগ সময় কাউবয়, পুলিশ, সৈন্য এবং গুন্ডার চরিত্রে অভিনয় করেছেন, ব্যক্তিগত জীবনে তিনি বন্দুক অপছন্দ করতেন এবং কিছু আগ্নেয়াস্ত্র বিরোধী কর্মে অংশ নেন। তিনি ১৯৭৬ সালে বলেনঃ
 
আমি জানি আমার অভিনয় জীবনের বেশীরভাগ ক্ষেত্রে হিংস্রতাই ছিল আমার অভিনয়ের মূল বিষয়, কিন্তু আমি হিংস্রতা ঘৃণা করি। আমি আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ন্ত্রণের একজন গোঁড়া সমর্থক। আমি খুবই আশ্চর্যিত যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র পৃথিবীতে একমাত্র সভ্য দেশ যেখানে আজো আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ন্ত্রণে কোন কার্যকরী পদক্ষেপ নেয়া হয়নি।
 
== মৃত্যু ==
উইডমার্ক ২০০১ সালে অবসর নেন। তারপর বহুদিন অসুস্থতার পর তিনি তাঁর বাসস্থান রক্সবারি, কানেটিকাটে মৃত্যুবরণ করেন ২৪শে মার্চ ২০০৮ খৃষ্টাব্দে। তাঁর বয়স হয়েছিল ৯৩। ২০০৯ সালে একাডেমি পুরস্কার অনুষ্ঠানে তাঁকে সম্মান জানানো হয় একটি স্মারক সম্মাননা দিয়ে। তাঁকে সমাহিত করা হয় রক্সবারি সেন্টার সমাধিক্ষেত্রে।
৫৮৬টি

সম্পাদনা