গৌরকিশোর ঘোষ: সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

তথ্য
(মেট্রো রেল)
ট্যাগ: দৃশ্যমান সম্পাদনা মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
(তথ্য)
ট্যাগ: দৃশ্যমান সম্পাদনা মোবাইল সম্পাদনা মোবাইল ওয়েব সম্পাদনা
 
== সাংবাদিকতা ও সাহিত্য ==
গৌরকিশোর ১৯৭৫ সালের 'মিসা' (MISA) অর্থাৎ অভ্যন্তরীণ জন-নিরাপত্তা আইনে তাঁকে গ্রেপ্তার হন। প্রেসিডেন্সি জেলে তাকে বন্দী রাখা হয়। সাংবাদিকদের অধিকার ও মত প্রকাশের স্বাধীনতা রক্ষার জন্য বহু নির্যাতন সহ্য করেও নিরন্তর সংগ্রামের ব্রতী ছিলেন। মুক্তচিন্তা ও গণতান্ত্রিক চেতনার জন্যে বুদ্ধিজীবী মহলে জনপ্রিয় ছিলেন। তার সাহিত্য বাঙলার বিদগ্ধ পাঠকদের মধ্যে সাড়া ফেলে। [[আনন্দবাজার পত্রিকা]]<nowiki/>য় চাকরি করতেন তিনি। দেশ পত্রিকায় কলাম লিখেছেন। আশির দশকে আজকাল পত্রিকায়পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক হিসেবে যোগ দেন। দেশ-মাটি-মানুষ ট্রিলজির দ্বিতীয় খন্ড '<nowiki/>''প্রেম নেই''' গ্রামীন মুসলিম জীবন নিয়ে সুবিশাল রচনা। দেশ পত্রিকায় এই উপন্যাস ধারাবাহিকভাবে বের হয়। এছাড়া ''সাগিনা মাহাতো, জল পড়ে পাতা নড়ে, আনাকে বলতে দাও, আমরা যেখানে, লোকটা, রূপদর্শীর সংবাদভাষ্য'' ইত্যাদি তার অন্যান্য গ্রন্থ। [[সাগিনা মাহাতো]], [[তপন সিংহ]]<nowiki/>র পরিচালনায় চলচ্চিত্রায়িতও হয়েছে। নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন [[দিলীপ কুমার]]। গৌরকিশোর সৃষ্ট মজলিশি চরিত্রের নাম ''ব্রজদা''।
 
== সম্মান ==
সাংবাদিকতার জন্যে তিনি ১৯৭৬ সালে [[দক্ষিণ কোরিয়া]]<nowiki/>র 'কো জয় উক' স্মৃতি পুরষ্কার এবং ১৯৮১ সালে [[ম্যাগসাসে পুরস্কার|ম্যাগসাসে পুরস্কারে]] সম্মানিত হন। তিমিএকই বছর মহারাষ্ট্র সরকারের পুরষ্কার, ১৯৯৩ সালে হরদয়াল হারমোনি পুরষ্কার, মৌলানা আবুল কালাম আজাদ পুরষ্কার পান। তিনি ১৯৭০ খৃষ্টাব্দে [[আনন্দ পুরস্কার]] ও ১৯৮২ তে বঙ্কিম পুরষ্কার পান।<ref name=":0" /> কলকাতা মেট্রো রেলের নতুন প্রস্তাবিত চিংড়িহাটা স্টেশনটি গৌরকিশোর ঘোষের স্মৃতিতে রাখা হয়েছে।
 
== মৃত্যু ==