"লিওনেল প্যালেরিট" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্প্রসারণ
(পালাইরেট --> প্যালেরিট)
(সম্প্রসারণ)
১৮৯২ সালে প্যালেরিটকে অক্সফোর্ড দলের নেতৃত্বের দায়িত্ব দেয়া হয়। [[উইজডেন ক্রিকেটার্স অ্যালমেনাক|উইজডেনের]] ভাষ্য মতে, মৌসুমটি সর্বাধিক সফলতম ছিল। প্যালেরিট নিজেকে [[বোলিং (ক্রিকেট)|বোলার]] হিসেবে তুলে ধরার প্রয়াস চালান। কেবলমাত্র [[George Berkeley (cricketer)|জর্জ বার্কলি]] তাঁর তুলনায় অধিক বল করেছিলেন।<ref name="Bolton1892">Bolton (1962), pp. 140–144.</ref> সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে দুইবার ইনিংসে পাঁচ উইকেট পেয়েছেন। তন্মধ্যে, জেন্টলম্যানের বিপক্ষে অক্সফোর্ডের প্রথম ইনিংসে প্রথমবারের মতো পাঁচ উইকেট লাভে সক্ষমতা দেখান।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/3/3795.html |title=Oxford University v Gentlemen of England: University Match 1892 |publisher=CricketArchive |accessdate=19 November 2012}}</ref> এরপর ল্যাঙ্কাশায়ারের উভয় ইনিংসে চারটি করে উইকেট তুলে নেন ও খেলায় তিনি অর্ধ-শতকেরও সন্ধান পান।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/3/3802.html |title=Oxford University v Lancashire: University Match 1892 |publisher=CricketArchive |accessdate=19 November 2012}}</ref> ফিরতি খেলায় ল্যাঙ্কাশায়ারের বিপক্ষে নিজস্ব ব্যক্তিগত সেরা বোলিং পরিসংখ্যান দাঁড় করান। ওল্ড ট্রাফোর্ডে ৬/৮৪ বোলিং পরিসংখ্যান গড়েছিলেন।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/3/3824.html |title=Lancashire v Oxford University: University Match 1892 |publisher=CricketArchive |accessdate=19 November 2012}}</ref> পরের খেলায় সাসেক্সের বিপক্ষে দুইটি মনোজ্ঞ ইনিংস খেলেন ও বোলিং করেন যা বোল্টনের ভাষ্য মতে খেলায় বেশ প্রভাববিস্তার করে।<ref name="Bolton1892"/> বিশ্ববিদ্যালয়ের খেলায় কেমব্রিজের মুখোমুখি হন। প্রথম ইনিংসে শূন্য রানে বিদায় নেন। তবে, [[Malcolm Jardine|ম্যালকম জারদিন]] ও [[Vernon Hill|ভার্নন হিলের]] সেঞ্চুরির বদৌলতে অক্সফোর্ড ৩৬৫ রান তুলে। কেমব্রিজ দল ১৬০ রানে অল-আউট হলে [[ফলো-অন|ফলো-অনের]] কবলে পড়ে। ৩৮৮ রানে গুটিয়ে গেলে অক্সফোর্ডের জয়ের লক্ষ্যমাত্রা দাঁড়ায় ১৮৪। [[ফিল্ডিং (ক্রিকেট)|ফিল্ডিং]] চলাকালে প্যালেরিট আহত হন। ব্যাটিং উদ্বোধনের জন্য [[Frank Phillips (cricketer)|ফ্রাঙ্ক ফিলিপসকে]] তাঁর স্থলে দাঁড় করান। শুরুটা অক্সফোর্ড ভালো করতে পারেনি। ১৭/২ থাকা অবস্থায় ছিল। প্যালেরিট পাঁচ নম্বরে ব্যাটিংয়ে নামেন। প্রায় দেড়ঘন্টা ক্রিজ আঁকড়ে থেকে ৭১ রান তুলেন ও দলের বিজয়ে অসামান্য ভূমিকা পালন করেন। ১৮৯২ সালে অক্সফোর্ডের পক্ষে ব্যাটিং গড়ে শীর্ষস্থানে আরোহণ করেন। ৩৬.৩৫ গড়ে ৫০৯ রান তুলেন ও ২২.২৮ গড়ে ২৮ উইকেট পান।<ref name="Bolton1892"/>
 
বিশ্ববিদ্যালয় খেলায় অসামান্য ভূমিকার কারণে মর্যাদাসম্পন্ন জেন্টলম্যান বনাম প্লেয়ার্সের খেলায় তাঁকে মনোনীত করা হয়। লর্ডস ও ওভালের ঐ খেলাগুলোয় তিনি জেন্টলম্যানের পক্ষাবলম্বন করেন। সমারসেটে ফিরে জুলাইয়ে শুরুতে গ্লুচেস্টারশায়ারের বিপক্ষ সেঞ্চুরি হাঁকান।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/3/3842.html |title=Gloucestershire v Somerset: County Championship 1892 |publisher=CricketArchive |accessdate=20 November 2012}}</ref> আগস্টের শেষদিকে [[ইয়র্কশায়ার কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাব|ইয়র্কশায়ারের]] বিপক্ষে ১৩২ রান তুলেন। এ সময় হিউইটের সাথে ৩৪৬ রানে জুটি গড়েন।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/3/3881.html |title=Somerset v Yorkshire: County Championship 1892 |publisher=CricketArchive |accessdate=20 November 2012}}</ref> এ পর্যায়ে ১৮৬৯ সালে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে প্রথম উইকেট জুটিতে [[ডব্লিউ. জি. গ্রেস]] ও [[ব্রান্সবি কুপার|ব্রান্সবি কুপারের]] ২৮৩ রানে জুটির সংগ্রহকে ম্লান করে দেন তাঁরা।<ref>Roebuck (1991), p. 62.</ref> যদিও তাঁদের গড়া এ রেকর্ডটি পরবর্তীতে ভেঙ্গে যায়; তবুও অদ্যাবধি সমারসেটের প্রথম উইকেট জুটিতে বহাল তবিয়তে টিকে রয়েছে। {{efn|name="asof"}}<ref>{{cite web |url=https://cricketarchive.com/Archive/Records/England/Firstclass/Somerset/Partnership_Records/Highest_Partnership_Each_Wicket_For.html |title=Highest Partnership for Each Wicket for Somerset |publisher=CricketArchive |accessdate=20 November 2012}}</ref> [[Harry Altham|এইচ.এস. অ্যাল্থাম]] ও [[E. W. Swanton|ই. ডব্লিউ. সোয়ানটনের]] যৌথভাবে রচিত এ হিস্ট্রি অব ক্রিকেট গ্রন্থে এ প্রসঙ্গে উল্লেখ রয়েছে যে, এক প্রান্তে বিশুদ্ধ চাকচিক্যময় ও অন্য প্রান্তে খাঁটি আক্রমণ ছিল।<ref name="altham">Altham, Swanton (1938), p. 205.</ref> ঐ সময়ে দ্য ডেইলি টেলিগ্রাফ তাদের প্রতিবেদনে উল্লেখ করে যে, এ জুটি সাড়ে তিন ঘন্টারও অধিক সময় ক্রিজে অবস্থান করে। প্যালেরিট তাঁর ইনিংসে একটি [[Boundary (cricket)#Scoring runs|ছক্কা]] ও উনিশটি চারের মার মেরেছিলেন।<ref>{{cite book |editor1-first=Norman |editor1-last=Barrett |title=The Daily Telegraph Chronicle of Cricket |year=1994 |publisher=Guinness Publishing |location=London |isbn=0-85112-746-0 |page=40 |chapter=1892}}</ref> মৌসুম শেষে দুইটি প্রতিনিধিত্বকারী দলের খেলোয়াড় হিসেবে মনোনীত হন তিনি। [[West of England cricket team|ওয়েস্টের]] সদস্যরূপে [[East of England cricket team|ইস্টের][] বিপক্ষে এবং হ্যাস্টিংসে অনুষ্ঠিত খেলায় জেন্টলম্যানের সদস্যরূপে প্লেয়ার্সের বিপক্ষে অংশ নেন।<ref name="fcm"/> ঐ বছরে সকল প্রথম-শ্রেণীর খেলায় অংশ নিয়ে ১,৩৪৩ রান তুলেন যা তৃতীয় সর্বোচ্চ সংগ্রহ ছিল।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Seasons/Seasonal_Averages/ENG/1892_f_Batting_by_Runs.html |title=First-class Batting and Fielding in England for 1892 (Ordered by Runs) |publisher=CricketArchive |accessdate=20 November 2012}}</ref>
 
১৮৯৩ সালে উইজডেন ক্রিকেটার্স অ্যালমেনাক তাঁকে বর্ষসেরা পাঁচজন খেলোয়াড়ের একজনরূপে স্বীকৃতি দেয়। এ প্রসঙ্গে উইজডেন মন্তব্য করে যে, তেমন কোন সন্দেহে নেই যে ক্রিকেট বিশ্ব এরচেয়ে অধিক স্বীকৃতি দিতে কালবিলম্ব করবে।<ref name="coty"/>
 
== শৌখিন ব্যাটসম্যান ==
ডব্লিউ. জি. গ্রেসের ভাষ্য মোতাবেক জানা যায়, পরবর্তী মৌসুমগুলোয় প্যালেরিট শৌখিন ব্যাটসম্যানদের তালিকায় সম্মুখসারিতে অবস্থান করেছিলেন।<ref>{{cite book |last1=Grace |first1=W.G. |authorlink1=W. G. Grace |title='W.G.' Cricketing Reminiscences & Personal Recollections |year=1980 |origyear=1899 |publisher=The Hambledon Press |location=London |isbn=0-9506882-0-7 |page=367}}</ref> ১৮৯৩ সালে [[আর্থার শ্রিউসবারি|আর্থার শ্রিউসবারি’র]] নেতৃত্বাধীন ইংল্যান্ড একাদশের সদস্যরূপে অস্ট্রেলিয়া সফরে যান। খেলায় তিনি ৭১ রান তুলে ইংরেজ দলের ইনিংস ও ১৫৩ রানের বিজয়ে প্রভূতঃ ভূমিকা রাখেন।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/3/3976.html |title=A Shrewsbury's England XI v Australians: Australia in England 1893 |publisher=CricketArchive |accessdate=20 November 2012}}</ref>{{efn|"Arthur Shrewsbury's England XI" was not a representative national side.}} ঐ গ্রীষ্মে সমারসেটের পক্ষে পাঁচটি অর্ধ-শতক করেন। ২৮.৯৪ গড়ে সংগৃহীত রানগুলো কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশীপে কেবলমাত্র দলীয় সঙ্গীর হিউইটের চেয়ে কম ছিল।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Events/0/County_Championship_1893/Somerset_Batting.html |title= Batting and Fielding for Somerset: County Championship 1893 |publisher=CricketArchive |accessdate=20 November 2012}}</ref> পরের বছর পালাইরেট তাঁর সাবেক বিশ্ববিদ্যালয় দলের মুখোমুখি হন ও বড় ধরনের রান তুলেন। বিশ্ববিদ্যালয় দলে তাঁর ভাই [[Richard Palairet|রিচার্ড পালাইরেট]] ও ফ্রাই অধিনায়কত্ব করছিলেন। সমারসেটের দ্বিতীয় ইনিংসে ১৮১ রান তুলেন যা ঐ সময়ে তাঁর খেলোয়াড়ী জীবনের সর্বোচ্চ প্রথম-শ্রেণীর রান ছিল।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/4/4116.html |title=Oxford University v Somerset: University Match 1894 |publisher=CricketArchive |accessdate=20 November 2012}}</ref> এছাড়াও নটিংহ্যামশায়ারের বিপক্ষে ১১৯ রান তুলে সাবেক প্রশিক্ষক অ্যাটওয়েলের বলে লেগ বিফোর উইকেটের শিকারে পরিণত হন।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/4/4170.html |title=Nottinghamshire v Somerset: County Championship 1894 |publisher=CricketArchive |accessdate=20 November 2012}}</ref> ১৮৯৪ সালে অল্পের জন্য সহস্রাধিক প্রথম-শ্রেণীর রানের মাইলফলক স্পর্শ করতে পারেননি তিনি। ঐ বছর সফরকারী দক্ষিণ আফ্রিকা দলের বিপক্ষে দুইটি অর্ধ-শতকের ইনিংস খেললেও খেলাগুলো প্রথম-শ্রেণীর মর্যাদা না পাওয়ায় এ মাইলফলক লাভ করতে পারেননি লিওনেল পালাইরেট।<ref name="batbs">{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Players/0/260/f_Batting_by_Season.html |title= First-class Batting and Fielding in Each Season by Lionel Palairet |publisher=CricketArchive |accessdate=20 November 2012}}</ref><ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/105/105717.html |title=Somerset v South Africans: South Africa in British Isles 1894 |publisher=CricketArchive |accessdate=20 November 2012}}</ref>
 
১৮৯৫ সালে জাতীয় ব্যাটিং গড়ে লিওনেল পালাইরেট চতুর্থ স্থানে অবস্থান করেছিলেন।{{efn|name="1000runs"|Amongst batsmen with over 1,000 first-class runs.}} ৪৬.৮৯ গড়ে ১,৩১৩ রান তুলেন। ইংল্যান্ডের পক্ষে অংশগ্রহণকারী অপর তিনজন ব্যাটসম্যান - [[আর্চি ম্যাকলারেন]], গ্রেস ও রণজিতসিংজীই কেবল তাঁর তুলনায় অধিক গড়ে রান তুলেছিলেন।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Seasons/Seasonal_Averages/ENG/1895_f_Batting_by_Average.html |title=First-class Batting and Fielding in England for 1895 (Ordered by Average) |publisher=CricketArchive |accessdate=21 November 2012}}</ref> ঐ মৌসুমে পালাইরেট তিনটি সেঞ্চুরি করেন। দুইটি মিডলসেক্সের বিপক্ষে করেন। শেষেরটিতে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ব্যাটিং করে অপরাজিত ছিলেন।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/4/4324.html |title=Middlesex v Somerset: County Championship 1895 |publisher=CricketArchive |accessdate=21 November 2012}}</ref><ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/4/4417.html |title=Somerset v Middlesex: County Championship 1895 |publisher=CricketArchive |accessdate=21 November 2012}}</ref> অপরটিতে ইয়র্কশায়ারের বিপক্ষে ১৬৫ রান করেন।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/4/4449.html |title=Somerset v Yorkshire: County Championship 1895 |publisher=CricketArchive |accessdate=21 November 2012}}</ref> পরের বছর আবারও সহস্রাধিক রান তুলেন। ৪০ ঊর্ধ্ব ব্যাটিং গড়ে রান তোলা অব্যাহত রাখেন।<ref name="batbs"/> চতুর্থ ইনিংসে অপরাজিত ৮৩ রানে ইনিংসটি রণজিতসিংজীর কাছ থেকে ভূয়সী প্রশংসা লাভ করেন। ব্যাটিং অনুপযোগী [[Cricket pitch|পিচে]] এক প্রান্ত আগলে রেখে দলকে ড্রয়ের দিকে নিয়ে যেতে সক্ষমতা দেখান তিনি।<ref>Ranjitsinhji (1897), pp. 194–196.</ref> এক মাস পর প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রান তুলেন। হ্যাম্পশায়ারের বিপক্ষে ২৯২ রানের এ ইনিংসটি তাঁর প্রথম দ্বি-শতক ছিল।<ref name="trove66534145">{{cite news |url=http://nla.gov.au/nla.news-article66534145?searchTerm=%22Palairet%22&searchLimits= |title=Palairet's success |work=The Inquirer & Commercial News |location=Perth, Western Australia |date=28 August 1896 |accessdate=21 November 2012}}</ref> ঐ সময়ে সমারসেটের যে-কোন ব্যাটসম্যানের তুলনায় তাঁর এ সংগ্রহটি সর্বোচ্চ ছিল। <ref>{{cite book |title=The History of Cricket |publisher=Seeley Service |last=Parker |first=Eric |year=1950 |page=405|oclc= 2603213}}</ref>{{efn|Palairet's score was surpassed as the highest for Somerset by [[Harold Gimblett]] in 1948, and as of December 2012, is the ninth highest score by a Somerset player.<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Records/England/Firstclass/Somerset/Batting_Records/Highest_Innings_For.html |title=Most Runs in an Innings for Somerset |publisher=CricketArchive |accessdate=21 November 2012}}</ref>}} এ প্রসঙ্গে অস্ট্রেলিয়ার এক সংবাদপত্রে তাঁর ইনিংস সম্পর্কে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছিল। এতে বলা হয় যদি তিনি তাঁর এ খেলার ধারা অব্যাহত রাখেন, তাহলে ওভালে সিরিজের চূড়ান্ত টেস্টে অবশ্যই তাঁকে দেখা যাবে।<ref name="trove66534145"/> হ্যাম্পশায়ারের পর ওভাল ও লর্ডসে জেন্টলম্যানের খেলার কোনটিতেই বড় ধরনের কোন প্রভাব ফেলতে পারেননি তিনি।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/4/4587.html |title=Gentlemen v Players: Other First-Class matches in England 1896 |publisher=CricketArchive |accessdate=21 November 2012}}</ref><ref>{{cite web |url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/4/4599.html |title=Gentlemen v Players: Other First-Class matches in England 1896 |publisher=CricketArchive |accessdate=21 November 2012}}</ref> টনটনে স্বাগতিক সাসেক্সের বিপক্ষে পুণরায় নিজেকে মেলে ধরেন। ১৫৪ রান তুলেন তিনি। এ পর্যায়ে স্বীয় ভ্রাতার সাথে ২৪৯ রানের জুটি গড়েন।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/4/4637.html |title=Somerset v Sussex: County Championship 1896 |publisher=CricketArchive |accessdate=21 November 2012}}</ref> খেলাটি চূড়ান্ত টেস্ট শুরুর অল্প কয়েকদিন পূর্বে অনুষ্ঠিত হয়েছিল। অস্ট্রেলীয় গণমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশিত হলেও পালাইরেটকে খেলায় অংশগ্রহণের জন্য মনোনয়ন দেয়া হয়নি। তবে, ঐ গ্রীষ্মে সফরকারী দলের বিপক্ষে দুইবার অংশ নিয়েছিলেন।<ref name="fcm"/> সমারসেটের পক্ষে দুই ইনিংসে তিনি মাত্র ছয় রান তুলেছিলেন।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/4/4665.html |title=Somerset v Australians: Australia in England 1896 |publisher=CricketArchive |accessdate=21 November 2012}}</ref> স্কারবোরা উৎসবে [[Charles Thornton (cricketer)|চার্লস থর্নটন]] একাদশের সদস্যরূপে খেলেন ও ৭১ রান তুলে দলকে ইনিংস বিজয়ে ভূমিকা রাখেন।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/4/4673.html |title=CI Thornton's XI v Australians: Australia in England 1896 |publisher=CricketArchive |accessdate=21 November 2012}}</ref>
 
১৮৯৭ সালে খুব কমসংখ্যক প্রথম-শ্রেণীর খেলায় অংশ নেন পালাইরেট। মাত্র বারো খেলায় অংশ নিয়ে ৩০-এর কম গড়ে ৫৯৩ রান করেন। ১৮৯৫ থেকে ১৯০৬ সালের মধ্যে এটিই তাঁর সর্বনিম্ন গড় ছিল।<ref name="batbs"/> তাস্বত্ত্বেও সমারসেট কর্তৃপক্ষ তাঁর উপর বেশ আস্থা রেখেছিলেন। ১৮৯৭ সালে কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশীপে কাউন্টি দলটির ব্যাটিং গড়ে তিনি শীর্ষস্থানে আরোহণ করেন।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Events/0/County_Championship_1897/Somerset_Batting.html |title= Batting and Fielding for Somerset: County Championship 1897 |publisher=CricketArchive |accessdate=22 November 2012}}</ref> ১৮৯৮ সালে চারবারের মধ্যে তৃতীয়বার সহস্রাধিক প্রথম-শ্রেণীর রান তুলেন।<ref name="batbs"/> ব্রিস্টলে গ্লুচেস্টারশায়ারের বিপক্ষে অপরাজিত ১৭৯ রানের মূল্যবান ইনিংস উপহার দেন।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/5/5043.html |title=Gloucestershire v Somerset: County Championship 1898 |publisher=CricketArchive |accessdate=22 November 2012}}</ref> মৌসুমের শেষভাগে প্রথমবারের মতো সমারসেট দলকে নেতৃত্ব দিয়ে একই দলের বিপক্ষে দলকে ইনিংস ও ১৬৯ রানের জয় এনে দেন।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/cgi-bin/player_oracle_reveals_results2.cgi?playernumber=260&opponentmatch=exact&playername=R&resulttype=All&matchtype=FirstClass&teammatch=exact&startwicket=&homeawaytype=All&opponent=&endwicket=&wicketkeeper=&searchtype=InningsList&endscore=&playermatch=contains&branding=cricketarchive&captain=on&endseason=&startscore=&team=Somerset&startseason= |title=Player Oracle Reveals Results: LCH Palairet as captain in first-class matches where team is Somerset |publisher=CricketArchive |accessdate=22 November 2012}}</ref> স্কারবোরা উৎসবে দুই খেলায় অংশ নেন। তন্মধ্যে, জেন্টলম্যানের সদস্যরূপে প্লেয়ার্সের বিপক্ষে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ৫৪ রান করেছিলেন।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/5/5109.html |title=Gentlemen v Players: Other First-Class matches in England 1898 |publisher=CricketArchive |accessdate=22 November 2012}}</ref><ref name="batbo">{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Players/0/260/f_Batting_by_Opponent.html |title=First-class Batting and Fielding Against Each Opponent by Lionel Palairet |publisher=CricketArchive |accessdate=22 November 2012}}</ref> এছাড়াও, থর্নটনের নেতৃত্বাধীন ইংল্যান্ড একাদশের সদস্যরূপে কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশীপের শিরোপাধারী দল ইয়র্কশায়ারের বিপক্ষে অনুষ্ঠিত খেলায় অংশ নেন।
 
 
১৮৯৯ সালের পুরোটা সময় [[appendicitis|অ্যাপেন্ডিসাইটিসের]] কারণে খেলা থেকে দূরে অবস্থান করতে বাধ্য হন।<ref name="bailys"/><ref>Foot (1986), p. 69.</ref> তবে, বেইলিজ ম্যাগাজিন অব স্পোর্টস এন্ড পাসটাইমসে উল্লেখ করা হয় য, ঐ গ্রীষ্মে তিনি হয়তোবা ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার খেলায় অংশ নিতে পারতেন।<ref name="bailys"/> ১৯০০ সালে খেলার জগতে ফিরে আসেন। ৩৫.০৭ গড়ে ৯৪৭ রান তুলেন।<ref name="batbs"/> হ্যাম্পশায়ারের বিপক্ষে ১৬১ রানের একমাত্র সেঞ্চুরিটি করেন।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/5/5511.html |title=Hampshire v Somerset: County Championship 1900 |publisher=CricketArchive |accessdate=24 November 2012}}</ref> এ সময় [[Charles Bernard (cricketer)|চার্লস বার্নার্ডের]] সাথে ২৬২ রানের জুটি গড়েন।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Records/England/Firstclass/Somerset/Partnership_Records/Highest_Partnerships_Somerset_v_Hampshire.html |title=Highest Partnerships For Somerset Against Hampshire |publisher=CricketArchive |accessdate=24 November 2012}}</ref>
 
১৯০১ সালে দারুণ সময় অতিবাহিত করেন লিওনেল পালাইরেট। পরিসংখ্যানগতভাবে কেবলমাত্র ফ্রাই ও রণজিত সিংহের পরই জাতীয় ব্যাটিং গড়ে অবস্থান করেন।{{efn|name="1000runs"}} ইয়র্কশায়ারের বিপক্ষে মনোমুগ্ধকর ১৭৩ রানের ইনিংসটি সকলের মনোযোগের কেন্দ্রবিন্দুতে উপনীত হয়।<ref name="wisdenobit"/> ১৯০০ সালে ইয়র্কশায়ার কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশীপের শিরোপাধারী দল ছিল। খেলাটি হেডিংলি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হয় ও ১৯০১ সালে দলের একমাত্র পরাজয়ের স্বাদ আস্বাদন করে সমারসেটের কাছে।<ref>{{cite web|url=https://cricketarchive.com/Archive/Scorecards/5/5740.html |title=Yorkshire v Somerset: County Championship 1901 |publisher=CricketArchive |accessdate=28 December 2012}}</ref> সমারসেট প্রথম ইনিংসে ৮৭ রানে অল-আউট হয় ও ইয়র্কশায়ার ৩২৫ রান তুলে ২৩৮ রানে এগিয়ে যায়। প্রথম ইনিংসে পালাইরেট ও সতীর্থ উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান [[লেন ব্রন্ড]] কোন রান তুলতে না পারলেও দ্বিতীয় ইনিংসে দুজনে ১৪০ মিনিট ব্যাটিং করে ২২২ রানের জুটি গড়েন।
 
== পাদটীকা ==
৭২,২৩৭টি

সম্পাদনা