"উমর ইবনুল খাত্তাব" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

ব্যাকরণ ঠিক করা হয়েছে
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
(ব্যাকরণ ঠিক করা হয়েছে)
ট্যাগ: মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল অ্যাপ সম্পাদনা
'''উমর ইবনুল খাত্তাব''' ({{lang-ar|عمر بن الخطاب }}, জন্ম ৫৮৩ খ্রিষ্টাব্দ{{spaced ndash}}মৃত্যু ৬৪৪ খ্রিষ্টাব্দ) ছিলেন ইসলামের দ্বিতীয় খলিফা এবং প্রধান সাহাবিদের অন্যতম। [[আবু বকর|আবু বকরের]] মৃত্যুর পর তিনি দ্বিতীয় খলিফা হিসেবে দায়িত্ব নেন। উমর ইসলামী আইনের একজন অভিজ্ঞ আইনজ্ঞ ছিলেন। ন্যায়ের পক্ষাবলম্বন করার কারণে তাকে ''আল ফারুক'' (সত্য মিথ্যার পার্থক্যকারী) উপাধি দেওয়া হয়। ''[[আমিরুল মুমিনিন]]'' উপাধিটি সর্বপ্রথম তার ক্ষেত্রে ব্যবহৃত হয়েছে। ইতিহাসে তাকে প্রথম উমর হিসেবেও উল্লেখ করা হয়। নামের মিল থাকার কারণে পরবর্তী কালের উমাইয়া খলিফা [[উমর ইবনে আবদুল আজিজ]]কে দ্বিতীয় উমর হিসেবে সম্বোধন করা হয়। সাহাবিদের মর্যাদার ক্ষেত্রে সুন্নিদের কাছে আবু বকরের পর উমরের অবস্থান।<ref>http://sunnah.com/bukhari/62/21</ref><ref>http://sunnah.com/bukhari/62/14</ref><ref>http://sunnah.com/bukhari/62/48</ref> শিয়া সম্প্রদায় উমরের এই অবস্থান স্বীকার করে না।<ref name=EI2>{{Cite encyclopedia|author=Bonner, M.; Levi Della Vida, G.| title=Umar (I) b. al-K̲h̲aṭṭāb|encyclopedia=Encyclopaedia of Islam| edition=Second |publisher=Brill |editors=P. Bearman, Th. Bianquis, C.E. Bosworth, E. van Donzel, W.P. Heinrichs|volume=10|page=820}}</ref>
 
উমরের শাসনামলে খিলাফতের সীমানা অকল্পনীয়ভাবে{{কার দ্বারা}} বৃদ্ধি পায়। এসময় সাসানীয় সাম্রাজ্য ও বাইজেন্টাইন সাম্রাজ্যের দুই তৃতীয়াংশ মুসলিমদের নিয়ন্ত্রণে আসে।<ref>Hourani, p. 23.</ref> তার শাসনামলে [[জেরুজালেম]] মুসলিমদের হস্তগত হয়। তিনি পূর্বের খ্রিষ্টান রীতি বদলে ইহুদিদেরকে জেরুজালেমে বসবাস ও উপাসনা করার সুযোগ দিয়েছিলেন।<ref>{{বই উদ্ধৃতি|last=Dubnow|first=Simon|title=History of the Jews: From the Roman Empire to the Early Medieval Period|year=1968|publisher=Cornwall Books|url=https://books.google.com/?id=MZ2MwNzB69IC&pg=PA326|volume=2|page=326|isbn=978-0-8453-6659-2}}</ref>
 
==প্রথম জীবন==
৫১টি

সম্পাদনা