"বাইবার্স‌" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

সম্পাদনা সারাংশ নেই
মঙ্গোলদের ইসলামের পথে নিয়ে আসার ব্যাপারে তাঁর ভূমিকা প্রধান। তিনি মঙ্গোলদের সাথে গোল্ডেন হোর্ড-এ (ততকালীন মঙ্গোল-তাতার সাম্রাজ্য) মৈত্রীচুক্তিতে আবদ্ধ হন এবং তাদের মিশর পরিভ্রমণের ব্যবস্থা নেন। মিশরের সাথে যোগাযোগের ফলে বিপুল সংখ্যক মঙ্গোল ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন।
তিনি সিংহলের সহিত দূত বিনিময় করেন এবং দূরপ্রাচ্যের সাথে বাণিজ্যিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা করেন। তাছাড়া তিনি কনস্টান্টিনোপল, সিসিলি, আরাগণ ও অন্যান্য ইউরোপীয় রাষ্ট্রের সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে তোলেন। তাঁর বৈদেশিক নীতির ফলে মামলুক সাম্রাজ্যের গৌরব বৃদ্ধি পায়। বাইবার্স একজন বিচক্ষণ-ন্যায়পরায়ণ শাসনকর্তা ছিলেন। অনুগত প্রজাদের প্রতি তিনি ছিলেন দয়াশীল। কিন্তু অবাধ্য আমীরদের তিনি কঠোর শাস্তি দিতে দ্বিধা করেননি। তিনি তাঁর রাজ্যে মদ,জুয়া প্রভৃতি অনৈসলামিক কার্যকলাপ নিষিদ্ধ করেন। বাইবার্স একজন ধর্মপ্রাণ সুন্নী মুসলমান ছিলেন। তিনি একটি আদর্শ মুসলিম রাষ্ট্র গঠন করতে চেয়েছিলেন।
 
===== সংস্কৃতি এবং বিজ্ঞানে অবদানঃ =====
সাম্রাজ্যে নানা প্রকার জনহিতকর কাজের পাশাপাশি তিনি জ্ঞান-বিজ্ঞানের একজন অন্যতম প্রধান পৃষ্ঠপোষক ছিলেন। তিনি ছিলেন প্রখ্যাত চিকিৎসক আবু-আল-হাসান আলী ইবনে-আল-নাফিস এর প্রধান পৃষ্ঠপোষক যিনি ফুসফুসে রক্ত চলাচল সম্পর্কে স্পস্ট ধারণার কথা জানিয়েছেন। অথচ এই আবিষ্কারের কৃতিত্ব দেয়া হয় স্পেনের সারভেটাসকে যার তত্ত্ব রচিত আলী-ইবনে নাফিসের ২৫০ ছর পরে। সর্বকালের শ্রেষ্ঠতম জীবনী রচয়িতাদের অন্যতম ইবনে-খাল্লিকান (খ্রিঃ ১২১১-৮২) তাঁর সময়েই রচনা করেন ‘ওফাইয়াত-উল-আ- ইয়ান ওয়া আনবা-উজ-জামান’ শিরোনামের একটি জীবনীমূলক অভিধান গ্রন্থ যাকে নিকলসন সর্বোৎকৃষ্ট জীবনীগ্রন্ত বলেছেন।
তাঁর জীবনী ‘সিরাত আল-জাহির বাইবার্স’ (Life of al-Zahir Baibars) হল একটি অত্যন্ত জনপ্রিয় আরবীয় সাহিত্য যেখানে রচিত আছে তাঁর যুদ্ধ জয় অর্জনের কথা। কাজাখস্থান, মিশর সিরিয়াতে তিনি বীরের মর্যাদা পান।
 
===== সাহিত্যেকর্মে সুলতান বাইবার্সঃ =====
* Robert E. Howard রচিত "The Sowers of the Thunder” এর মূলনায়ক বাইবার্স
* রাশিয়া-কাজাখ লেখক Moris Simashko (Moris Davidovich Shamas) রচিত উপন্যাস "Yemshan" তে তিনিই প্রধান চরিত্র
* Robyn Young এর রচনা Brethren and Crusade এর অন্যতম প্রধান চরিত্র বাইবার্স
* Jefferson Cooper's (Gardner Fox) এর উপন্যাস “The Swordsman” এর প্রধান চরিত্র তিনি
* Harold Lamb এর মতে আরব্য রজনীর ‘Haroun of Baghdad’ আসলে Baibars of Cairo। কারণ পি কে হিট্টির মতে, মামলুক সুলতানদের আমলেই ‘আরব্য রজনী, চুড়ান্ত রুপ ধারণ করে।
* লেবানিজ-আমেরিকান লেখক Rabih Alameddine এর “Hakawati” বইয়ের অন্যতম কেন্দ্রীয় চরিত্র বাইবার্স।<br/>• লেখক Peter Berling এর The Children of the Grail বইয়ের অন্যতম চরিত্র বাইবার্স
* কাজাখ ন্যাশনাল সিনেমা স্টুডিও “কাজাখ ফিল্ম” ১৯৮৯ সালে Sultan Beybars নামে একটা সিনেমা বানায়।
* ঐতিহাসিক Muazam Javed Bukhari সুলতানের রিয়েল বায়োগ্রাফি রচনা করেন যার নাম “Qahira ka Qaher” (A Warrior of Egypt)
 
===== মৃত্যুঃ =====
বেনামী ব্যবহারকারী