"বান্ডা সাগর" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

|chapter=Chapter II (Geology of Timor-Leste)
|date=24 December 2003 |deadurl=yes }}
</ref>
 
 
== ভূকম্পন ==
 
[[File:USS George Washington operations 150705-N-XO220-004.jpg|thumb|ইউএসএস বান্ডা সাগর অতীক্রম করছে]]
এই অঞ্চলে ইউরেশীয়, প্রশান্ত এবং [[ইন্দো-অস্ট্রেলীয় পাত|ইন্দো-অস্ট্রেলীয়]] ভূত্বকীয় পাতের সংগমস্থল হওয়ার ফলে এই অঞ্চলে অধিক পরিমানে ভূমিকম্প হয়।
 
* ১৯৩৮-এর বান্ডা সাগরের ভূমিকম্পটি ১লা ফেব্রুয়ারী বান্ডা সমুদ্র অঞ্চলে ঘটে। মোমেন্ট ম্যাগনিটিউড স্কেলে এটির মাপ ছিল ৮.৪ এবং মেরকাল্লি তীব্রতা স্কেলে মাপ ছিল VII (অতি তীব্র) । এটি ১.৫ মিটার পর্যন্ত ধ্বংসাত্মক সুনামির সৃষ্টি করেছে, কিন্তু কোন মানুষই হারিয়ে যায়নি। এটি ১.৫ মিটার পর্যন্ত ধ্বংসাত্মক সুনামির সৃষ্টি করেছিল, কিন্তু কোন প্রাণের ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।<ref name=Engdahl>
{{cite book
|title=International Handbook of Earthquake & Engineering Seismology
|series=Part A, Volume 81A
|chapter=Global seismicity: 1900–1999
|first=E. R. |last=Engdahl |first2=A. |last2=Vallaseñor
|year=2002
|url=https://earthquake.usgs.gov/data/centennial/centennial.pdf
publisher=[[Academic Press]]
|edition=First
|isbn=978-0124406520 |page=677}}
</ref>
* ২০০৬-এর বান্ডা সাগরের ভূমিকম্পটি ২৬শে জানুয়ারি ঘটে। এর মাপ ছিল ৭.৬, এবং এটির উৎপত্তি স্থল ছিল আম্বন দ্বীপের ২০০ কি.মি. দক্ষিণে এবং পূর্ব তিমুরের ৪৪৫ কি.মি উত্তরে, ভূত্বকের থেকে ৩৯৭ কি.মি. নীচে। এই ভূকম্পনটির কারণ ছিল তিমুর খাতে তিমুর পাতের নীচে অস্ট্রেলীয় পাতের নিম্নস্খলন। <ref name=Intensity>
{{cite web
|title=M7.6 - Banda Sea
|url=https://earthquake.usgs.gov/earthquakes/eventpage/usp000e8ys#general_summary
|author=USGS|publisher=[[United States Geological Survey]]}}
</ref>