"বান্ডা সাগর" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

{{কাজ চলছে}}
 
{{Infobox body of water
| name = বান্ডা সাগর
}}
 
'''বান্ডা সাগর''' প্রশান্ত মহাসাগরের সঙ্গে সংযুক্ত ইন্দোনেশিয়ার[[ইন্দোনেশিয়া]]র মালুকি[[মালুকু দ্বীপপুঞ্জ|মালুকু দ্বীপপুঞ্জের]] একটি সাগর, যেটি শতাধিক দ্বীপপুঞ্জ, হালমাহেরা সাগর এবং [[সেরাম সাগর]] দ্বারা পরিবেষ্টিত। পূর্ব থেকে পশ্চিমে এর দৈর্ঘ্য প্রায় ১০০০ কি.মি. (৬২০ মাইল) এবং উত্তর থেকে দক্ষিনে এর দৈর্ঘ্য প্রায় ৫০০ কি.মি. (৩১০ মাইল)
 
== ব্যাপ্তি ==
[[আন্তর্জাতিক জল সর্বেক্ষণ সংগঠন]] (ইং: International Hydrographic Organization বা IHO বা আইএইচও) বান্ডা সাগরকে [[পূর্ব ভারতীয় দ্বীপপুঞ্জ]] অঞ্চলের জল হিসাবে সংজ্ঞায়িত করেছে। আইএইচও নিম্নোলিখিত ভাবে বান্ডা সাগরের সীমানা নির্ধারন করেছে:<ref>
{{cite web|url=http://www.iho.int/iho_pubs/standard/S-23/S-23_Ed3_1953_EN.pdf |title=Limits of Oceans and Seas, 3rd edition |year=1953 |publisher=International Hydrographic Organization |accessdate=7 February 2010 |df=dmy }}
|title=Limits of Oceans and Seas, 3rd edition
|year=1953
|publisher=International Hydrographic Organization
|accessdate=7 February 2010
|df=dmy }}
</ref>
<blockquote>
''উত্তরে'' মোলুক্কা সাগরের দক্ষিণ সীমান্ত এবং সেরাম সাগরের পশ্চিম এবং দক্ষিণ সীমান্ত।
</blockquote><blockquote>
''পূর্বে'' নোয়েহোয়ে তিয়োএত কাই বেসারের উত্তর বিন্দু তগ বোরাং থেকে এই দ্বীপ বরাবর দক্ষিণ বিন্দু অবধি, তারপর এই দ্বীপ বরাবর ফোরদাতার উত্তর-পূর্ব বিন্দু অবধি, এবং লারাতের এর উত্তরপূর্ব বিন্দু তানিম্বারটানিম্বার দ্বীপ ({{coord|7|06|S|131|55|E|display=inline}}) দিয়ে য়ামদেনা দ্বীপের পূর্ব উপকূল বরাবর তার দক্ষিণ বিন্দু অবধি, তারপর আঙ্গারমাসার মধ্যে দিয়ে সেলারোয়ের উত্তর বিন্দু অবধি, এবং তারপর এই দ্বীপের মধ্যে দিয়ে তার দক্ষিণ বিন্দু তগ আরো ওয়েসোয়ে ({{coord|8|21|S|130|45|E|display=inline}}) অবধি।
</blockquote><blockquote>
''দক্ষিণে'' তানজং আরো ওয়েসোয়ে বরাবর, তারপর সেরমাতারসেরমাটার মধ্যে দিয়ে লাকোর ''sic'' (লাকোভ), মোয়া এবং লেতি দ্বীপপুঞ্জের দক্ষিণ-পূর্ব বিন্দু তানজং নজাদোরা থেকে লেতির পশ্চিম বিন্দু তানজং তোয়েত পাতেহ অবধি, তারপর [[তিমুর|তিমুরের]] পূর্ব সীমান্তে তানজং সেউইরাওয়া বরাবার, এবং উত্তর উপকূল বরাবর ১২৫° পূর্ব দ্রাঘিমাংশ অবধি।
</blockquote>
[[File:Maluku Islands en.png|thumb|300px|[[মালুকু দ্বীপপুঞ্জ|মালুকু দ্বীপপুঞ্জের]] অন্তবর্তী এলাকায় বান্ডা সাগর]]
== দ্বীপসমূহ ==
বান্ডা সাগরের সীমান্তবর্তী দ্বীপগুলি হল পশ্চিমে [[সুলাওয়েসি]], পূর্বে [[বুরু দ্বীপ|বুরু]], আমবোন, সেরাম, আরু, বারাট ডায়া, টানিমবার, কাই এবং তিমুর. যদিও ছোট ছোট পাথুরে দ্বীপের জন্য সমুদ্রের সীমানা [[নৌচালনা]]র জন্য বিপজ্জনক, সমুদ্রের মধ্যবর্তী এলাকা অপেক্ষাকৃত উন্মুক্ত। সমুদ্রের মধ্যে দ্বীপমালাগুলির মধ্যে বান্ডা দ্বীপপুঞ্জ রয়েছে। বান্ডা সাগরের কয়েকটি দ্বীপ, যেমন গুনুং আপি এবং মানুক, সক্রিয় [[আগ্নেয়গিরি]]।
 
== বান্ডা সাগরের ভূত্বকীয় পাতসমূহের ক্রিয়াকলাপ ==
[[File:BandaSeaPlate.png|thumb|[[বান্ডা সাগরীয় পাত|বান্ডা সাগরীয় পাতের]] মানচিত্র]]
বান্ডা বৃত্তচাপ তার ১৮০° বক্রতার জন্য বিখ্যাত, তিমুরে অবস্থিত, এবং সর্বজনীনভাবে অনুমোদিত যে অস্ট্রলীয় মহাদেশীয় প্রান্তের সঙ্গে একটি আগ্নেয় বৃত্তচাপের ধাক্কার ফলে এর সৃষ্টি হয়েছিল।<ref>
Carter, D. J., Audley-Charles, M. G. & Barber, A. J. Stratigraphical analysis of island arc-continental margin collision in eastern Indonesia. J. Geol. Soc. Lond. 132, 179�189 (1976).
</ref><ref>
Hamilton, W. Tectonics of the Indonesian Region Vol. 1078 (US Geol. Soc. Prof. Pap., 1979).
</ref>
বান্ডা সাগরীয় পাতের প্রধান অংশ বান্ডা সাগর দ্বারা পরিব্যাপ্ত। সাগরের দক্ষিণ প্রান্ত নিম্নস্খলনীয় এলাকার উপরের দ্বীপ বৃত্তচাপ দ্বারা গঠিত।
[[সুন্ডা খাত|সুন্ডা খাতের]] পূর্বে [[তিমুর খাত]] অবস্থিত, টানিম্বার খাত টানিম্বার দ্বীপপুঞ্জের দক্ষিণে অবস্থিত এবং আরু খাত আরু দ্বীপপুঞ্জের পূর্বে অবস্থিত।
এই খাতগুলি বান্ডা সাগরীয় পাতের নীচে [[ইন্দো-অস্ট্রেলীয় পাত|ইন্দো-অস্ট্রেলীয় পাতের]] নিম্নস্খলনীয় অঞ্চল, এবং এখানে ইন্দো-অস্ট্রেলীয় পাতটি উত্তরদিকে অপসারিত হয়।
ইন্দো-অস্ট্রেলীয় পাত দ্বারা ধীরে উত্তরদিকে বাহিত অগ্র-বৃত্তচাপীয় পলি ভাঁজ এবং চ্যুত হয়ে তিমুর দ্বীপপুঞ্জের সৃষ্টি হয়েছে।
উত্তর-পূর্বে রয়েছে [[পশ্চিম পাপুয়া]]র ''পক্ষীশীর'' পাতের নিম্নস্খলনীয় অঞ্চলের উপর অবস্থিত [[সেরাম দ্বীপ]]।<ref name="UN">
{{cite book
|title=Atlas of mineral resources of the ESCAP region Volume 17 Geology and Mineral Resources of Timor-Leste
|publisher=United Nations Economic and Social Commission for Asia and the Pacific
|url=http://www.unescap.org/esd/publications/AMRS17.pdf
|archiveurl=https://web.archive.org/web/20050520180705/http://www.unescap.org/esd/water/publications/mineral/amrs/vol17/Chapter%20II%28new%29.pdf |archivedate=20 May 2005
|chapter=Chapter II (Geology of Timor-Leste)
|date=24 December 2003 |deadurl=yes }}
</ref>
 
== তথ্যসূত্র ==
{{সূত্র তালিকা}}
{{Reflist}}
 
== গ্রন্থপঞ্জি ==